সোমবার, অক্টোবর ১৪

সুরুচিতে অঞ্জলি নুসরত-নিখিলের, তারপর সে কী নাচ সাংসদের!

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বিয়ের পর প্রথম পুজো অভিনেত্রী তথা বসিরহাটের তৃণমূল সাংসদ নুসরত জাহানের। অষ্টমীর সকালে স্বামী নিখিল জৈনকে নিয়ে পৌঁছে গিয়েছিলেন নিউ আলিপুরের সুরুচি সঙ্ঘের মণ্ডপে। সেখানেই অঞ্জলি দিলেন নবদম্পতি। মাঝে নুসরত নিখিল, এক পাশে সুরুচির অন্যতম কর্তা তথা রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ নিঃশ্বাস এবং অন্য পাশে পরিচালক সৃজিৎ মুখোপাধ্যায়।

অঞ্জলির পরে নুসরত জানান , তিনি প্রতিবারই না খেয়ে অষ্টমীর অঞ্জলি দেন। হাসতে হাসতে বলেন, “এ বার চ্যালেঞ্জ হচ্ছে নিখিলকে সব বাঙালি আচার অনুষ্ঠানগুলি শিখিয়ে দেওয়া।” ভোটের পরই তুরস্কের বোদরুম শহরে বিয়ে সারেন নিখিল-নুসরত। বিয়ে নিয়ে ব্যস্ত থাকায় বেশ কিছুটা দেরিতেই শপথ নেন এই তৃণমূল সাংসদ।

মেরুন রঙের কাঞ্জিভরম, গা ভর্তি গয়না আর খোঁপায় বাঁধা জুই ফুলের মালা—একেবারে ট্র্যাডিশনাল বাঙালি সাজে সুরুচির মণ্ডপে হাজির হন নুসরত। নিখিলের পরনেও ছিল মেরুন পাঞ্জাবি।

অঞ্জলি শেষ হতেই ঢাক আর নাচে মেতে ওঠে সুরুচির মণ্ডপ। শুরুতে অরূপ বিশ্বাস, নিখিল এবং নুসরত—তিনজনেই ঢাক বাজাতে শুরু করেন। কিন্তু খানিকএক্সণ বাজিয়েই কাঠি রেখে দেন নুসরত। তারপর শাড়ির আঁচলটাকে কোমরে বেঁধে সাংসদের সে কী নাচ! অরূপ আর নিখিলের বাজনার সঙ্গে অষ্টমীর সকালে নুসরতের নাচ সুরুচির মণ্ডপের আবহই বদলে দিল। যাওয়ার আগে বললেন, “মায়ের কাছে একটাই চাওয়া। সব বিভেদ দূর হোক। সবাই যেন ভাল থাকে।”

Comments are closed.