মঙ্গলবার, নভেম্বর ১২

ফের সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন পাক সেনার, এ বছরেই ২৩১৭ বার, গুলিতে ঝাঁঝরা এক মহিলা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: সীমান্তে শক্তি প্রদর্শন কিছুতেই বন্ধ করছে না পাক সেনারা। সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন করা হচ্ছে ফি দিন। মঙ্গলবার সকাল থেকে ফের উত্তপ্ত পুঞ্চ সেক্টর। পাক সেনাদের এলোপাথাড়ি গুলিতে প্রাণ হারিয়েছেন বছর সাতাশের এক যুবতী। আহত আরও কয়েকজন গ্রামবাসী। চলছে গুলির লড়াই ।

কোয়াসবা এবং কিরনি সেক্টরে গুলিবর্ষণ শুরু হয় এ দিন সকাল সাড়ে ৯টা নাগাদ। সম্পূর্ণ বিনা প্ররোচনায় গুলিবর্ষণ করে পাক সেনা। গুলি লাগে ওই যুবতীর। পাল্টা জবাব দেন ভারতীয় জওয়ানরাও। সেনা সূত্রে খবর, ওই যুবতীর নাম শামিম আখতার। পাক সেনাদের গুলি ঝাঁঝরা করে দিয়েছে তাঁকে। আহত আরও কয়েকজন। অগস্টেই পুঞ্চ জেলার কৃষ্ণাঘাটি সেক্টরে পাক সেনাদের মর্টার হামলায় প্রাণ গিয়েছিল রবি রঞ্জন নামে এক জওয়ানের। এর আগে রাজৌরির নৌশেরা সেক্টরে সংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে পাকিস্তান। তাতে প্রাণ হারান ল্যান্সনায়েক সন্দীপ থাপা নামে এক জওয়ান।

বালাকোটে ভারতীয় বায়ুসেনার হামলার পর থেকেই নিয়ন্ত্রণরেখার ওপার থেকে হামলা আরও জোরদার করেছে পাক সেনা। ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা রদের পর থেকে ভারত-পাক সীমান্তের ছবিটা আরও ভয়ানক হয়ে উঠেছে। জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা (এনআইএ) জানাচ্ছে, জানুয়ারির পর থেকে অক্টোবর পর্যন্ত  মোট ২৩১৭ বার সংঘর্ষবিরতি ভেঙেছে পাকিস্তান। আর কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বিলোপের পর থেকে মাত্র ২৫ দিনেই সেই সংখ্যাটা দাঁড়িয়েছে ২২২ বারে।

এনআইএ সূত্রে খবর, গত ৫ অগস্ট থেকে গড়ে রোজ ১০ বার করে সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন করছে ইসলামাবাদ। যার মধ্যে নৌশেরা, সুন্দরবনি, পুঞ্চ, রাজৌরি সেক্টরে ফি দিন চলছে মর্টার হামলা। সেনা চৌকি ও বসতি এলাকা লক্ষ্য করে গোলাগুলি চালাচ্ছে পাক বাহিনী। পাল্টা জবাব দিচ্ছে ভারতীয় সেনাও।

বিদেশ মন্ত্রকের এক মুখপাত্র এ প্রসঙ্গে জানিয়েছেন, এর আগেও পাকিস্তানকে সংঘর্ষ বিরতি বন্ধ করার জন্য সতর্ক করা হয়েছিল। বলা হয়েছিল, ২০১৩-র সংঘর্ষবিরতি চুক্তি যেন তারা মেনে চলে। কিন্তু তার পরেও কোনও রকম প্ররোচনা ছাড়াই বার বার একই কাজ করে চলেছে পাকিস্তান।

পড়ুন, দ্য ওয়ালের পুজোসংখ্যার বিশেষ লেখা…

Comments are closed.