রবিবার, অক্টোবর ২০

ইসরোর পরের পাঁচ মিশন কী কী, জানালেন চেয়ারম্যান শিবন

দ্য ওয়াল ব্যুরো: এক দশক আগে চন্দ্রযান ১-কে লুনার মিশনে পাঠিয়েছিল ইসরো। তা সফল হয়নি। ইসরো তাতে দমেনি। দশ বছর পর চন্দ্রযান ২ পাঠিয়েছে চাঁদের উদ্দেশে। প্রথম মিশনের তুলনায় তা অনেকটাই সফল। শেষ মুহূর্তে বিক্রম ল্যান্ডারের সঙ্গে যোগাযোগ ছিন্ন হয়ে গেলেও, ইসরো জানিয়েছে তা ৯৫ শতাংশই সফল হয়েছে। বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা এখনও চলছে। তা শেষমেশ সম্ভব না হলেও, অরবিটার এখনও সাত বছর কর্মক্ষম থাকতে পারে।

এরই মধ্যে ইসরো চেয়ারম্যান জানিয়ে দিলেন, এরই সমান্তরালে আরও পাঁচটি মিশনের জন্য পুরোদস্তুর প্রস্তুতি চলছে তাঁদের।

সেগুলো কী কী?

১। অ্যাস্ট্রোস্ট্যাট। এটা হল মাল্টি ওয়েভলেন্থ স্পেস টেলিস্কোপ।

পিএসএলভি-সি ৩০ রকেটের সঙ্গে জোড়ার আগে অ্যাস্ট্রোস্যাট

২। আদিত্য এল ১। সূর্যের উপর গবেষণার জন্য এই মহাকাশ যান তৈরি করছে ইসরো। ২০২০ সালের মাঝামাঝি সময়ে আদিত্য এল ১ অভিযানে যাওয়ার কথা।

ইসরোর ‘সোলার মিশন’ আদিত্য এল-১

৩। গগনযান মিশন। এটা হল ইসরো প্রস্তাবিত মহাকাশ অভিযান। এ জন্য মহাকাশ যান নির্মাণ প্রায় সম্পূর্ণ করে ফেলেছে ইসরো। গগনযানে তিন জন মহাকাশচারীকে পাঠানো হবে। এ জন্য ভারতীয় বায়ুসেনা থেকে তিন জনকে বেছে নেওয়ার প্রক্রিয়া জোর কদমে চলছে।

মহাকাশে মানুষ নিয়ে যাবে গগনযান। ইসরোর ইলাস্ট্রেশন।

৪। মঙ্গলযান-২। মঙ্গল গ্রহের উদ্দেশে এ হল ইসরোর পরবর্তী অরবিটার মিশন। ২০২৪ সালে মঙ্গলযান রওনা হবে বলেই পরিকল্পনা রয়েছে ইসরোর।

ইসরোর পরবর্তী মার্স অরবিটার মিশন

৫। চন্দ্রযান-৩। বস্তুত চন্দ্রযান ২ ষোলো আনা সফল হলেও চাঁদের ফের মহাকাশ যান পাঠানোর পরিকল্পনা আগেই ছিল ইসরোর।

জাপানের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে ইসরোর তৃতীয় চন্দ্রযাত্রা— চন্দ্রযান ৩

কে শিবন সেটাই আরও স্পষ্ট করে জানিয়েছেন। তবে এই প্রকল্পের বাস্তবায়ন ইসরো একা করবে না। জাপানের মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্রের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে বাস্তবায়িত হবে চন্দ্রযান ৩ প্রকল্প।

Comments are closed.