ভয়ঙ্কর অপরাধ! ৭০ বছর পর মার্কিন মুলুকে কোনও মহিলার মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হচ্ছে

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাটর্নি জেনারেল উইলিয়াম বার সংবাদমাধ্যমের সামনে বলেছেন, "মন্টেগোমারি যে অপরাধ করেছে তা পৈশাচিক। যে কোনও সুস্থ মানুষ শিউরে উঠবে।"

২১১

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

দ্য ওয়াল ব্যুরো: নৃশংস! নজির বিহীন ভয়াবহ অপরাধের জন্য প্রায় ৭০ বছর পরে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কোনও মহিলার মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হতে চলেছে। দোষীসাব্যস্ত করা হয়েছে মিসৌরি প্রদেশের বাসিন্দা লিসা মন্টেগোমারিকে। ইন্ডিয়ানাতে আগামী ডিসেম্বরে মন্টেগোমারির শরীরে বিষাক্ত ইঞ্জেকশন দিয়ে তার মৃত্যু কার্যকর করবে মার্কিন প্রশাসন।

এখন প্রশ্ন হচ্ছে, লিসা মন্টেগোমারি কী অপরাধ করেছিল?

২০০৪ সালের ডিসেম্বর মাসে এক অন্তঃসত্ত্বা মহিলাকে গলা টিপে খুন করেছিল লিসা। তারপর ওই মহিলার পেট কেটে গর্ভস্থ শিশুকে অপহরণ করে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাটর্নি জেনারেল উইলিয়াম বার সংবাদমাধ্যমের সামনে বলেছেন, “মন্টেগোমারি যে অপরাধ করেছে তা পৈশাচিক। যে কোনও সুস্থ মানুষ শিউরে উঠবে।”

December execution set for convicted killer Lisa Montgomery | The Kansas  City Star

১৯৫৩ সালে মার্কিন মুলুকে শেষবার কোনও মহিলার মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হয়। সেবার বনি হেডি নামের এক মহিলাকে এক শিশু খুনের অভিযোগে গ্যাস চেম্বারে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়।

যে মহিলাকে খুন করেছিল লিসা তাঁর বাড়িতে সে কুকুর ছানা আনতে যাচ্ছিল। বাড়িতে ঢোকার পর অন্য মূর্তি ধরে। অন্তঃসত্ত্বা মহিলাকে মারধর শুরু করে। সে বিছানায় পড়ে গেলে গলা টিপে ধরে লিসা। ওই মহিলা জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। এরপর ছুরি দিয়ে তলপেট চিরে দেওয়া হয়।

গর্ভস্থ বাচ্চাটিকে নিজের বলে চালানোর চেষ্টা করে। তার আইনজীবীরা আদালতে বলেন, লিসা ছোট থেকে মানসিক ভারসাম্যহীন। কিন্তু আদালত কোনও যুক্তি গ্রাহ্য করেনি।

মার্কিন বিচার ব্যবস্থায় দুটি স্তর রয়েছে। এক ফেডারেল বিচার ব্যবস্থা অর্থাৎ জাতীয় স্তরের বিচার প্রক্রিয়া। এবং দ্বিতীয়, স্টেট জুডিশিয়ারি। অর্থাৎ প্রাদেশিক। কিছু অপরাধের বিচার সরাসরি ফেডারেল কাঠামোয় চলে। আবার প্রাদেশিক বিচার ব্যবস্থায় চলা মামলার গুরুত্ব বুঝে তা তুলে আনা হয় ফেডারেল কাঠামোয়।

১৯৭৬ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিম কোর্ট মৃত্যুদণ্ডে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল। ১৯৭৬ সালে আবার তা তুলে নেওয়া হয়। তবে জাতীয় স্তরে মৃত্যুদণ্ড বন্ধই ছিল। ২০১৮ সালে ট্রাম্প সরকার ফের তা চালু করে। লিসা মন্টেগোমারির মামলা চলছিল ফেডারেল ব্যবস্থায়। ডিসেম্বরে তার মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হবে।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More