গতিময় সফর! ঘণ্টায় ৪০০ কিলোমিটার বেগে বিশ্বের দ্রুতগতির বুলেট ট্রেন ছুটবে জাপানে

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

    দ্য ওয়াল ব্যুরো: ছুঁচলো মুখের সাদা ট্রেন। সাজানো, সুন্দর। বিমানের সঙ্গে খুব একটা পার্থক্য নেই। কামরার উপরের দিকে, সামনে-পিছনে-পাশে ডিসপ্লে স্ক্রিন। তাতে ভেসে উঠছে গন্তব্যস্থল এবং কোন কোন স্টেশন ছুঁয়ে ট্রেন যাচ্ছে, সেগুলোর নাম। বুলেট ট্রেনে নিজেদের নজির আগেই তৈরি করে ফেলেছে জাপান। এ বার বিশ্বকে চমকে দিতে তাদের নতুন নির্মাণ, আলফা-এক্স বুলেট। গতিতে যা নাকি টেক্কা দেবে চিনের বুলেট ট্রেনকেও।

    ঘণ্টায় ৪০০ কিলোমিটার (২৪৯ মাইল প্রতি ঘণ্টা) গতি ছোঁয়া এই আলফা-এক্স এখনও পর্যন্ত বিশ্বের দ্রুততম বুলেট ট্রেন, এমনটাই দাবি জাপানের। জার্মানি ও আমেরিকায় সবচেয়ে দ্রুত গতির যে ট্রেন চলে, তার গতিবেগ ঘণ্টায় ৩২০ কিলোমিটার। চিনের দ্রুত গতির বুলেট ছোটে ঘণ্টায় ৩৮০ কিলোমিটার বেগে।  আলফা-এক্স টেক্কা দিতে চলেছে এদের সকলকে।

    জাপানের স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, এই বুলেটের অন্দরমহলের সাজসজ্জা নাকি চমকে দেওয়ার মতো। সাধারণ ভাবে এর গতি থাকবে ঘণ্টায় ৩৬০ কিলোমিটার। সর্বোচ্চ গতি ছোঁবে ৪০০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা। ট্রায়ালের সময় এই গতিতেই ছোটান হবে ট্রেন। শনিবার মধ্যরাতে জাপানের সেন্দাই থেকে আওমোরি শহরের মধ্যে পরীক্ষামূলক ভাবে চালানো হবে ট্রেনটি। সরকারি ভাবে যাত্রীদের নিয়ে আলফা-এক্স ছুটবে ২০৩০ সালে।

    সূত্রের খবর, এখনও পরীক্ষার স্তরেই থাকবে এই বুলেট ট্রেন। প্রতি সপ্তাহে অন্তত দু’বার করে ট্রায়াল দেওয়া হবে এই ট্রেনকে। এমনকি সব ঠিক থাকলে আগামী বছরেও পুরোদমে যাত্রা শুরু করতে পারে আলফা-এক্স। জানা গেছে, এন৭০০এস সিরিজের বুলেট ট্রেনকেও ছাপিয়ে যাবে এই আলফা-এক্স।

    জাপানে নানা রুটে, নানা গতির বুলেট ট্রেন চলে।  জাপানে বুলেট ট্রেনকে বলে ‘শিনকানশেন’। কথাটার অর্থ ‘নতুন ট্রাঙ্ক লাইন’। জাপানে প্রথম বুলেট ট্রেনের সূচনা হয় ১৯৬৪ সালে। স্ট্যান্ডার্ড গেজের (চার ফুট সাড়ে আট ইঞ্চি) লাইনের উপর দিয়ে চলে এই ট্রেন। যত দিন যাচ্ছে, গতি আর প্রযুক্তির আধুনিকতা বদলাচ্ছে। জাপানের বুলেট ট্রেনও এখন অনেক বেশি আধুনিক ও দ্রুত গতির। এই ট্রেনের জন্য ফি বছর গোটা জাপানে কয়েক কোটি টন কার্বন-দূষণ এড়ানো সম্ভব হয়।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

You might also like

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More