রবিবার, ডিসেম্বর ১৫
TheWall
TheWall

হংকং বিমানবন্দর চালু, কিন্তু অচলাবস্থা কাটেনি, ২০০ উড়ান বাতিল

দ্য ওয়াল ব্যুরো: চার দিন পরেও মিটল না অচলাবস্থা। শুক্রবার থেকে বিমানবন্দরের লাউঞ্জে অবস্থান শুরু করেছিলেন হাজার পাঁচেক বিক্ষোভকারী। সোমবার সকালে প্রতিবাদ আরও প্রবল হয়। চাপে পড়ে একশোর বেশি উড়ান বাতিল করে হংকং বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। মঙ্গলবার সকালেও দেখা গেছে একই ছবি। সংখ্যাটা কমলেও বিমানবন্দরে অবস্থান চলছে। জনসাধারণের জন্য বিমানবন্দর খুলে দিলেও যাত্রী নিরাপত্তার কথা ভেবে অন্তত ২০০টি বিমান বাতিল করা হয়েছে।

হংকংয়ের বিমানসংস্থা ক্যাথে প্যাসিফিক জানিয়েছে, হাতে গোনা কয়েকটি বিমান আজ ভোরে শহরের মাটি ছেড়েছে। এমিরেটস এয়ারলাইন্স ও ভার্জিন অস্ট্রেলিয়ার উড়ানের জন্য একটি নির্দিষ্ট সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে। বাকি ২০০টি বিমান বাতিল করা হয়েছে। ফের কবে উড়ান চলাচল স্বাভাবিক হবে, তা-ও বলতে পারেননি বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ।

সূত্রের খবর, গতকাল মধ্যরাত থেকেই বিমানবন্দরের অ্যারাইভাল এরিয়া’ ছেড়ে চলে গেছেন অনেক বিক্ষোভকারীই। বাকিরা প্ল্যাকার্ড হাতে এ দিনও অবস্থানে বসেছেন। অশান্তি এড়াতেই তাই উড়ান বাতিলের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

বিতর্কিত প্রত্যর্পণ বিলের বিরোধিতা করে জুন মাসে দশ লক্ষেরও বেশি মানুষ নেমেছিলেন হংকংয়ের রাস্তায়। প্রবল চাপে সেই বিল আনা আপাতত স্থগিত রেখেছেন স্বশাসিত এই অঞ্চলের প্রশাসনিক প্রধান ক্যারি লাম। তবে প্রশাসনিক সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে ফের রাস্তায় নামেন হাজার হাজার হংকংবাসী। দাঙ্গা রুখতে পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তিও হয় বিক্ষোভকারীদের। রবিবার রাতে পরিস্থিতি চরমে ওঠে। পুলিশ জানায়, প্রতিবাদী জনতাকে ছত্রভঙ্গ করতে কাঁদানে গ্যাসের ৮০০ গ্রেনেড ছুড়তে হয়েছে তাদের।

হংকংয়ের গণতন্ত্রকামী নেতাদের বক্তব্য,  বিক্ষোভ থামাতে যথেচ্ছ ভাবে পেপার স্প্রে, লাঠি, বর্মের প্রয়োগ করে পুলিশ। কাঁদানে গ্যাস, রবার বুলেট ছোড়া হয়। তাতে আহত হন বহু মানুষ। পুলিশের ভূমিকার প্রতিবাদ করতেই বিমানবন্দরে এই জমায়েত। বিক্ষোভকারীদের প্ল্যাকার্ডেও লেখা ছিল, ‘হংকং আর সুরক্ষিত নেই। পুলিশের লজ্জা হওয়া উচিত।’

অন্যদিকে, পুলিশকে সমর্থন করে বিক্ষোভকারীদেরই ভৎর্সনা করেছেন ক্যারি ল্যাম। তিনি বলেছেন, “স্বাধীনতার নামে আইনশৃঙ্খলার অবক্ষয় হচ্ছে। বিক্ষোভকারীরা শহরে অযথা অশান্তির আবহ তৈরি করছেন।”

আরও পড়ুন:

প্ল্যাকার্ড হাতে বিক্ষোভকারীদের তাণ্ডব, একশোরও বেশি উড়ান বাতিল হংকং বিমানবন্দরে

Comments are closed.