শুক্রবার, নভেম্বর ২২
TheWall
TheWall

উড়ে এসে বুকে লাথি! ক্যারাটের প্যাঁচ মেরে চিড়িয়াখানার কিপারকে ফেলে দিল শিম্পাঞ্জি, দেখুন ভিডিয়ো

দ্য ওয়াল ব্যুরো: শিম্পাঞ্জিরা কি ক্যারাটে জানে? বা কুস্তির প্যাঁচ-পয়জার? অথবা জুডো কিংবা কুম্ফু? এতদিনের ধারণা কী ছিল জানা নেই, তবে এই ভিডিয়ো দেখে প্রাণিবিজ্ঞানীরা নির্ঘাত বলবেন, শিম্পাঞ্জিরা ক্যারাটে জানলেও জানতে পারে! মোবাইলে ভিডিয়ো (প্রাণী সংরক্ষণবিদ মাইক হস্টন নিজের ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইল শেয়ার করেছিলেন ক’মাস আগে) চালিয়ে দেখতে পারে যারা, তাদের পক্ষে ফিল্মি কায়দায় স্টান্ট খুব একটা আশ্চর্যের নয়। ব্রুসলি বা জ্যাকি চেনের সঙ্গে কখনও আলাপ হয়েছিল  কি না সেটা অবশ্য জানা নেই, তবে চিনের একটি চিড়িয়াখানার শিম্পাঞ্জির ক্যারাটের প্যাঁচ দেখে হয়তো নতুন করে ভাবনা চিন্তা করছেন চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ।

ব্যাপারটা তাহলে খুলেই বলা যাক। চিনের হেফেই ওয়াইল্ড লাইফ পার্কের বছর বারোর দুষ্টু শিম্পাঞ্জি ইয়াং ইয়াং। বেশ ছটফটে। শুক্রবার সকালে হঠাৎই তার ইচ্ছা জাগে চিড়িয়াখানার বাইরে বেরিয়ে একটু হাওয়া খাবে। যেমন ভাবা তেমনি কাজ। খাঁচার দরজা কোনও এক অভিনব কায়দায় খুলে ফেলে সে পালানোর চেষ্টাতেই ছিল। কিন্তু বাধ সাধেন এক কিপার। চমকটা শুরু হয় এর পরেই। যে ঘটনা ঘটে তার ভিডিয়ো নেট দুনিয়ায় শেয়ার করেছে হেফেই পুলিশ।

ভাইরাল ভিডিয়োতে দেখা গেছে, চিড়িয়াখানার একেবারে মূল দরজার কাছে পৌঁছে গেছে ইয়াং ইয়াং। আনন্দে লাফাতে লাফাতে যখন সে বেরোতে যাবে, সামনে চলে আসেন ওই কিপার। কুছ পরোয়া নেই এমন একটা ভাব দেখিয়ে সামান্য পিছিয়ে, ফের ছুটে এসে অনেকটা ব্রুসলির কায়দায় কিপারকে মারে ক্যারাটের এক প্যাঁচ। যদিও চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষের মতে ওটা ঠিক ক্যারাটে নয়, অনেকটা উড়ে এসে লাথি মারার মতো। তা সে যাই হোক, কিপারকে ধরাশায়ী করে ফের সে দৌড়োদৌড়ি শুরু করে গোটা এলাকা জুড়ে।

হেফেই ওয়াইল্ড লাইফ পার্কের তরফে জানানো হয়েছে, নিজের খাঁচার চালে উঠেই একটি বাঁশ গাছে লাফিয়ে পড়ার চেষ্টা করছিল ইয়াং ইয়াং। তখনই ঘুম পাড়ানি গুলিতে কাবু করা হয় তাকে। এখন অবশ্য আবার খাঁচায় বন্দি ইয়াং ইয়াং এবং সে নাকি যথেষ্টই মনমরা।

Comments are closed.