মঙ্গলবার, অক্টোবর ১৫

‘কাশ্মীর ভারতের, তোমাদের নয়, কোনও দিনও ছিল না,’ পাকিস্তানকে তুলোধনা করলেন ইমাম মহম্মদ তৌহিদি

দ্য ওয়াল ব্যুরো: কাশ্মীর হোক বা পাকিস্তানের মেধাবী ছাত্র, ইঞ্জিনিয়ার, গবেষকদের এতদিন ‘জিহাদ’-এর নামে জঙ্গি সংগঠনে নাম লেখাতে দেখা যেত। হিজবুল মুজাহিদিন এবং লস্কর-ই-তৈবা জঙ্গি সংগঠনের অধিকাংশ কম্যান্ডারই হয় নামী কলেজের ইঞ্জিনিয়ার, নয়তো পিএইচডি স্কলার। কিন্তু ইনি একেবারে আলাদা। নিজেকে পরিচয় দেন শান্তির দূত নামে। সত্যি কথা বলতে তাঁর বুক কাঁপে না, সে পরিস্থিতি যতই উত্তেজক হোক না কেন। ইরানের বাসিন্দা, বর্তমানে অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক গবেষক, ইমাম মহম্মদ তৌহিদি এ বার মুখ খুললেন কাশ্মীর প্রসঙ্গে। এবং ভারতের সমর্থনে কার্যত তুলোধনা করলেন পাকিস্তানকে।

নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে ইসলামের ভ্রান্ত নীতি ও আইনের বিরুদ্ধে অনেক বারই গর্জে উঠেছেন ইমাম। কাশ্মীর প্রসঙ্গে টুইটে তিনি লিখেছেন, “কাশ্মীর কখনওই পাকিস্তানের অংশ ছিল না। পাকিস্তানের কোনও দিনও হবে না। বরং পাকিস্তান ও কাশ্মীর ভারতেরই অংশ। হিন্দু থেকে মুসলিম ধর্মান্তকরণের মানে এই নয়, সত্যিটাকে অস্বীকার করবে পাকিস্তান। কাশ্মীর হিন্দু রাষ্ট্র এবং পাকিস্তান তৈরির অনেক আগে থেকেই ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ। ”

সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজেকে ‘শান্তির ইমাম’ বলে পরিচয় দেন মহম্মদ তৌহিদি। টুইটারে তাঁর স্টেটাস চরমপন্থার বিরোধী, বাম ও দক্ষিণপন্থীদের থেকে অনেক দূরে থাকা শান্তির দূত। এর আগে বালুচিস্তানকে জঙ্গি মুক্ত করার ডাক দিয়েছিলেন। তাঁর দাবি ছিল জঙ্গিদের অর্থ ও নিরাপত্তা দিয়ে তোষণ করে পাকিস্তান। মুসলিম মহিলাদের উপর নির্যাতন বন্ধ করার জন্য একাধিক বার কলম ধরতে দেখা গেছে তাঁকে। ইসলাম নারীদের অপহরণ ও শারীরিক নির্যাতনের বিরুদ্ধে নিজের টুইটার হ্যান্ডেলেও সরব হয়েছেন ইমাম মহম্মদ।

ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা বিলোপের পরে পাকিস্তান যে ভাবে ভারতে জঙ্গি নাশকতার হুমকি দিয়েছে, তার ঘোর বিরোধী ইমাম মহম্মদ তৌহিদি। তাঁর কথায়, বিচ্ছিন্নতাকামীরা কাশ্মীরের সমস্যা বাড়িয়ে তুলছে। তাদের মদত দিচ্ছে পাকিস্তান। ইসলামরা ভুলে যাচ্ছে, তারাও একসময় ভারতেরই অংশ ছিল। উগ্রপন্থা এই সত্যিটাকে বদলে দিতে পারে না।

Comments are closed.