শনিবার, আগস্ট ২৪

ভারত বালাকোটের চেয়েও বড় হামলার ছক কষেছে, আমরা তৈরি, হুমকি দিয়ে বললেন ইমরান

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বালাকোটে ভারত যে বড়সড় আক্রমণ চালিয়েছিল তা এতদিন পরে প্রকারান্তরে স্বীকারই করে নিলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। বুধবার ইমরান বলেছেন, ভারত ৩৭০ ধারা বাতিল করার পরে পাক অধিকৃত কাশ্মীরে আরও বড় কোনও আঘাত হানার পরিকল্পনা করছে।

ইমরান বলেন, “আমাদের কাছে খবর আছে, আমাদের ন্যাশন্যাল সিকিওরিটি কমিটির দুটি মিটিংও হয়েছে। পাক সেনাবাহিনীর কাছে খবর আছে যে ভারতঅধিকৃত কাশ্মীরে আক্রমণ চালানোর পরিকল্পনা করেছে। ঠিক যেমন পুলওয়ামার হামলার পরে তারা বালাকোটে আক্রমণ চালিয়েছিল, তেমনই। এ বার তারা আরও ভয়ঙ্কর কোনও কিছু করার পরিকল্পনা করেছে।” পাক প্রধানমন্ত্রী পাকিস্তানের ৭৩তম স্বাধীনতা দিবসে সে দেশের পার্লামেন্টে এ কথা বলেন।

বুধবার ইমরান বলেন, “বিজেপি ও আরএসএসের আদর্শ অন্যকে ঘৃণা করতে শেখায়। বিজেপি সরকার কাশ্মীরে থেমে যাবে না, এর পর তারা পাকিস্তানের দিকে হাত বাড়াবে।” তেমন কিছু হলে পাকিস্তান পাল্টা শিক্ষা দেবে বলে হুমকি দেন ইমরান। তিনি বলেন, “আমাদের সেনা তৈরি আছে।” শুধু পাক সেনাই নয়, সারা দেশ তৈরি আছে বলেও হুমকি দেন তিনি। ইমরানের ৩০ মিনিটের স্বাধীনতা দিবসের বক্তৃতার সিংহভাগই ছিল ভারত ও বিজেপিকে নিয়ে। তিনি বলেন, “আন্তর্জাতিক মহলকে এটা বুঝতে হবে যে, আরএসএসের আদর্শ হলো নাৎসিদের মতো।” ভারত আগের মতো বহুত্ববাদী, সহনশীল এবং ধর্মনিরপেক্ষ নেই বলে দাবি করেন ইমরান।

এ বছরের ২৬ ফেব্রুয়ারি ভারতের বায়ুসেনার বিমান সীমান্ত পেরিয়ে পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনওয়া প্রদেশের বালাকোটে জইশ ই মহম্মদের ক্যাম্পের উপর আঘাত করে। ভারতের দাবি ছিল, ওই হানায় জইশের অনেক জঙ্গি মারা যায়। পাকিস্তানের পাল্টা দাবি, ভারতের বিমান ফাঁকা এলাকার উপরে হামলা চালিয়েছে। পাকিস্তানের কোনও ক্ষতি হয়নি। এই ঘটনার মাসখানেক পরে পাকিস্তান কয়েক জন বিদেশি সাংবাদিককে বালাকোটে নিয়ে গিয়ে কোনও একটি জায়গা ঘুরিয়ে দেখায়। তাদের উদ্দেশ্য ছিল এটা প্রমাণ করা যে ভারতের হানায় কেউ মারা যায়নি।

ইমরান এ দিন বলেন, “আমরা রাষ্ট্রসঙ্ঘে যাব। প্রতিটি আন্তর্জাতিক মঞ্চে যাব। ইন্টারন্যাশন্যাল কোর্ট অফ জাস্টিসের কাছেও যাব। সারা বিশ্বে যে সব কাশ্মীরিরা আছেন তাঁদের আমরা একত্রিত করছি।”

 

Comments are closed.