রবিবার, সেপ্টেম্বর ২২

উদ্ধবের প্রশংসায় উমা, বললেন রামমন্দির বিজেপি-র একার নয়

দ্য ওয়াল ব্যুরো: রামমন্দির নির্মাণের ইস্যুতে কয়েক লক্ষ হিন্দুত্ববাদীর জমায়েত করেছে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ। ফুটছে অযোধ্যা। সেই সঙ্গে ফুটতে শুরু করেছে জাতীয় রাজনীতিও। মহারাষ্ট্র থেকে সপরিবারে শিবসেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরের অযোধ্যায় যাওয়া সেই উত্তেজনার মাত্রাকে আরও বাড়িয়ে দিয়েছে। উদ্ধব তোপ দাগছেন বিজেপি-র বিরুদ্ধে। বিজেপি নেতারা তোপ দাগছেন শিব সেনা সুপ্রিমোর বিরুদ্ধে। এরমধ্যেই রামমন্দির ইস্যুতে মুখ খুললেন বিজেপি-র বর্ষীয়ান নেত্রী তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী উমা ভারতী। সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে উমা বলেন, “আমি উদ্ধবের উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাচ্ছি। বিজেপি কি একা রামমন্দিরের দায়িত্ব নিয়ে রেখেছে নাকি! ভগবান রাম সবার।”

আরও পড়ুন অসমে পঞ্চায়েত ভোট: বাংলা থেকে প্রচারে যাচ্ছেন এক ঝাঁক তৃণমূল নেতা

প্রসঙ্গত, রামমন্দির নির্মাণে বিজেপি-র অনীহার অভিযোগ তুলে কেন্দ্রের শাসক দলের বিরুদ্ধে রোজই প্রায় ক্ষোভ উগরে দিচ্ছেন একদা ‘বন্ধু’ শিবসেনা প্রধান। দলের মুখপত্র ‘সামনা’র সম্পাদকীয় থেকে শুরু করে অযোধ্যার সাংবাদিক বৈঠক, সব জায়গাতেই নরেন্দ্র মোদী, অমিত শাহ, যোগী আদিত্যনাথদের তুলোধনা করছেন উদ্ধব। রবিবারও শিবসেনা প্রধান বলেন, “বিজেপি ভোটের আগে রাম রাম করে আর ভোট ফুরোলেই আরাম করে।” অযোধ্যা মামলা সুপ্রিম কোর্টে টেনে নিয়ে যাওয়া নিয়েও সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন তিনি।

শিবসেনা প্রধান বিজেপি-র বিরুদ্ধে আক্রমণ শানাতেই ময়দানে নেমে পড়েন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী কেশবপ্রসাদ মৌর্য এবং বালিয়ার বিধায়ক সুরেন্দ্র সিং। তাঁদের কথায়, রাম জন্মভূমি আন্দোলনে শিবসেনার কোনও ভূমিকাই নেই। খামোকা নাক গলাচ্ছেন উদ্ধব। রাজস্থানের জনসভা থেকে মোদী আবার সুপ্রিম কোর্টে অযোধ্যা মামলায় দেরি হওয়ার ব্যাপারে অভিযোগের আঙুল তুলেছেন কংগ্রেসের বিরুদ্ধে। এই পরিস্থিতিতে উদ্ধবের সমর্থনে বর্ষীয়ান উমার মন্তব্যকে তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

পর্যবেক্ষকদের একাংশের মতে, অযোধ্যায় উদ্ভূত পরিস্থিতি নিয়ে চাপে পড়ে গিয়েছে বিজেপি। বন্ধু সংগঠনগুলিই কেন্দ্রের শাসক দলের মুণ্ডপাত করতে নেমে পড়েছে। অনেকে আবার এ-ও বলছেন, এ সবই গটআপ। বিজেপি কেন্দ্রের শাসক দল হিসেবে সুপ্রিম কোর্টে বিচারাধীন মামলা নিয়ে সরাসরি কিছু বলতে পারছে না। তাই ঘুরিয়ে হিন্দুত্বের হাওয়া জাগিয়ে রাখতে এই সংগঠন গুলিকে ময়দানে নামিয়েছে। সেই সঙ্গে দেশের সাধারণ মানুষের কাছে এটা বিশ্বাসযোগ্য করে তুলতে চাইছে যে, বিজেপি শুধু মন্দির বা ধর্মের রাজনীতি করে না। উন্নয়নটাই আসল কথা।

The Wall-এর ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন 

Comments are closed.