শুক্রবার, ডিসেম্বর ১৪

বিজেপির হয়ে ভোটে দাঁড়াতে পারেন মাধুরী দীক্ষিত

দ্য ওয়াল ব্যুরো : অভিনেত্রী মাধুরী দীক্ষিতকে লোকসভা ভোটে দাঁড় করানোর কথা ভাবছে বিজেপি। বৃহস্পতিবার দলীয় সূত্রেই এই ইঙ্গিত মিলেছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক বিজেপি নেতা জানিয়েছেন, আমরা এখন প্রার্থীদের নাম চূড়ান্ত করছি। পুনে লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থী হিসাবে মাধুরী দীক্ষিতের নাম সিরিয়াসলি বিবেচনা করা হচ্ছে। আমাদের মনে হয় ওই কেন্দ্রটিই তাঁর পক্ষে উপযুক্ত হবে।

২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি পুনে কেন্দ্রটি কংগ্রেসের থেকে কেড়ে নেয়। বিজেপি প্রার্থী অনিল শিরোলে তিন লক্ষ ভোটে জিতেছিলেন। বিজেপির এক বিশিষ্ট নেতা বলেন, আমাদের নেতা নরেন্দ্র মোদী প্রথমবার গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পরে এই কৌশল নিয়েছিলেন। পঞ্চায়েত ও পুরসভার নির্বাচনে তিনি কয়েকজন পুরানো প্রার্থীর পরিবর্তে অভিনেতাদের প্রার্থী করেন। তাতে পার্টির লাভই হয়েছিল। প্রার্থী হিসাবে যারা নতুন মুখ, তাদের বিরুদ্ধে বিরোধীরা কোনও অভিযোগ করতে পারেনি। তারা ঘাবড়ে গিয়েছিল। সেই সুযোগে বিজেপি সর্বাধিক আসন জিতে নেয়। ২০১৭ সালে দিল্লির পুরভোটেও নতুন মুখ এনে ভালো ফল পাওয়া যায়। কোনও সিটিং কাউন্সিলারকে টিকিট দেওয়া হয়নি। সেই ভোটে জিতেছিল বিজেপি।

আরও পড়ুন বিজেপি-র রথযাত্রা তো আটকে দিল আদালত, কিন্তু তৃণমূলের যাত্রার ভবিষ্যৎ কী?

গত জুন মাসে মাধুরী দীক্ষিতের বাড়িতে গিয়েছিলেন বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ। তাঁর সঙ্গে ছিলেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিশ। বিজেপির সম্পর্ক সমর্থন যাত্রার অংশ হিসাবে অমিত শাহ মাধুরী ও তাঁর স্বামী শ্রীরাম নেনের সঙ্গে দেখা করেন। তখনই অনেকে প্রশ্ন তুলেছিলেন, মাধুরী কি গেরুয়া ব্রিগেডের ঘনিষ্ঠ হচ্ছেন? অভিনেত্রী নিজে বলেছিলেন, বিজেপির দুই শীর্ষ নেতার সঙ্গে তাঁর সাক্ষাৎকার নিছক সৌজন্যমূলক। তিনি রাজনীতিতে আগ্রহী নন। কিন্তু পরে তাঁর মত বদলেছে বলে জানা যায়।

মাধুরী দীক্ষিতের বয়স এখন ৫১। তিনি একসময় বলিউডের এক নম্বর হিরোইন ছিলেন। হম আপকে হ্যায় কৌন, দিল তো পাগল হ্যায়, সাজন ও দেবদাস প্রভৃতি হিট ছবির নায়িকা তিনি। এর আগে বলিউডের বেশ কয়েকজন সফল অভিনেতা-অভিনেত্রী নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছেন। ১৯৮৪ সালে এলাহাবাদ থেকে নির্বাচনে দাঁড়িয়েছিলেন মেগাস্টার অমিতাভ বচ্চন। এছাড়া হেমা মালিনী, ধর্মেন্দ্র, জয়া প্রদা, রাজ বব্বর, শত্রুঘ্ন সিনহা, গোবিন্দা, অনেকেই ভোটে দাঁড়িয়েছেন। সফল হয়েছেন তাঁদের বেশিরভাগ। এবার সম্ভবত তাঁদের তালিকায় যুক্ত হতে চলেছে মাধুরী দীক্ষিতের নাম।

দক্ষিণের রাজ্যগুলিতে অভিনেতা-অভিনেত্রীরা ভোটে দাড়াঁচ্ছেন বহুদিন আগে থেকেই। তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী এম জি রামচন্দ্রন, অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী এন টি রামরাওয়ের মতো নেতা একসময় ছিলেন প্রথম সারির অভিনেতা।

The Wall-এর ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন 

Shares

Comments are closed.