বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ১৭

ছুটবে বুলেট ট্রেন, জলকষ্টের মহারাষ্ট্রে সাফ হতে চলেছে ৫৪ হাজার ম্যানগ্রোভ

দ্য ওয়াল ব্যুরো: মুম্বই-আহমেদাবাদ বুলেট ট্রেন প্রকল্পের জন্য কেটে ফেলা হবে প্রায় ৫৪ হাজার ম্যানগ্রোভ। মহারাষ্ট্রে প্রায় ১৩.৩৬ হেক্টর এলাকা জুড়ে ছিল ঘন ম্যানগ্রোভ অরণ্য। কিন্তু পুরোটাই ধ্বংস হয়ে যাবে। এমনটাই দাবি করেছে মহারাষ্ট্র সরকার।

ব্যাপক হারে ম্যানগ্রোভ নিধন নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন শিব সেনার জনপ্রতিনিধি মনীষা কায়ানাড়ে। সেই প্রশ্নের লিখিত জবাব দিয়েছেন মহারাষ্ট্রের পরিবহণ মন্ত্রী দিবাকর রাওতে। তিনি জানিয়েছেন, যে পরিমাণ গাছ এই প্রকল্পের জন্য কেটে ফেলা হবে, তার ৫ গুণ বেশি গাছ লাগাবে মারাঠা সরকার। মুম্বই থেকে আহমেদাবাদ পর্যন্ত বুলেট ট্রেন চালানোর জন্য বিপুল সংখ্যক বড় বড় পিলার লাগানো হয়েছে। আর এই পিলার লাগানোর জন্যই কেটে ফেলা হবে ম্যানগ্রোভের বন।

তবে এই ম্যানগ্রোভ ধ্বংসের সঙ্গে সঙ্গে পরিবেশবিদরা আশঙ্কা করছেন যে এ বার বন্যার জল ঢুকবে মুম্বইতে। তাঁরা জানিয়েছেন, এতদিন নভি মুম্বইতে কখনও বন্যা জল ঢোকেনি। তবে একটা বড় অংশ থেকে বিপুল পরিমাণ ম্যানগ্রোভ কেটে ফেলার ফলে বন্যার জল ঢোকার আশঙ্কা থাকতে পারে। রাওতে জানিয়েছেন, ওই এলাকার সাধারণ বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলা হচ্ছে। তাঁদের যা ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে সরকার সেই ক্ষতিপূরণ দেবে বলে জানিয়েছেন পরিবহণ মন্ত্রী।

সারা দেশে জলের জন্য ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে হাহাকার। খুব তাড়াতাড়িই দেশের একাধিক শহর জলশূন্য হয়ে যাবে বলে জানিয়েছে খোদ সুপ্রিম কোর্ট। এ বছরের গ্রীষ্ম শুরুর আগে থেকেই বারবার উঠে এসেছে মহারাষ্ট্রের নাম। সে রাজ্যই এখন সব চেয়ে বেশি ভুগছে জলকষ্টে। সোশ্যাল মিডিয়ায় বারবার ভাইরাল হয়েছে ফুটিফাটা চাষজমির ছবি। এমন জলসংকটের দিনে খোদ মহারাষ্ট্র থেকেই উঠে এলো এমন ভয়াবহ খবর।

আরও পড়ুন-

জল আনতে রোজ ১৪ কিলোমিটার পথ পাড়ি ১০ বছরের ছেলের, খরার রূপ দেখে শিউরে উঠছেন নেটিজেনরা

Comments are closed.