রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৩

ঘুমন্ত অবস্থায় চোখে লেন্স? গর্ত হতে পারে কর্নিয়ায়

দ্য ওয়াল ব্যুরো: আগে চশমাই পরতেন সুচেতা। কিন্তু মাঝে হঠাৎ শখ হয়েছিল কনট্যাক্ট লেন্স পরার। যেমন ভাবা তেমন কাজ। শখ পূরণ করতে তড়িঘড়ি বানিয়ে ফেলেছিলেন লেন্স। প্রথম প্রথম একটু অস্বস্তি হলেও কয়েকদিনের মধ্যেই বিষয়টা আয়ত্তে এসে গিয়েছিল। খোলা-পরা করাটাও অভ্যাস হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু কয়েকমাস যেতে না যেতেই চোখে সমস্যা দেখ দিল সুচেতার। ডাক্তার জানালেন, বেশ ভালো রকমের ইনফেকশন হয়েছে চোখে। পরীক্ষা করে জানা গেল যত নষ্টের গোড়া ওই কনট্যাক্ট লেন্স।

কিন্তু আজকাল তো অনেকেই লেন্স পরেন। আর সুচেতাও তো ডাক্তারের পরামর্শে ভালো জায়গা থেকে ঠিকঠাক লেন্সই কিনেছিলেন। তাহলে সমস্যাটা কোথায়। কথা প্রসঙ্গে ডাক্তারবাবু একবার সুচেতাকে জিজ্ঞাসা করেন যে তিনি কখনও লেন্স পরে ঘুমোন কিনা। খানিক ভেবে সুচেতা জানান মাঝে মাঝেই এমনটা হয়। রাতে ঘুমোনোর আগে বই পড়ার অভ্যাস সুচেতার বহুদিনের। অনেকদিনই এমন হয়েছে পড়তে পড়তে ঘুমিয়ে গিয়েছেন। সকালে উঠে দেখেছেন লেন্স খোলা হয় নি। তখন ব্যাপারটা বিশেষ আমল না দিলেও এখন হাড়েহাড়ে টের পাচ্ছেন। বেশ জ্বালা-যন্ত্রণা সইতে হচ্ছে তাঁকে। তবে পণ করেছেন এ ভুল আর কখনও করবেন না। প্রয়োজনে লেন্স পরা ছেড়ে দেবেন তাও ভালো।

সম্প্রতি মেডিক্যাল সংক্রান্ত এক গবেষণাতেও জানা গিয়েছে এমনই তথ্য। ওই গবেষণা বলছে, অন্য অনেক কারণেই আমাদের চোখে ইনফেকশন হতে পারে। তবে কনট্যাক্ট লেন্স পরে ঘুমানোর অভ্যাস থাকলে স্বাভাবিকের তুলনায় ৮ গুণ বেশি ইনফেকশন হতে পারে আপনার চোখে। শুধু তাই নয়, কর্নিয়ায় হয়ে যেতে পারে গর্তও।

মানব শরীরের অন্যতম সেনসেটিভ অঙ্গ হলো চোখ। প্রতিনিয়ত এর প্রয়োজন সঠিক অক্সিজেন, স্যালাইন এবং সঠিক পুষ্টির। কিন্তু দীর্ঘ সময় চোখের মধ্যে লেন্স আটকে থাকলে কিংবা লেন্স পরে কেউ ঘুমিয়ে পড়লে চোখের দরকারি উপাদান গুলো সঠিক সময়ে সঠিক ভাবে পৌঁছতে পারে না। গবেষণা বলছে, চোখে অক্সিজেনের অভাব হলে সেই সময় সবচেয়ে দ্রুত গতিতে ব্যাকটেরিয়া আক্রমণ করতে পারে। এইসব ব্যাকটেরিয়া নিমেষে চোখের প্রতিরোধ ক্ষমতা কমিয়ে দেয়। এবং কর্নিয়ার মধ্যে ছোট ছোট গর্তের সৃষ্টি করে।

যাঁদের চোখে ভালো রকমের পাওয়ার রয়েছে তাঁরা অনেক ক্ষেত্রেই নিজের দৃষ্টিশক্তিটা একটু ভালো করার জন্য লেন্স ব্যবহার করে থাকেন। তবে চিকিৎসকদের পরামর্শ লেন্স ব্যবহার করলে অবশ্যই সে ব্যাপারে যত্নবান হোন। ঠিক মতো খোলা-পরা করার বিষয়ে আরেকটু সাবধান থাকুন। তাহলেই এড়িয়ে চলা যাবে সব সমস্যা।

 

Shares

Leave A Reply