মঙ্গলবার, অক্টোবর ১৫

‘মুম্বইয়ের ফুসফুস’ আরে কলোনিতে কাটা পড়ল ১৮০০ গাছ, রাস্তায় শুয়ে প্রতিবাদ পরিবেশপ্রেমীদের, রণক্ষেত্র মুম্বই

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বিক্ষোভের আঁচ বাড়ছে। পুলিশি ধরপাকড়ও বাড়ছে পাল্লা দিয়ে। শনিবার দিনভর পুলিশ-আমজনতা ধাক্কাধাক্কি, মারামারিতে রীতিমতো রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় আরে কলোনি এলাকা। জারি করা হয় ১৪৪ ধারা। রবিবার সকাল থেকে ফের তুলকালাম শুরু হয়েছে মুম্বইয়ের নানা জায়গায়। মানব-শৃঙ্খল তৈরি করে গাছ কাটার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন পরিবেশবিদ, সমাজকর্মী, স্কুল-কলেজ পড়ুয়া থেকে অধ্যাপক, গবেষকরা। গতকাল থেকে আজ অবধি গ্রেফতার করা হয়েছে মোট ৩৮ জনকে।

এ দিন সকাল থেকে বিক্ষোভ শুরু হয়েছে আদালত চত্বরের বাইরেও। বোরিভালি আদালত ধৃতদের বিচারবিভাগীয় হেফাজতের নির্দেশ দিলে ক্ষোভে ফেটে পড়েন সাধারণ মানুষ। গ্রেটার মুম্বই পুরসভা ও মুম্বই পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, এ দিন গোরেগাঁওয়ের নানা জায়গায় রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখানোর জন্য আটক করা হয়েছে ৫৫ জনকে। গতকাল থেকে আটকের সংখ্যা শতাধিক।

সবুজ সরিয়ে আরে কলোনিতে মেট্রো প্রকল্পের কাজ শুরু হয়েছে। ২৩ হাজার ১৩৬ কোটি টাকার কোলাবা-বান্দ্রা মেট্রো প্রকল্পের জন্য আরে অঞ্চলকে প্রায় বৃক্ষশূন্য করতে হবে। একটা কারশেড তৈরির জন্যই কাটতে হবে আড়াই হাজারের বেশি গাছ। রাজ্য সরকারের এই পরিকল্পনার কথা সামনে আসার পরই তুমুল বিক্ষোভ শুরু হয় আরে কলোনিতে। স্থানীয়রা তো বটেই, রাজ্যের নানা জায়গা থেকে পরিবেশপ্রেমী, ছাত্রছাত্রী থেকে অধ্যাপক-গবেষকরা ভিড় জমান কলোনিতে। হাতে হাত রেখে মানব-শৃঙ্খল তৈরি করে বৃক্ষছেদনে বাধা দেন। জমায়েত তুলতে হাজির হয় মুম্বই পুলিশের বিশেষ বাহিনী। গোটা এলাকা রণক্ষেত্রের চেহারা নেয়।

আরে এলাকায় গাছ কাটা রুখতে চারটে পিটিশন দাখিল হয় বম্বে হাইকোর্টে। গতকাল এই আপিল খারিজ করে দেয় আদালত। জানানো হয়, আরে কলোনি সবুজে ভরা হলেও এই এলাকাকে ‘জঙ্গল’-এর স্বীকৃতি দেওয়া হবে না। আদালত মুখ ফিরিয়ে নিলে ফের গাছ কাটার তোড়জোড় শুরু হয়। রুখে দাঁড়ান পরিবেশপ্রেমীরা। ঘটনার তীব্র নিন্দা করে সরব হন গুজরাটের বডগামের বিধায়ক জিগনেশ মেবাণী এবং শিবসেনা নেতা আদিত্য ঠাকরে। মুম্বই পুলিশের ব্যবহারে ক্ষুব্ধ শিবসেনা নেত্রী প্রিয়ঙ্কা চতুর্বেদী বলেন, “আমাকে আরে কলোনিতে ঢুকতে দেওয়াই হয়নি। জোরজবরদস্তি করেছে পুলিশ। আটক করার চেষ্টা করেছে।”  আরে কলোনির সমর্থনে টুইটারে প্রতিবাদ জানান, বলি অভিনেত্রী আলিয়া ভাট, পূজা ভাট, বরুণ ধাওয়ান-সহ অনেক বলি তারকাই।

পরিবেশকর্মীদের কথায়, দীর্ঘ দু’বছর ধরে আরে কলোনিকে সবুজ বনাঞ্চলের তকমা দেওয়ার জন্য লড়াই চলছে। বম্বে হাইকোর্ট সমস্ত পিটিশন খারিজ করে দিয়েছে। সুপ্রিম কোর্ট ও ন্যাশনাল গ্রিন ট্রাইবুনালের দরজায় কড়া নেড়েও লাভ হয়নি। মামলাটি সেখানেও ঝুলে রয়েছে। কাজেই সমবেত ভাবে প্রতিবাদ জানানো ছাড়া আর কোনও উপায় নেই।

আরও পড়ুন:

আরে কলোনি: ‘মুম্বইয়ের ফুসফুস’ বুলডোজারের নীচে! বিক্ষোভকারীদের মানব-শৃঙ্খল ভাঙছে পুলিশ, গ্রেফতার ২৯, আটক ২০০

Comments are closed.