শুক্রবার, ডিসেম্বর ১৪

‘উনহে কাশ্মীর চাহিয়ে, অউর হামে উনকা সর’

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ‘সঞ্জু’ এবং ‘মনমরজিয়া’ ছবি দু’টো দেখার পর যাঁরা টেবিল চাপড়ে বলেছিলেন আগামী দিনে ভিকি কৌশল বলিউড কাঁপাবে, বাজিতে তাঁরা জিতে গিয়েছেন। ২০১৯-এর শুরুতেই বিগ স্ক্রিনে রীতিমতো ধামাকা করতে আসছেন ভিকি। কিছুদিন আগেই নিজের ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলে তাঁর আগামী ছবি ‘উরি’-র ডাবিংয়ের ভিডিও শেয়ার করেছিলেন এই অভিনেতা। তখন থেকেই দর্শকরা অপেক্ষায় ছিলেন ট্রেলরের। অবশেষে প্রতীক্ষার অবসান। মুক্তি পেল আদিত্য ধরের বহু প্রতীক্ষিত ছবি ‘উরি’।

কাশ্মীরের উরি সেক্টর। এ জায়গায় নাম শুনলেই শিউরে ওঠেন ভারতীয়রা। ২০১৬ সালের ১৮ ডিসেম্বর নিশুতি রাতে এই উরিতেই আর্মি বেসক্যাম্পে হামলা চালিয়েছিল পাক জঙ্গিরা। অস্ত্রটুকু হাতে নেওয়ার সুযোগও পাননি সেনা জওয়ানরা। তার আগেই জঙ্গিদের বুলেটে ঝাঁঝরা হয়ে গিয়েছিল ১৯টি তরতাজা প্রাণ। এরপরেই ভারত সরকার সিদ্ধান্ত নেয় পাকিস্তান যে ভাষায় বোঝে তাদের সেই ভাষাতেই এ বার বোঝানো হবে। বিশ্ববাসী পরিচিত হন ‘সার্জিকাল স্ট্রাইক’-এর সঙ্গে।

এ ছবিতে এক কঠোর, নিষ্ঠাবান আর্মি অফিসারের চরিত্রে দেখা গিয়েছে ভিকি কৌশলকে। উরি শব্দটা কানে এলেই যাঁর চোয়াল শক্ত হয়ে যায়। গরম হয় শিরায় বয়ে চলা রক্ত। মনে মনে ওই অফিসার তখন বলেন, “সময় এসে গিয়েছে। রক্তের বদলে এ বার রক্ত। না হলে নিজের কাছে ছোট হয়ে যাবো।“ নিজের দলকে রক্ষা করতেও এই অফিসার প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। উর্ধ্বতন অফিসারকে তিনি জোরের সঙ্গে জানান, তাঁকে দুনিয়ার যে প্রান্তেই পাঠানো হোক, টিমকে তিনি বাঁচিয়ে ফিরিয়ে আনবেন। এরপরেই সার্জিকাল স্ট্রাইকে পাঠানো হয় ভারতীয় সেনাবাহিনীর এক বিশেষ দলকে। যাঁর নেতা ভিকি কৌশল। লক্ষ্য একটাই, “উনহে কাশ্মীর চাহিয়ে, অউর হামে উনকা সর।“

ফর্জ(দায়িত্ব) আর ফর্জি(দায়িত্বজ্ঞানহীন)-র মধ্যে ফারাক বোঝা ভিকি ছাড়াও এই ছবির আর এক প্রাপ্তি পরেশ রাওয়াল। দাপুটে সেনা অফিসারের চরিত্রে ‘উরি’ ছবিতে দেখা যাবে পরেশকে। যিনি বলেন, “আমাদের সহ্য ক্ষমতাকে ওরা(পড়ুন পাকিস্তান) আমাদের দুর্বলতা ভাবে। এ বার ওদের ঘরে ঢুকেই ওদের মারবো।“ আর এক সেনা অফিসারের চরিত্রে রয়েছে ইয়ামি গৌতম। ২০১৯-এর ১১ জানুয়ারি মুক্তি পাবে ‘উরি’। প্রযোজনায় রয়েছেন রনি স্ক্রুয়েওয়ালা।

Shares

Comments are closed.