শনিবার, মার্চ ২৩

বোর্ড পরীক্ষার জন্যই তাপসীর মন ভেঙেছিলেন প্রথম প্রেমিক!

দ্য ওয়াল ব্যুরো: পর্দায় তিনি অভিনয় করেছেন গুপ্তচর সংস্থার একরোখা অফিসারের চরিত্রে। একার অভিনয়েই বক্স অফিসে হিট করাতে পারেন সিনেমা। তিনি তাপসী পান্নু। ‘বেবি’, ‘পিঙ্ক’, ‘নাম শাবানা’-র মতো হিট ছবি রয়েছে তাঁর ঝুলিতে। পর্দায় রোম্যান্টিক চরিত্রে বিশেষ দেখা যায়নি এই অভিনেত্রীকে।

তবে তাপসীর জীবনে প্রেম এসেছিল খুব অল্প বয়সেই। ক্লাস নাইনে পড়ার সময় স্কুলেরই ক্লাস টেনের এক ছেলের সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে ওঠে তাপসীর। কিন্তু রোম্যান্সের গাড়ি দৌড়নোর আগেই ভেঙে যায় সম্পর্ক। কারণ তাপসীর সেই বয়ফ্রেন্ড তখন মন দিয়েছিলেন পড়াশোনায়। সামনেই ছিল বোর্ডের পরীক্ষা। তাই গার্লফ্রেন্ডকে দূরে সরিয়ে দেওয়াই সে সময় শ্রেয় বলে মনে করেছিল তাপসীর সেই বয়ফ্রেন্ড। সম্প্রতি একটি শো-এ এসে তাপসী বলেন, “ক্লাস নাইনে পড়তে প্রেম আসে আমার জীবনে। বাকি বন্ধুদের তুলনায় যা ছিল অনেক দেরিতে। কিন্তু আচমকাই ও ব্রেক আপ করে নেয়। কারণ পড়াশোনায় মন দিতে চেয়েছিল ও।”

পর্দায় এ ধরণের সিনে নিজেকে সামলে নিতে পারলেও কিশোরী তাপসী নিজের আবেগ সামলাতে পারেননি। অভিনেত্রী জানিয়েছেন, “তখন মোবাইলের চল ছিল না। বাড়ির পিছনের টেলিফোন বুথ থেকে প্রায়ই ওকে ফোন করতাম। কান্নাকাটি করে জানতে চাইতাম কেন ও আমায় ছেড়ে চলে গেল।”

এরপরেও অবশ্য প্রেম এসেছে তাপসী জীবনে। আর তিনিও ভেবেছেন, এই সেই পুরুষ যাঁর সঙ্গে তিনি জীবন কাটাতে চান। কিন্তু কোনও না কোনও ভাবে ভেঙে গিয়েছে তাঁর সম্পর্ক। তবে তারপরেও ভেঙে পড়েননি তাপসী। বুরং নিজেকে বলেছেন, “বেটার লাক নেকস্ট টাইম’। ঘনিষ্ঠ মহলে তাপসী বলেন, “আমি একজন সিংহ রাশির মেয়ে। ব্যক্তিগত জীবন এবং কর্মক্ষেত্র দু’জায়গাতেই সবার আকর্ষণের কেন্দ্রে থাকতে পছন্দ করি। আমি এমন একজনকে চাই যে আমার সঙ্গে খাপ খাবে।”

Shares

Comments are closed.