শনিবার, সেপ্টেম্বর ২১

স্বামী-মেয়েকে নিয়ে কেন যশ চোপড়ার বাংলো ছেড়ে বেরিয়ে এলেন রানি!

দ্য ওয়াল ব্যুরো : মুম্বইয়ের জুহুতে বিশাল বাংলো যশ চোপড়ার। এই বাংলোতেই স্বামী আদিত্য চোপড়ার সঙ্গে থাকতেন রানি মুখার্জি। যশ চোপড়ার মৃত্যুর পর সেই বাড়িতে থাকতেন পামেলা চোপড়া ও উদয় চোপড়াও। কিন্তু মেয়ে আদিরার জন্মের পরেই নাকি নতুন বাড়িতে উঠে যাওয়ার পরিকল্পনা করছিলেন তাঁরা। সম্প্রতি সেই বাড়িতে চলেও গিয়েছেন আদিত্য-রানি। কিন্তু হঠাৎ কেন এই বাড়ি বদল? কী কারণে নতুন বাড়িতে গেলেন তাঁরা?

না কোনও গণ্ডগোলের কাহিনী এ ক্ষেত্রে নেই। শাশুড়ি পামেলার সঙ্গে বেশ ভালো সম্পর্ক রানির। দেওর উদয়ের সঙ্গেও তাই। কিন্তু মেয়ে আদিরাকে লাইমলাইট থেকে দূরে রাখতে চান দু’জনে। আর সেই কারণেই এই সিদ্ধান্ত। চোপড়াদের বাংলোতেই যশরাজের অফিস। আর তাই সারাদিন অনেক লোকের আনাগোনা লেগেই থাকে। সেইসঙ্গে ক্যামেরার ঝলকানি তো থাকেই। আর তাই এই পরিবেশে মেয়েকে বড় করতে চান না রানি ও আদিত্য।

আর তাই নিজেদের বাংলোর কাছেই আরও একটা বাড়ি নিয়ে সেখানে চলে গিয়েছেন তাঁরা। বাড়ি কাছে নেওয়া হয়েছে, যাতে আদিত্যরও সুবিধা হয়, আবার পামেলাও ইচ্ছে করলেই নাতনিকে গিয়ে দেখে আসতে পারেন। কোনও কিছু দরকারে দু বাড়ির লোক এক জায়গায় সহজেই হতে পারে। আর তাই ছেলে-ছেলের বৌ-এর এই সিদ্ধান্তে না করেননি পামেলাও।

২০১৪ সালে ইতালিতে বিয়ে হয় আদিত্য চোপড়া ও রানি মুখার্জির। পরের বছরই তাঁদের মেয়ে আদিরার জন্ম। তার বয়স ৪ বছর হয়ে গেলেও এখনও পাপারাজ্জির হাত থেকে বেশ দূরেই তাকে রেখেছেন রানি। ২০১৬ সালে আদিরাকে প্রথম সবার সামনে দেখা যায়। তারপর থেকে পরিবারের মধ্যেই বড় হচ্ছে সে। আর মেয়ের এই সাধারণ জীবনের জন্যই আলাদা করে বাড়ি নিলেন বাবা-মা।

Comments are closed.