মঙ্গলবার, অক্টোবর ১৬

‘#Me Too’: এ বার ধর্ষণের অভিযোগ বলিউডের সবথেকে ‘সংস্কারী ব্যক্তি’ অলোক নাথের উপর!

দ্য ওয়াল ব্যুরো : নানা পাটেকরের বিরুদ্ধে তনুশ্রী দত্তর যৌন হেনস্থার অভিযোগের পর থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রেন্ডিং ‘#Me Too’। অনেকেই তাঁদের বিরুদ্ধে হওয়া যৌন হেনস্থার ঘটনা নিয়ে মুখ খুলছেন। এ বার সেই তালিকায় নতুন নাম বিখ্যাত টেলিভিশন লেখিকা, প্রযোজক ও পরিচালক বিনতা নন্দা। তাঁর নিশানায় ইন্ডাস্ট্রির সবথেকে ‘সংস্কারী’ অভিনেতা।

কারও নাম নেননি বিনতা। নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে গোটা ঘটনাটার বিবরণ দিয়েছেন। যাঁর দিকে বিনতা আঙুল তুলেছেন, তিনি তাঁর হিট শো ‘তারা’র অভিনেতা ছিলেন। এই ঘটনার আগে অবশ্য একদিন মদ্যপ অবস্থায় শুটিংয়ে এসে লিড হিরোইনের সঙ্গে অভব্য আচরণ করেন ওই অভিনেতা বলে জানিয়েছেন বিনতা। হিরোইন তাঁকে নাকি সবার সামনেই চড় মেরেছিলেন। তারপর ওই অভিনেতাকে সেই শো থেকে বের করে দেওয়া হয়। এমনকী এই ঘটনার জন্য শো-ই বন্ধ হয়ে যায় বলে জানিয়েছেন বিনতা।

আরও পড়ুন ‘বিনতা আজ যে জায়গায় পৌঁছেছে সেটা আমার জন্যই’, ধর্ষণ বিতর্কে মুখ খুললেন অলোক নাথ

ঘটনার বিবরণ দিতে গিয়ে বিনতা বলেছেন, ” ঐ ব্যক্তির স্ত্রী আমার খুব ভালো বন্ধু ছিলেন। একদিন তাঁর বাড়িতে পার্টি ছিল। তখন তাঁর স্ত্রী বাড়িতে ছিলেন না। বাকি সব বন্ধুদের সঙ্গে আমিও সেখানে গেছিলাম। সময় যত বাড়তে থাকল, আমার শরীর কেমন করতে থাকে। আমার মনে হয়েছিল আমার পানীয়ের মধ্যে কিছু মিশিয়ে দেওয়া হচ্ছিল। রাত ২টোর সময় আমি ওই ব্যক্তির বাড়ি থেকে বেরিয়ে হাঁটতে শুরু করি। কিছুদূর যাওয়ার পর ওই ব্যক্তির গাড়ি আমার পাশে এসে দাঁড়ায়। আমাকে বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার কথা বললে আমিও বিশ্বাস করে গাড়িতে উঠেছিলাম। ওটাই কাল হয়েছিল।”

এরপর বিনতার বক্তব্য, “আমার যতদূর মনে আছে, আমার মুখে জোর করে আরও মদ ঢেলে দেওয়া হয়েছিল। পরের দিন দুপুরে যখন ঘুম ভাঙে আমার সারা গায়ে অসহ্য যন্ত্রণা। আমাকে শুধু ধর্ষণ করা হয়নি, আমার বাড়িতে নিয়ে এসে আমার সঙ্গে পাশবিক অত্যাচার করা হয়েছিল। বিছানা থেকে উঠে দাঁড়ানোর ক্ষমতা ছিল না আমার।”

এতদিন কেন চুপ করে ছিলেন সে কথাও নিজের ফেসবুক পোস্টে লেখেন বিনতা। তিনি বলেন, “সেই সময় আমার কাজ ছিল না। তারপর অনেক কষ্টে অন্য একটা শো-তে কাজ পাই। সেখানেও ওই ব্যক্তি নিজের প্রভাব খাটিয়ে অভিনয়ে ঢুকে পড়েন। তিনি আবার আমাকে তাঁর বাড়িতে ডেকে পাঠান। কাজ বাঁচানোর জন্য আমি আবার যাই। সেই সময় আমার টাকার দরকার ছিল। আমাকে ফের নিংড়ে নেওয়া হয়। আমাকে ভয় দেখিয়ে মুখ বন্ধ করতেও বলা হয়েছিল।”

এই ঘটনায় তিনি যে শারীরিক ও মানসিক ভাবে একদম বিধ্বস্ত হয়ে পড়েছিলেন সে কথাও বলেছেন বিনতা। কিন্তু এতদিন পরে এই কথা তিনি সবাইকে বলতে চান, যাতে বাকি যাঁরা নিজেদের কাজের যায়গায় এই ধরণের হেনস্থার শিকার হয়েছেন, তাঁরাও যেন চিৎকার করে বলতে পারেন সবটা।

কিন্তু কে এই ব্যক্তি? নাম না বললেও নিজের লেখার শেষে বিনতা লিখেছেন, “সবথেকে মজার ব্যাপার হলো, আমি যে নরখাদকের নখের আঁচড়ে ক্ষতবিক্ষত হয়েছি, তাঁকে ফিল্ম ও টেলিভিশন ইন্ডাস্ট্রিতে সবথেকে সংস্কারী ব্যক্তি হিসেবে পরিচিত।”

বলিউডে সবথেকে সংস্কারী অভিনেতা হিসেবে পরিচিত বর্ষীয়ান অভিনেতা অলোক নাথ। তিনি আবার বিনতার শো ‘তারা’তে অভিনয়ও করেছেন। এমনকী অলোক নাথের স্ত্রীর সঙ্গে বিনতার বন্ধুত্বের কথা ইন্ডাস্ট্রির অনেকেই জানে। তাই নাম না বললেও বিনতার নিশানা যে অলোক নাথের দিকেই তা পরিষ্কার।

আর এই খবর সামনে আসার পরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় নেটিজেনদের ট্রোলের শিকার অলোক নাথ। অনেকেই তাঁকে ধর্ষক বলে সম্বোধন করছেন। কেউ বা আবার এই ঘটনা মুম্বই পুলিশকে ট্যাগ করে অলোক নাথকে গ্রেফতার করার দাবিও তুলেছেন। যদিও অলোক নাথের তরফে এই ব্যাপারে এখনও কোনও মন্তব্য করা হয়নি। এখন দেখার তনুশ্রী-নানা বিতর্কের পর বিনতা-অলোক নাথ বিতর্ক কতদূর এগোয়।

Shares

Comments are closed.