মঙ্গলবার, নভেম্বর ১২

বাবার আদরের ‘মন্নু’ থেকে ‘ঝাঁসির রানি লক্ষ্মীবাঈ’, বড় পর্দায় ‘মনিকর্ণিকা’, ট্রেলর মাতালেন কঙ্গনা

দ‍্য ওয়াল ব‍্যুরো: নাম ছিল মনিকর্ণিকা। বাবার আদরের ‘মন্নু’। কিন্তু চোখের পলকে বদলে গেল জীবন। বিয়ে হলো রাজা গঙ্গাধর রাওয়ের সঙ্গে। রাজপরিবারের বউ হওয়ায় বদলালো নামও। মনিকর্ণিকা থেকে তিনি হলেন ঝাঁসির রানি লক্ষ্মীবাঈ।

আরও পড়ুন এক ইনিংসের এমপি! দিদি হয়তো আর টিকিট দেবেন না মুনমুনকে

তবে বিবাহসুখ বেশিদিন ছিল না রানির কপালে। অকালেই মারা যান রাজা। আর তারপরেই ঝাঁসির উপর থাবা বসায় ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি। সেই সময় রাজ‍্যকে বাঁচাতে যুদ্ধের ময়দানে নামেন রানি। শপথ নিয়ে বলেন, শরীরের শেষ রক্তবিন্দু পর্যন্ত ঝাঁসির জন্য লড়বেন। কিন্তু কোম্পানির ষড়যন্ত্র এবং সুবিশাল ফৌজের সামনে বেশিদিন টিকতে পারেনি লক্ষ্মীবাঈয়ের সেনাবাহিনী। তবে হার মানেননি রানি। বীরদর্পে লড়েছেন মৃত‍্যুর আগে পর্যন্ত। বলেছেন, আগামী প্রজন্মের জন‍্য লড়বেন, যাতে তাঁরা স্বাধীন ভারতের স্বপ্ন দেখতে পারে। ব্রিটিশদের থেকে অধিকার ছিনিয়ে নিতে পারে। মহিলাদের মধ‍্যেও রানি লক্ষ্মীবাঈ ছিলেন আদর্শ।

দেখুন মনিকর্ণিকার ট্রেলর

বড় পর্দায় এ বার দেখানো হতে চলছে রানি লক্ষ্মীবাঈয়ের জীবন। এক বিধবার, যোদ্ধা হয়ে ওঠার কাহিনীই এ বার সিলভার স্ক্রিনে দেখবেন সিনেমা প্রেমী দর্শকরা। সৌজন‍্যে কঙ্গনা রানাওয়াত। যিনি হাত ঘোরানোর ছলে অনায়াসে দেখান তরোয়ালের মারপ‍্যাঁচ। মনেপ্রাণে বিশ্বাস করেন ঝাঁসির সেবা করাই তাঁর একমাত্র ধর্ম। তাই ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানিকে হুঙ্কার দিয়ে বলতে পারেন, “ঝাঁসি তোমরাও চাও, আমিও চাই। তফাত একটাই। তোমরা রাজত্ব করতে চাও। আমি সেবা করতে চাই।”
রিলিজ হয়েছে ছবির ট্রেলর। প্রায় সাড়ে তিন মিনিটের এই ট্রেলর, একাই মাতিয়েছেন কঙ্গনা। বা বলা ভালো গোটা স্ক্রিন জুড়ে দাপিয়েছেন তিনি। টানটান ট্রেলর দেখেই দর্শকরা বলছেন এ ছবি বাজার কাঁপাবে। তবে কেবল কঙ্গনা নন, এ ছবিতে নজর কেড়েছেন আরও অনেকেই। ছোটপর্দার জনপ্রিয় মুখ অঙ্কিতা লোখান্ডেকে এই ছবিতে দেখা যাবে ঝলকারি বাঈয়ের চরিত্রে। রাজার ভূমিকায় রয়েছেন যীশু সেনগুপ্ত। রয়েছেন অতুল কুলকার্নি এবং ড‍্যানির মতো তাবড় অভিনেতাও। আগামী ২৫ জানুয়ারি রিলিজ হবে এই ছবি।
  •  
  •   
  •   
  •   
  •   
  •   

Comments are closed.