সোমবার, নভেম্বর ১৮

ঠোঁটে লেগে মৃদু হাসি, ইরফান জানালেন, “সবাইকে এন্টারটেন করতে আবার আসছি”

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ঘসেটিরাম মিষ্টান্ন ভাণ্ডার। রাজস্থানের উদয়পুরের এই দোকান চালু হয়েছে সেই ১৯০০ সালে। তবে এখন এই দোকানের মালিক মিস্টার চম্পকজি। এ বার চম্পকজির জীবনের গল্পই দর্শকরা দেখবেন সেলুলয়েডে। সৌজন্যে ক্যানসার সারভাইভার অভিনেতা ইরফান খান।

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে দেশে ফিরেছেন ইরফান খান। তার পর থেকেই কবে প্রিয় অভিনেতাকে আবার পর্দায় দেখতে পাবেন, সেই আশায় মুখিয়ে ছিলেন অভিনেতার ফ্যানেরা। কানাঘুষো শোনাও যাচ্ছিল যে শ্যুটিং ফ্লোরে ফিরছেন ইরফান। ‘হিন্দি মিডিয়াম’ ছবির সিক্যুয়েল নিয়েই বি-টাউনে দীর্ঘদিন পর কামব্যাক করছেন তিনি। শেষ পর্যন্ত সব জল্পনার অবসান ঘটিয়ে ছবির প্রযোজক দীনেশ ভিজান জানিয়ে দেন, ‘আংরেজি মিডিয়াম’-এর জন্য শ্যুটিং শুরু করেছেন ইরফান।

উদয়পুর থেকে গোটা টিমের সঙ্গে ছবিও শেয়ার করেন দীনেশ। সে ছবিতে ঝলক মিলেছিল ইরফানেরও। তবে এ বার অভিনেতা নিজেই টুইট করেছেন তাঁর আগামী ছবির একটি দৃশ্য। যেখানে দেখা গিয়েছে, নিজের সাধের দোকানের সামনে দাঁড়িয়ে রয়েছেন ইরফান থুড়ি চম্পকজি। পরনে একেবারেই সাধারণ পোশাক। কিন্তু মুখে লেগে রয়েছে হাসি। ছবি শেয়ার করে অভিনেতা লিখেছেন, “আবার সবাইকে এন্টারটেন করতে আসছি।“ এর পাশাপাশি অভিনেতা এ-ও জানিয়েছেন যে পর্দায় চম্পকজি-র গল্প তুলতে ধরতে দারুণ মজা হবে।

ইরফানের টুইটের পরেই দর্শকরা অনুমান করছেন, ‘হিন্দি মিডিয়াম’-এর মতোই আরও একটি রম-কম (রোম্যান্টিক কমেডি) নিয়ে হাজির হচ্ছেন অভিনেতা। আর একটা ছবির শ্যুটিং যখন শুরু হয়েছে, তখন ইরফানের সই করা বাকি প্রোজেক্টও ধীরে ধীরে শুরু হয়ে যাবে বলে আশা করছেন অভিনেতার অনুরাগীরা।

সুজিত সরকারের সঙ্গে উধম সিংয়ের বায়োপিক এবং বিশাল ভরদ্বাজের পরিচালনায় দীপিকা পাড়ুকোনের বিপরীতে একটি ছবি ক্যানসার ধরা পড়ার আগেই সাইন করেছিলেন ইরফান। কিন্তু আচমকাই অসুস্থ হয়ে পড়ায় পিছিয়ে যায় দু’টি ছবির শ্যুটিং। তবে ‘হিন্দি মিডিয়াম’ ছবির শ্যুটিং যখন একবার শুরু হয়েই গিয়েছে, তখন বাকি ছবির শ্যুটিংয়ের কাজও তরতর করেই এগোবে বলে আশা করছে বলিউড।

দেশে ফেরার পর প্রথমবার যখন বিমানবন্দরে দেখা গিয়েছিল ইরফানকে তখন মাফলারে মুখ ঢেকেছিলেন অভিনেতা। পাপারাৎজিকে অনুরোধ করেছিলেন যেন ছবি তোলা না হয়। তবে সম্প্রতি আরও একবার মুম্বই বিমানবন্দরে দেখা যায় ইরফানকে। এ বার অবশ্য পাপারাৎজিকে নিরাশ করেননি অভিনেতা। বরং হাসিমুখেই পোজ দেন। এমনকী ফ্যানদের জন্য একটি ইমোশনাল নোটও লিখেছিলেন ইরফান। সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে লিখেছিলেন, “আপনাদের ভালোবাসার জোরেই জীবনযুদ্ধের কঠিন লড়াই জিততে পেরেছি।“

Comments are closed.