সোমবার, আগস্ট ২৬

‘ধর্ম আর বিশ্বাসের মাঝে এসেছে ফিল্মি কেরিয়ার’, অভিনয় ছাড়তে চলেছেন জায়রা ওয়াসিম, বিস্ফোরক সিদ্ধান্ত অভিনেত্রীর

দ্য ওয়াল ব্যুরো: আর অভিনয় করবেন না জায়রা ওয়াসিম। সোশ্যাল সাইটে এ কথা জানিয়েছেন অভিনেত্রী নিজেই।

বয়স মাত্র ১৮। কিন্তু এই বয়সেই বলিউডে নিজের জায়গা পাকা করে ফেলেছিলেন কাশ্মীরি কন্যা জায়রা ওয়াসিম। কিন্তু আচমকাই নিজের বলিউডি কেরিয়ারের ইতি টানতে চলেছেন জায়রা। ইনস্টাগ্রামে দীর্ঘ একটি পোস্ট করে সে কথা জানিয়েছেন জায়রা নিজেই। যে সময় তাঁর কেরিয়ারের হাই টাইম, ঠিক তখনই নিজেকে গুটিয়ে নিতে চাইছেন এই অভিনেত্রী। জায়রার এ হেন সিদ্ধান্তে হতবাক গোটা বলিউড।

কিন্তু কেন?

জায়রা জানিয়েছেন, তাঁর বিশ্বাস এবং ধর্মের মাঝে বারবার এসে যাচ্ছে ফিল্মি এক্রিয়ার। সেই জন্যেই বি-টাউন থেকে বিদায় নোট চান তিনি। ডেবিউ ফিল্মেই নজর কেড়েছিলেন জায়রা ওয়াসিম। আমির খানের পাশাপাশি দাপিয়ে অভিনয় করেছিলেন। এতটুকুর জন্যও মনে হয়নি যে এটা তাঁর প্রথম ছবি ছিল। ২০১৬ সালে ‘দঙ্গল’ ছবিতে অভিনয়ের পর দর্শকদের মন জয় করতে বেশি সময় লাগেনি এই তরুণ অভিনেত্রীর। পেয়েছিলেন, অসংখ্য অ্যাওয়ার্ড। ডেবিউ ফিল্মের পর থেকেই তাঁর কেরিয়ারের গ্রাফ ক্রমশ উপরের দিকেই উঠছিল। তবে আচমকাই এত বড় সিদ্ধান্ত নিয়েছেন জায়রা।

কী লিখেছেন অভিনেত্রী?

নিজের ইনস্টা পোস্টে জায়রা লিখেছেন, “পাঁচ বছর আগে যে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম তা আমার জীবন বদলে দিয়েছিল। বলিউডে আসার পরেই বিশাল জনপ্রিয়তার দরজা খুলে গিয়েছিল আমার জন্য। সাধারণ মানুষ আমায় নিয়ে আলোচনা করতেন। অনেকেই আমার রোল মডেল ভাবতেন।” তবে জায়রার কথায়, “এসবের কোনওটাই আমি করতে চাইনি। এরকম হতেও চাইনি। জীবনে সাফল্য কিংবা ব্যর্থতা কী সেটা এখন সবে বুঝতে শুরু করেছি।” জায়রা লিখেছেন, বলিউড তাঁকে অনেক সম্মান, ভালোবাসা, জনপ্রিয়তা দিয়েছে। তিনি খুব সুন্দর ভাবেই এখানে ফিট করে যেতে পারতেন। কাজ করতে পারতেন। কিন্তু তিনি বুঝতে পেরেছেন এই জগত তাঁর জন্য নয়। জায়রার কথায়, “আমার অবচেতনেই নিজের বিশ্বাস (ইমান) থেকে আমি সরে এসেছি। ধর্মের সঙ্গে আমার সম্পর্ক ক্রমশ বিপন্ন হয়েছে। বারবার মাঝে এসেছে আমারা ফিল্মি কেরিয়ার।”

তবে জায়রা জানিয়েছেন, এই বাধা-বিপত্তির সঙ্গে মানসিক ভাবে লড়াই শুরু করেছিলেন। নিজেকে বুঝিয়েছিলেন যে কাজ করবেন বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সেটাই সঠিক। কিন্তু ক্রমশ নিজের উপর সমস্ত আস্থা হারিয়ে ফেলছিলেন তিনি। এরপর নিজের ইনস্টা পোস্টে কোরান পাঠ এবং আল্লাহ-র প্রতি তাঁর অগাধ বিশ্বাসের কথাও লিখেছেন। আর সব শেষে সকলের উদ্দেশে লিখেছেন, “জীবনে সাফল্য, খ্যাতি, সম্পদ যে পর্যায়ে পৌঁছক না কেন, তাতে যেন কখনও শান্তি এবং নিজের বিশ্বাস হারিয়ে না যায়।”

২০১৮ সালেও একবার চরম মানসিক অবসাদের শিকার হয়েছিলেন জায়রা। সে সময় পোস্ট করে জায়রা লিখেছিলেন, মানসিক অবসাদে রাতের পর রাত ঘুম হয় না তাঁর। নিয়মিত ওষুধ খেতে হতো তাঁকে। এমনকী কয়েকবার আত্মহত্যার চেষ্টাও করেছিলেন জায়রা। কিন্তু কেন এই অবসাদ হয়েছিল তা তিনি জানাননি। সে সময় জায়রার পোস্ট ঘিরে শুরু হয়েছিল বিতর্ক। ফের একবার বিস্ফোরক পোস্ট করলেন জায়রা ওয়াসিম। নিলেন এক বিতর্কিত সিদ্ধান্তও।

Comments are closed.