রবিবার, জুন ১৬

ভাইজানের ভক্ত তো অনেক, তবে নিন্দুকও আছেন প্রচুর, তাও আবার খোদ বি-টাউনেই!

দ্য ওয়াল ব্যুরো: এ সমাজে এমন কিছু লোক আছেন যাঁদের ক্ষেত্রে একটা চলতি প্রবাদ ভীষণ ভাবে প্রযোজ্য। তাঁদের আপনি পছন্দ করতে পারেন। আবার অপছন্দও করতে পারেন। কিন্তু কোনওভাবেই এড়িয়ে যেতে পারবেন না।

ঠিক এমনই এক অভিনেতা রয়েছেন বিটাউনেও। তিনি সলমন খান। ভক্তদের আদরের ভাইজান। একসময় অবশ্য বলিউডের দুই খান মনে শাহরুখ এবং সলমনের ভক্তদের মধ্যে ছিল চরম বিবাদ। ঝগড়ার পারদ চড়ে বেশ কয়েকবার হাতাহাতিও হয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় দুই তারকার ফ্যানদের বাকযুদ্ধ তো লেগেই থাকে। তবে হালফিলে শাহরুখ-সলমনকে বেশ কয়েকবার একসঙ্গেই মঞ্চে দেখা গিয়েছে। শোনা যায় এখন তাঁরা দারুণ বন্ধু। নিজেদেরকে একে অন্যের ফ্যামিলি ফ্রেন্ডও বলেন আজকাল। তাই দুই তারকার ফ্যানদের ঝামেলাও আগের থেকে অনেক কমেছে। তবুও একজনের সিনেমা রিলিজ হলে আজও আর এক পক্ষের ভক্তরা খুনসুটিতে মত্ত হন।

কিন্তু এ তো গেল ফ্যানদের কথা। কিন্তু বলিউডে এমন অনেক নায়িকা আছেন যাঁরা ভাইজনকে বেশ অপছন্দই করেন। সল্লু মিঞার ভক্তদের মতো তাঁরা মোটেও মনে করেন না যে মিস্টার খানের সব সিনেমাই ব্লকবাস্টার হিট। কিন্তু ভাইজনকে অপছন্দ করার তালিকায় কোন কোন অভিনেত্রী রয়েছেন? এক নজরে দেখে নেওয়া যাক তাঁদের।

লোকে বলে সল্লু মিঞাকে অপছন্দ করার তালিকায় শীর্ষে রয়েছেন ঐশ্বর্যা রাই। একসময় অবশ্য তাঁদের সম্পর্কে ছিল মাখোমাখো প্রেম। রোম্যান্টিক জুটি হিসেবে স্ক্রিন শেয়ার করে দর্শকদের মন জয়ও করেছিলেন তাঁরা। তবে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ফিকে হয় প্রেম। ভালোবাসা কমে সম্পর্কে বাড়ে তিক্ততা। দু’পক্ষই একে অন্যের বিরুদ্ধে নানান অভিযোগ আনেন। প্রকাশ্যেই অনেক কাদা ছোড়াছুড়ির পর ভেঙে যায় সম্পর্ক। তাই এত কিছুর পর ঐশ্বর্যা রায় সলমনকে অপছন্দ করলে তাতে বোধহয় অবাক হবেন না কেউই।

বলিউডের অন্যতম স্ট্রেট ফরোয়ার্ড অভিনেত্রী বোধহয় কঙ্গনা রানাওয়াত। মুখের উপর সপাট জবাব দিতে তাঁর জুড়ি মেলা ভার। একার দায়িত্বে কঙ্গনা বক্স অফিসে হিট করাতে পারেন যে কোনও ছবি। প্রয়োজন হয় না হ্যান্ডসাম হিরোর। পর্দায় কঙ্গনা একই একশো। আর নিজে স্বয়ংসম্পূর্ণ হওয়ায় কঙ্গনা মনে করেন যে ভাইজানের সিনেমা মোটেও তত হিট হয় না যতটা প্রচার করা হয়। এমনকি অভিনেত্রী ও মনে করেন যে সলমনের সিনেমায় নায়িকাদের কোনও গুরুত্বই দেওয়া হয় না। বরং তাঁরা কেবল পার্শ্বচরিত্র হিসেবে সিনেমায় থেকে যান। কঙ্গনার মতে, সলমন এবং তাঁর ভক্তরা অভিনেতার গুণগানে এতই মুগ্ধ থাকেন যে অভিনেত্রীদের অসামান্য অভিনয়ও অনেকসময় আড়ালেই থেকে যায়। যোগ্য সম্মানটুকুও পান না তাঁরা।

তবে এই দুই নায়িকা ছাড়াও সোশ্যাল মিডিয়ায় সলমন খানকে ট্রোল করতে একটুও পিছপা হন না সুফি গায়িকা সোনা মহাপাত্র। হামেশাই নানান টুইট করে ভাইজানকে ট্রোল করেন তিনি। তবে সল্লু মিঞা অবশ্য এ ব্যাপারে একেবারেই মাথা ঘামান না। হাবেভাবেই বুঝিয়ে দেন নিন্দুকদের ট্রোলকে মোটেও পাত্তা দেন না তিনি।

Comments are closed.