সোমবার, আগস্ট ২৬

‘আমাদের কেউ দোষ করলে শাস্তি দিন, নইলে লজ্জায় পড়ছি,’ মমতাকে চিঠি মুসলিমদের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: সাম্প্রদায়িকতার রঙ নয়, বরং অপরাধ ও অপরাধীর সাজা হোক আইনি পথেই, দোষীদের কঠোর শাস্তিই কাম্য, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি দিয়ে এমনটাই জানাল কলকাতার মুসলিম নাগরিকদের একাংশ।

বুধবার কলকাতাবাসী মুসলিম নাগরিকদের একাংশের তরফে মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি দিয়ে জানানো হয়, এনআরএস হাসপাতালে জুনিয়র ডাক্তারদের উপর হামলা এবং মাঝরাতে শহরের পথে এক মডেল-অভিনেত্রীর হেনস্থার ঘটনা- দু’টি ক্ষেত্রেই অভিযুক্তেরা ঘটনাচক্রে মুসলিম। কাজেই ধর্মের রঙ নিয়ে সামাজিক স্তরে হোক রাজনৈতিক পরিসরে, ইতিমধ্যেই জলঘোলা শুরু হয়ে গেছে। এবং সাম্প্রতিক এই দুই ঘটনার প্রেক্ষিতে যছেষ্টই লজ্জায় পড়তে হয়েছে শহরের মুসলিম সম্প্রদায়কে।

চিঠির বয়ানে মুখ্যমন্ত্রীকে লেখা হয়েছে, “কলকাতা শহরে ঘটে যাওয়া সাম্প্রতিক দুই ঘটনায় ‘দোষীরা’ মুসলিম, তাতে আমরা ব্যথিত ও লজ্জিত। অপরাধীদের আইনি সাজা দিন। সংবিধানে অপরাধের কোনও ধর্ম হয় না। কাজেই শুধুমাত্র এই দুটি ঘটনা নয়, যে কোনও ঘটনাতেই যদি মুসলিমরা জড়িত থাকেন তাঁদের উপযুক্ত সাজা প্রাপ্য।” চিঠিতে আরও লেখা হয়, “ইদানীংকালে মানুষ যা ভাবছে তেমনটা যেন কখনওই না হয়, অর্থাৎ মুসলিম বলে কেউ ছাড় পেয়ে না যান। তাতে সকলের কাছেই এই বার্তা যাবে একটি গোষ্ঠীকে আড়াল করার চেষ্টা হচ্ছে না।”

 

নীলরতন সরকার মেডিক্যাল কলেজে ৮৫ বছরের এক বৃদ্ধের মৃত্যুর পরেই জুনিয়র ডাক্তারদের উপর হামলার ঘটনা ঘটে। মৃত ব্যক্তি ছিলেন একজন মুসলিম। এর পরেই অভিযোগ ওঠে কয়েক ট্রাক গুন্ডা নিয়ে এসে এই সম্প্রদায়েরই মানুষ ডাক্তারদের উপর চড়াও হয়েছিলেন। ঘটনাকে ঘিরে স্বাস্থ্য সংকট চরমে ওঠে, রাজ্য স্তর থেকে যা পৌঁছে যায় জাতীয় স্তরে। গত সোমবার মাঝরাতে এক্সাইডের কাছে প্রাক্তন মিস ইন্ডিয়া ইউনিভার্স উষসী সেনগুপ্তকে হেনস্থা করে একদল বাইক আরোহী। যাদবপুর এলাকার বাসিন্দা ওই যুবকরা সকলেই ছিল মুসলিম সম্প্রদায়ের । সাত জনকে গ্রেফতার করে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। এই দুই ঘটনার পরই অভিযোগ ওঠে,  নির্দিষ্ট সাম্প্রদায়িকতার মানুষজনকে আড়াল করছে রাজ্য সরকার।

চিঠিটিতে ৫০ জন নাগরিকের নাম রয়েছে। তাদের সকলের তরফেই জানানো হয়েছে, আইনি পদক্ষেপ সকলের জন্যই কড়া হলে মুসলিম যুব সম্প্রদায়ের কাছেও একটা বার্তা যাবে। লিঙ্গসংবেদনশীলতা ও আইনি সচেতনতা বাড়ানোর আর্জিও চিঠিতে জানানো হয়েছে মুখ্যমন্ত্রীকে।

Comments are closed.