শুক্রবার, ডিসেম্বর ১৩
TheWall
TheWall

সুড়ঙ্গে বাগদাদির উপর ঝাঁপাতে গিয়েছিল, একে দেখেই কেঁদে ফেলেছিল বাচ্চারা, আইএস নিশানায় এই সেনা-কুকুর

দ্য ওয়াল ব্যুরো: আইএস প্রধান আবু বকর আল বাগদাদি নিকেশের আগা থেকে গোড়া মার্কিন সেনার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে কাজ করেছে এই সেনা-কুকুর। অন্ধকার সর্পিল সুড়ঙ্গে মানুষের গন্ধ পেয়ে সেনাদের পথ নির্দেশ দিয়েছিল বেলজিয়ান ম্যালিনয়েস জাতের এই জাঁদরেল কুকুর। বাগদাদিকে ধরতে সুড়ঙ্গের ভিতর একা ছুটে গিয়েছিল এই। একে দেখেই চিৎকার করে উঠেছিল আইএস প্রধান। কঁকিয়ে কেঁদে উঠেছিল তার তিন সন্তান। মার্কিন সেনা জানিয়েছে, বিস্ফোরণে জখম হলেও এর তেজ বিন্দুমাত্র কমেনি। এই সেনা-কুকুরকেই এখন টার্গেট করতে চাইছে আইএস জঙ্গিরা।

দক্ষ, সাহসী এই সেনা-কুকুরের নাম, পরিচয় সামনে আনেনি মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রক। জানানো হয়েছে, এই কুকুরের চিকিৎসা চলছে। নিরাপত্তাও বহুগুণ বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। মার্কিন সেনার অনেক অভিযানেই সাহসের পরিচয় দিয়েছে এই সেনা-কুকুর। বাগদাদি নিকেশ অভিযানে এর কৃতিত্ব কোনও অংশেই কম নয়। প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প টুইট করে বলেছেন, “আমরা এই সাহসী সেনা-কুকুরের ছবি সামনে আনছি, তবে এর পরিচয় গোপনই থাক। আইএস প্রধানকে ধরতে এবং তার হত্যা অভিযানে সবচেয়ে বেশি কৃতিত্ব এই সেনা-কুকুরেরই।”

মার্কিন ডেল্টা ফোর্সের জয়েন্ট চিফ জেনারেল মার্ক মিলে জানিয়েছেন, অসাধারণ দক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন এই বেলজিয়ান সেনা-কুকুর। চিনুক এবং ব্ল্যাক হক হেলিকপ্টারে ডেল্টা ফোর্স-সহ এলিট বাহিনী যখন উত্তর ইরাক থেকে ধীরে ধীরে এগিয়ে যাচ্ছিল সিরিয়ার ইদলিবের বারিশার দিকে, সবচেয়ে বেশি চনমনে ও উত্তেজিত দেখা গিয়েছিল এই সেনা-কুকুরকে। মার্কিন বাহিনী দু’ভাগে ভাগ হয়ে গিয়ে অভিযান চালায়। বায়ুসেনার কপ্টার যখন ক্রমাগত গোলা বর্ষণ করে চলেছিল আইএস ঘাঁটিতে, অপর দল তখন ঢুকে পড়েছিল বাগদাদির ডেরায়। এই কুকুরই সবচেয়ে আগে ছুটে গিয়ে বাগদাদির খোঁজ দেয়। সেই মতো তার ঘরে ঢুকে পড়ে মার্কিন বাহিনী। বাগদাদিকে আড়াল করে দাঁড়ালে গুলিতে উড়িয়ে দেওয়া হয় তার দুই স্ত্রীকে।

আরও পড়ুন: কে এই ‘আবু বকর আল-বাগদাদি’! যাঁর মাথার দাম ছিল আড়াই কোটি মার্কিন ডলার

বাগদাদির আস্তানার একের পর দরজা বিস্ফোরণ ঘটিয়ে উড়িয়ে দেন মার্কিন বাহিনীর সদস্যরা। তাতেই মারা পড়ে ওই ঘাঁটিতে থাকা অধিকাংশ আইএস জঙ্গি ও বাগদাদির দেহরক্ষীরা। বেগতিক বুঝে তিন সন্তানকে টেনে হিঁচড়ে নিযে ওই কম্পাউন্ডেরই একটি অন্ধকার সুড়ঙ্গে ঢুকে পড়ে বাগদাদি। পিছু নেয় এই কুকুর। সুড়ঙ্গের অন্যমুখ বন্ধ করে দেয় মার্কিন বাহিনী। কোণঠাসা বাগদাদির দিকে তেড়ে যায় এই সেনা-কুকুর। ভয় পেয়ে চিৎকার করে ওঠে আইএস প্রধান। কেঁদে ওঠে তার বাচ্চারা। পরনের আত্মঘাতী জ্যাকেট দিয়ে নিজেকে উড়িয়ে দেওয়ার আগে পর্যন্ত আইএস প্রধানকে এক চুল নজরের আড়াল করেনি এই জাঁদরেল সেনা-কুকুর।

আরও পড়ুন: অপারেশন বাগদাদি: বাচ্চাদের কান্না, কুকুরের চিৎকার, তারপরেই বিস্ফোরণ, উড়ে গেলেন আইএস প্রধান

আরও পড়ুন: সলিল সমাধি আল-বাগদাদির, লাদেনের মতোই সমুদ্রের জলে দেহ ফেলল মার্কিন সেনা

জেনারেল মার্ক মিলে জানিয়েছেন, আইএস জঙ্গিদের নিশানায় রয়েছে এই কুকুর। মার্কিন ওয়ার ডগ অ্যাসোসিয়েশনের বাকি বেলজিয়ান ম্যালিনয়েসদের মধ্যে এই কুকুরই সেরা। সবরকম ভাবে নিরাপত্তা দেওয়া হচ্ছে তাকে। বিস্ফোরণে তার পা সামান্য জখম।

২০১১ সালে আল কায়দা প্রধান ওসামা বিন লাদেনকে নিকেশ করার সময় এমনই এক বেলজিয়ান ম্যালিনয়েসকে কাজে লাগিয়েছিল মার্কিন নেভি সিল। সেই কুকুরের নাম ছিল কায়রো। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প জানিয়েছেন, সিরিয়া অভিযানে সবচেয়ে বেশি দক্ষতার পরিচয় দেওয়ার জন্য এই সেনা-কুকুরকে পুরস্কার দেওয়া হবে।

 

আরও পড়ুন:

বাগদাদির অন্তর্বাস চুরি করেছিলেন কুর্দের গোয়েন্দারা, রাতের আঁধারে আইএস ডেরায় চলেছিল অভিযান

Comments are closed.