রবিবার, জুন ১৬

হোস্টেল ছাড়তে হলে আমরা আশ্রয় দেব, মুখ্যমন্ত্রীর হুঁশিয়ারির পরে খোলা আশ্বাস ববি-কন্যার

দ্য ওয়াল ব্যুরো: তৃণমূল কংগ্রেসে অস্বস্তি বেড়েই চলেছে। জুনিয়র ডাক্তারদের বিক্ষোভে সামিল পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের মেয়ে শাব্বা হাকিম নতুন বোমা ফাটালেন। ফিরহাদ কন্যা শাব্বা নিজেও পেশায় চিকিত্সক। ফেসবুকে একটি পোস্ট করে, প্রয়োজন বুঝলে জুনিয়র চিকিৎসকদের যাদবপুরের কেপিসি হাসপাতালে আশ্রয় দেওয়ার খোলা আশ্বাস দিলেন শাব্বা হাকিম।

বৃহস্পতিবার মুখ্যমন্ত্রী এসএসকেম-এ এসে হুঁশিয়ারি দেন, আন্দোলন না তুললে হোস্টেল ছাড়তে হবে জুনিয়র চিকিৎসকদের। এর পরেই ফেসবুকে একটি পোস্ট করে শব্বা হাকিম লিখেছেন, এই পোস্টটি ‘ডক্টরস বাই কজ’-এর তরফে। তাতে লেখা, “যদি তোমরা কেউ নিজেকে নিরাপদ নয় বোঝো, তাহলে কেপিসি-তে চলে এস।”

উল্লেখ্য, পেশায় ডাক্তার শাব্বা ফেসবুকে লিখেছেন, ‘‘এ রাজ্যের সরকারি ও অধিকাংশ বেসরকারি হাসপাতালে আউটডোর বয়কট করেছেন ডাক্তাররা। কিন্তু জরুরি বিভাগে আমরা কাজ চালিয়ে যাচ্ছি। মানবিকতার খাতিরেই আমরা অন্য পেশার মতো কাজ বন্ধ করতে পারি না। যদি বাস বা ট্যাক্সি ধর্মঘট হয়, তবে একজন ট্যাক্সি চালক-বাসচালকও আপনাকে পরিষেবা দেবেন না, সে পরিস্থিতি যাই হোক না কেন। যাঁরা বলছেন, ‘অন্য রোগীদের কী দোষ?’ তাঁরা দয়া করে সরকারকে জিজ্ঞেস করুন, সরকারি হাসপাতালে পুলিশ মোতায়েন থাকলেও তাঁরা কেন ডাক্তারদের নিরাপত্তা দিতে পারলেন না? দয়া করে জিজ্ঞেস করুন, যখন ২টি ট্রাকে করে গুন্ডারা এল, কেন সঙ্গে সঙ্গে বাড়তি ব্যবস্থা নেওয়া হল না? কেন হাসপাতাল চত্বরে এখনও গুন্ডারা ঘুরে বেড়াচ্ছে? শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলন করার অধিকার রয়েছে আমাদের। নিরাপদে কাজ করার অধিকার রয়েছে আমাদের’’। এরপরই আত্মসমালোচনার সুরে ফিরহাদ কন্যা লেখেন, ‘‘একজন তৃণমূল কংগ্রেস সমর্থক হিসেবে আমাদের নেতৃত্বের নীরবতা দেখে আমি খুবই লজ্জিত’’।

আরও পড়ুন

https://www.thewall.in/nephew-of-mamata-banerjee-dr-abesh-banerjee-supports-junior-doctors/

Comments are closed.