বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ১৯

কালো টেপ জড়ানো কন্টেনার থেকে বেরোলো ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির আমলের মুদ্রা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: রহস্যময় কৌটো খুলতেই বেরিয়ে এলো ধোঁয়া। তারপর তা থেকে বেরিয়ে এলো ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির প্রাচীন মুদ্রা।

গত ২৬ জুলাই রাতে নাকা চেকিং-এর সময় হলদিবাড়ি কালীবাড়ির কাছে সন্দেহজনক ভাবে ঘোরাফেরা করার জন্য একটি ইনোভা গাড়িতে তল্লাশি চালানো হয়।  বাংলাদেশের নিলফামারীর এলাকার বাসিন্দা সামিউল ইসলাম সায়মন নামে এক ব্যাক্তির কাছ থেকে এক রহস্যময় জার উদ্ধার করে হলদিবাড়ি থানার পুলিশ।

ঘটনায় ওই গাড়ির চালক রাজগঞ্জের বাসিন্দা রাজীব মহম্মদকেও পুলিশের গ্রেফতার করে। পুলিশের প্রাথমিক সন্দেহ ছিলো জারটিতে কোনো ক্ষতিকারক রাসায়নিক আছে। ধৃতদের নিয়ে যাওয়া হয় কোচবিহারে। আসেন গোয়েন্দারা। চলে দফায় দফায় জেরা। এরপর বিষয়টির সমাধানে ফরেনসিক বিশেষজ্ঞদের সাহায্য চায় পুলিশ।

বৃহস্পতিবার বিকেলে কলকাতা থেকে হলদিবাড়ি এসে পৌঁছন দুই ফরেন্সিক বিশেষজ্ঞ। নিরাপত্তা বেষ্টনীতে কন্টেনারের উপরে জড়িয়ে থাকা কালো সেলোটেপে মোড়ানো পাত্রটির মুখের ঢাকনা আলগা হতেই হঠাৎই আগুন জ্বলে ওঠে। আগুন নিভতেই আবার ফরেন্সিক বিশেষজ্ঞরা পাত্রটি খোলার কাজ শুরু করে।

খুলতেই দেখা যায় ভেতরে রাখা হয়েছে একটি দুষ্প্রাপ্য মুদ্রা। প্রাথমিক ভাবে বিশেষজ্ঞদের ধারণা, এটি ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির আমলের এক আনা মুদ্রা।

হলদিবাড়ির আইসি দেবাশিস বোস বলেন, উদ্ধার হওয়া বাক্স থেকে ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির একটি প্রাচীন মুদ্রা পাওয়া গেছে। সেটি আসল না নকল তা জানতে ফরেন্সিক ল্যাবে পাঠানো হবে।

Comments are closed.