শুক্রবার, জুন ২১

নতুন বছর ১৪২৬ কেমন কাটবে, জেনে নিন রাশি মিলিয়ে

শ্রীপর্ণা শাস্ত্রী

মেষ রাশি:  নতুন বছরে মেষ রাশিরা বেশ ভালো সময় কাটাতে চলেছে। নতুন যোগাযোগ, ভাগ্য উন্নতির বছর। পরিবারের সদস্যদের সাথে সুন্দর সময় কাটবে। ছোট-বড় ভ্রমণ, বিদেশের যোগ পুজোর পর আসছে। নতুন প্রেম, বিবাহের যোগ অগ্রহায়ন মাসের পর শুরু হচ্ছে। আমোদ-প্রমোদ, ভালো অর্থাগম / কর্মে উন্নতি এবং মাঝ মাসের পর নতুন চাকরির সম্ভাবনা আছে। পিতার স্বাস্থ্য নিয়ে চিন্তা বাড়বে। হনুমান চালিশা পাঠ ও রক্ত প্রবাল ধারণে উপকার হবে।

বৃষ রাশি:  জেদ পরিহার করুন ও কটু কথায় সংযত হন। অর্থভাগ্য এই বছর তুঙ্গে থাকবে। মাঝে মাঝে কথার কারণে সমস্যা বাড়বে ও প্রিয়জন বিচ্ছেদ বা মনোমালিন্য। বছরের শুরুতে কর্মজীবনে কিছু পরিশ্রম করতে হলেও শেষার্ধে উন্নতি, ভাগ্য ক্ষেত্রে পরিবর্তন আসবে। জৈষ্ঠ্য মাস থেকে ব্যবসা বাড়বে ও জীবন গঠন হয়ে যাবে। প্রেমের ক্ষেত্রে সাবধানতা ও উত্থান-পতন, সম্ভাব্য ক্ষেত্রে বিবাহ যোগ। আয়, ব্যবসা ও প্রফেশনের ক্ষেত্রে লাভজনক হবে। বিদ্যায় বাধা নেই। মহালক্ষ্মী মন্ত্র ও স্তুতি পাঠ। হিরে বা সাদা জারকন ধারণে শুভ ফল হবে।

মিথুন রাশি:  বছরের শুরু থেকেই আইনি জটিলতা ও এলোমেলো সমস্যা থাকবে। চাকরি ও ব্যবসার ক্ষেত্রে মানসিক চাপ থাকবে। হঠকারী সিদ্ধান্তে ক্ষতি হতে পারে। পৌষ মাসের আগে বিবাহ যোগ নেই। সন্তানদের কারণে দুশ্চিন্তা থাকবে। বিদ্যায় বাধা নেই। রাহুর প্রভাবে শরীর খারাপ, হঠাৎ আঘাত যোগ। দাম্পত্য জীবনে মানিয়ে চলুন অগ্রহায়ন মাস পর্যন্ত। ভাগ্যের বিশেষ পরিবর্তন নেই। সম্পত্তির ক্ষেত্র শুভ। নারায়ণ ও গণেশ পুজোয় কিছু শান্তি আসবে। পান্না রত্ন ধারণে জটিলতা কমবে।

কর্কট রাশি:  বিদ্যার্থীদের ক্ষেত্রে পরিশ্রম করতে হবে। উচ্চশিক্ষা ও বিদেশের যোগ শুভ। দাম্পত্য জীবন মাঘ মাসের পর ভালো ও শান্তিপূর্ণ হবে। সম্ভাব্য ক্ষেত্রে বিয়ের যোগ শুরু হলো। শরীরের নিম্নাঙ্গে আঘাত, সার্বিকভাবে প্রবল বাধা। তবে জীবনের কিছু নতুন যোগাযোগ পরিণতি পাবে। বন্ধু, পরিজন, পরিচিতরা বিভিন্ন সময়ে সাহায্য করবে। রাজনৈতিক ক্ষেত্রে যুক্ত ব্যক্তিরা সাহায্য পেতে পারে। ছোট, বড় বিদেশ ভ্রমণের যোগ রয়েছে। প্রেমের ক্ষেত্রে শুরুতে শুভ হলেও মাঘ মাসের পর পরিবর্তন ও হতাশা। শান্তিলাভার্থে দুর্গাদেবীর পুজো-পাঠ শুভ হবে। মানসিক উন্নতিতে মুক্ত ধারণে উপকার হবে।

সিংহ রাশি:  এই বছরটি হলো আত্মতুষ্টির বছর। কাজের যোগাযোগ, সাফল্য ও অর্থ আসবে। উপার্জন বৃদ্ধি ও হঠাৎ কোনও সংযোগে হাতে টাকা আসবে। পারিবারিক পরিবেশে আনন্দ থাকবে। প্রেম ও বিবাহের জন্য আদর্শ সময়। নতুন বাড়ি ও যানবাহন যোগ আছে। ভ্রমণ ও উন্নতমানের জীবনধারা, সম্মান, সবই সামনে অপেক্ষা করছে। ধর্মীয় জীবনে আগ্রহ, সৎ বন্ধু লাভ হবে। বিদ্যায় সফলতা আসবে। সুসন্তান যোগ চলছে। শিব পুজোয় আরও উন্নতি হবে। সম্ভব হলে চুনী ধারণ করলে আরও উন্নতি আসবে।

কন্যা রাশি:  কাজের ক্ষেত্রে চাকরির জীবনে উন্নতি, ভ্রমণ, পরিবর্তন যোগ। সব রকম চ্যালেঞ্জ নিতে হবে-সামনেই সাফল্য আছে। বছর শুরুতে প্রেমের ক্ষেত্রে হতাশা থাকলেও মধ্যভাগে সব বাধা কেটে গেলে নতুন সম্পর্ক শুরু। বিদ্যার্থীদের জন্য বছরটি শুভ। বেশি খুঁতখুঁতে মনোভাব ত্যাগ করুন। গৃহ পরিবর্তন, সংস্কার, ক্রয় সবই সম্ভব। সন্তানলাভের স্বপ্নপূরণ শুরু হচ্ছে বছরের মধ্যভাগ থেকে। সবাইকে সুখী কর, উন্নতি হবে। গণেশ ও নারায়ণ পুজোয় উন্নতি হবে। পান্না ধারণে লাভ হবে।

তুলা রাশি:  অনেকদিন বাধা, সমস্যার পর এই বছর আপনার ভালো হবে। ক্রোধের বশবর্তী হয়ে হঠকারী সিদ্ধান্ত নেবেন না। ধীরে সুস্থে সিদ্ধান্ত নেবেন। এই বছর অর্থভাগ্য উর্ধমুখী, হঠাৎ লাভ হতে পারে। তবে টাকা থাকলেও শান্তি, সুখ নেই, বাড়িতে সমস্যা, বিরোধ লেগে থাকবে। মধ্যভাগ থেকে আংশিক শুভ ও নতুন সম্পদ ও স্থান পরিবর্তন দ্বারা স্বস্তি হবে। বিদ্যার্থীদের বহু শ্রম ও চেষ্টা করতে হবে। প্রেমের ক্ষেত্রে গোলমাল ও নতুন সম্পর্কের ক্ষেত্রে খুব সচেতন থাকতে হবে। ভাগ্যের নতুন মোড়, বৈদেশিক যোগাযোগ দৃষ্ট হয়। মহালক্ষ্মী স্তুতি ও পুজোয় কিছু শান্তি আসবে। হিরে বা সাদা জারকন উপকার দেবে।

বৃশ্চিক রাশি:  শনির সাড়েসাতির শেষ পর্যায়। বহু তিক্ত অভিজ্ঞতা ও দুঃখের অবসান হতে চলেছে। নতুন চাকরির যোগাযোগ আসবে। পদোন্নতি হবে। বেতন বৃদ্ধি হওয়ার যোগ। ব্যবসায়ীরা কিছু যোগাযোগ পাবে। রাজনীতির ক্ষেত্রে শুভ। এই রাশির জাতকদের কর্মক্ষেত্রে ফোকাস বা লক্ষ্য স্থির করে, সময় নষ্ট না করে এগোতে হবে। ভালো সাফল্যের জন্য মনোসংযোগ ও পরিশ্রম উভয়ই প্রয়োজন। বিদ্যার্থীদের শুভ সময়। সন্তান লাভের জন্য আদর্শ। অতীতের কোনও চেষ্টার ফসল ফলাবে। সম্পর্কের ক্ষেত্রে সাবধান। কূটনীতি ও সতর্কতা দরকার। হনুমান চালিশা পাঠ করুন। প্রবাল ধারণে উপকার পাবেন।

ধনু রাশি: শনির সাড়েসাতির মধ্যে দিয়ে বছর শুরু। খুব বাধার মধ্যে চেষ্টা করে এগোতে হবে। বছরের মধ্যভাগ থেকে অনেকটা ভালো, চাকরি, ব্যবসা সব ক্ষেত্রে বিচক্ষণ হয়ে পা ফেলতে ও লগ্নি করতে হবে। স্ত্রীর/স্বামীর স্বাস্থ্য নিয়ে উদ্বেগ বাড়বে। প্রেম ও বিবাহের জন্য খুব ভালো সময় নয়। ভ্রমণ হবে। সম্পত্তি, বাড়ি, গাড়ি লাভ। শরীর নিয়ে সমস্যা থাকবে। শত্রুরা পীড়া দেবে। কার্তিক মাসের পর, ঈশ্বর চিন্তা করে আনন্দ পাবেন। মানসিক চিন্তা ও নানা কারণে উদ্বেগের বছর। কেরিয়ারের দিক দিয়ে উন্নতি হবে অগ্রহায়নের পর। শিব মন্ত্র জপ ও পুজোয় শান্তি লাভ। পীতাভ পোখরাজ ধারণে অনেকটা সাহায্য হবে।

মকর রাশি:  এই বছর আগের থেকে ভালো, তবে শরীর নিয়ে গোলযোগ থাকবে। বছরের শেষভাগ থেকে ভালো হবে। বিবাহযোগ্যদের সুযোগ এসেছে। শরীরের নিম্নভাগে আঘাত। শরীর নিয়ে সতর্ক থাকতে হবে। ব্যবসার ক্ষেত্রে নতুন যোগাযোগ ও উন্নতি হবে। কর্মপ্রার্থীদের বছরের শুরু থেকে মধ্যভাগ অবধি যোগ আছে। আর্থিক উন্নতি এই বছরের মধ্যভাগ থেকে শুরু হচ্ছে। বিদ্যা ক্ষেত্রে শুভ যোগ। বিদেশে উচ্চশিক্ষার সুযোগ আছে। এই বছর ছোট-বড় বিদেশ ভ্রমণের জন্য লক্ষনীয়। দক্ষিণাকালীর ধ্যান ও পুজো করণীয়। প্রয়োজনে নীলা ধারণে শুভ হবে।

কুম্ভ রাশি:  এই বছর শিক্ষার্থীদের সচেতন থাকতে হবে। রাহুর প্রভাবে বাধা হবে। তবে প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় সফল হবেন। সন্তানের কারণে দুশ্চিন্তা বাড়বে। প্রেমের ক্ষেত্রে বিশেষ আশা না করাই ভালো। মনঃকষ্ট বাড়বে। কর্মক্ষেত্রে কোনও বাধা নেই। আর্থিক উন্নতি হবার বছর। শনির সাড়েসাতি শুরু হবে বছরের মধ্যভাগে। সবদিকে সচেতন থাকতে হবে। বিশেষ করে শরীর নিয়ে। দাম্পত্য জীবনে কিছু সমস্যা আসবে। পরকীয়া প্রেমের সম্পর্কে সাবধান থাকুন। ভুল পদক্ষেপে জীবনের গতি রুদ্ধ হতে পারে। বিদেশ যাত্রা, শিক্ষা ও বিদেশে কর্মলাভের সুবর্ণ সুযোগ শুরু হবে। দক্ষিণাকালী দর্শন ও পুজো করুন। জীবন স্বচ্ছ হবে। নীলা ধারণে সুফল হবে।

মীন রাশি:  গৃহ, নির্মাণ, পরিবর্তনের প্রবল যোগ। তবে সুখ-শান্তির বড়ই অভাব দেখা দেবে। স্কুল শিক্ষার্থীদের মনোযোগের অভাব। অসৎ বন্ধুর কারণে বিদ্যা, সংসার সব ক্ষেত্রে সংকট তৈরি হবে। কর্মক্ষেত্র শুভ, পদোন্নতি হওয়ার ইঙ্গিত আছে। আর্থিক উন্নতি হবেই। আয় ও পদোন্নতির সময়। কর্মক্ষেত্রে গুপ্তশত্রুরা সমস্যা দেবে। মানসিক চাপ যুক্ত অবস্থা। মাতার দেহভাব শুভ যাবে না। ক্রোধ সংবরণ না করলে বিপদ। প্রেমের ক্ষেত্রে সংকট হলেও খুব অশুভ পরিণতি হবে না। ভ্রমণ, বিদেশে কর্ম, ব্যবসা করার যোগ আসবে। শিব পুজোয় সুফল হবে। পীতাভ পোখরাজ ধারণ অবশ্যই করা উচিত।

লেখক পরিচিতি: জ্যোতিষরত্ন, সামুদ্রিকরত্ন, জ্যোতিষ বিদ্যাবিভূষণ, জ্যোতিষ সম্রাজ্ঞী, জ্যোতিষ সরস্বতী উপাধি প্রাপ্ত। 

Comments are closed.