রবিবার, নভেম্বর ১৭

মেট্রোয় ফের বিপত্তি, লাইনে আগুনের ফুলকি, বন্ধ পরিষেবা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: কালীপুজোর পরের দিনই ফের বিভ্রাট মেট্রোয়। সোমবার সকালে রবীন্দ্রসদন স্টেশনে দমদমগামী লাইনে আগুনের ফুলকি দেখা যায়। সঙ্গে সঙ্গেই যাত্রীদের নামিয়ে আনা হয় মেট্রো থেকে। আচমকা পরিষেবা বন্ধ হয়ে যাওয়ায় দুর্ভোগে নিত্যযাত্রীরা। মেট্রো কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ তুলেছেন যাত্রীদের একাংশ। আপাতত আপ এবং ডাউন দুই লাইনেই বন্ধ রয়েছে ট্রেন চলাচল।

সোমবার বেলা সাড়ে বারোটা নাগাদ রবীন্দ্রসদন স্টেশনে আপ লাইনে আগুনে ফুলকি দেখা যায়। সে সময় লাইনে ছিল একটি এসি মেট্রো। আগুনের ফুলকি আর ধোঁয়া দেখা যাওয়ায় আতঙ্কিত হয়ে পড়েন যাত্রীরা। তখনই তাঁদের নামিয়ে আনা হয় মেট্রো থেকে। গতকাল মিটেছে কালীপুজো। আগামীকাল ভাইফোঁটা। আজও ভাইফোঁটা পালন করেন অনেকেই। ফলে উৎসবের মেজাজে মেট্রোয় সকাল থেকে ভিড় ছিল ভালোই। আচমকা এমন ঘটনা হওয়ায় বিশৃঙ্খলা শুরু হয় বিভিন্ন মেট্রো স্টেশনে। যাত্রীদের একাংশের অভিযোগ, একবার অ্যানাউন্স করে তাঁদের মেট্রোয় উঠতে বলা হচ্ছে। একবার নামতে বলা হচ্ছে।

জানা গিয়েছে, কেন এই আগুনের ফুলকি দেখা গেল তা খতিয়ে দেখছে মেট্রো কর্তৃপক্ষ। দ্রুত পরিষেবা চালু করার আশ্বাসও দিয়েছেন তাঁরা। তবে ঘনঘন এমন মেট্রো বিভ্রাটের জেরে বিরক্ত নিত্যযাত্রীরা। কেউ কেউ বলছেন, “অফিসের দিন হোক বা ছুটির দিন, আজকাল মেট্রোয় উঠতেই ভয় লাগে। এই বুঝি বিপদ হল।” কেউ বা বলছেন, “সময় বাঁচানোর জন্য আমরা মেট্রোয় উঠি। আজকাল এত ঝামেলার জন্য যা প্ল্যান করে বেরোনো হয় সবই ভেস্তে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে।” শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী রবীন্দ্রসদন স্টেশনে লাইন থেকে রেক সরানোর ব্যবস্থা করতেই ফের আগুনের ফুলকি দেখা যায়। দুপুর ১টা ৪৫মিনিট নাগাদ দ্বিতীয়বার আগুনের ফুলকি দেখা যায় রবীন্দ্রসদন স্টেশনে। পরিষেবা ঠিক হওয়ার আশায় সে সময় স্টেশনেই দাঁড়িয়ে ছিলেন অনেকে। পরপর দু’বার আগুনের ফুলকি এবং ধোঁয়া দেখে আতঙ্কে হুড়োহুড়ি পড়ে যায় যাত্রীদের মধ্যে।

ময়দান থেকে নোয়াপাড়া এবং রবীন্দ্র সরোবর থেকে কবি সুভাষ পর্যন্ত মেট্রো চলাচল শুরু হয়েছে। তবে বাকি অংশে কখন পরিষেবা স্বাভাবিক হবে সে ব্যাপারে নিশ্চিত করে কিছু জানায়নি মেট্রো কর্তৃপক্ষ।

পড়ুন ‘দ্য ওয়াল’ পুজো ম্যাগাজিন ২০১৯–এ প্রকাশিত গল্প

শয্যা উত্তোলন

Comments are closed.