মঙ্গলবার, অক্টোবর ১৫

ই-লার্নিং, ডিজিটাল মার্কেটিংয়ে সেরা, এ বার ‘পাইথন প্রজেক্ট’-এ নতুন দিশা ডঃ বিসি রায় গ্রুপের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ই-লার্নিং এবং ডিজিটাল মার্কেটিংয়ে সেরার মুকুট আগেই উঠেছিল মাথায়। ইনস্টিটিউট অব ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ার’স (আইইইই)-র সঙ্গে হাত মিলিয়ে নতুন করে শুরু হয়েছিল পথ চলা। প্রযুক্তির ক্ষেত্রে নতুন দিশা দেখাতে এ বার ‘পাইথন প্রজেক্ট’ শুরু হলো দুর্গাপুরের ডঃ বিসি রায় গ্রুপ অব ইনস্টিটিউশনসে। মেধাকে পুঁজি করে কর্মসংস্থানের দৌড়ে আরও এক ধাপ এগিয়ে গেল ডঃ বিসি রায় গ্রুপ।

মুম্বই আইআইটি-র তত্ত্বাবধানে হই হই করে তিন দিনের ওয়ার্কশপ হয়ে গেল ডঃ বিসি রায় গ্রুপে। গত ১-৩ মে তিন দিনের এই ওয়ার্কশপের মূল বিষয় ছিল পাইথন প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ। মুম্বই আইআইটি-র সঙ্গে হাত মিলিয়ে এই কর্মশালার দায়িত্বে ছিল FOSSEE এবং ইনস্টিটিউট অব ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ার’স (আইইইই)-র স্টুডেন্ট ব্রাঞ্চ। ছাত্র-শিক্ষকদের উদ্যোগে গোটা ওয়ার্কশপের আয়োজন করেছিল কলেজের অ্যাপ্লায়েড ইলেকট্রনিক্স অ্যান্ড ইনস্ট্রুমেনটেশন (AEIE) বিভাগ।

পাইথন প্রোগ্রামিংয়ের বেসিকস্ থেকে তার খুঁটিনাটি পড়ুয়াদের সামনে তুলে ধরেছিলেন অভিজ্ঞ অধ্যাপকরা। মূল বিষয় ছিল, Python scripting language, IPython, plotting, Arrays and Numpy Arrays। সেই সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে কুইজ এবং প্রশ্নোত্তর রাউন্ডের আয়োজনও করা হয়েছিল। পড়ুয়াদের নতুন সফটওয়্যারের সঙ্গে পরিচয় করিয়েছিলেন FOSSEE-র বিশেষজ্ঞেরা। হাতে-কলমে প্রশিক্ষণের পাশাপাশি অনলাইনে পরীক্ষাও দেয় ছাত্রছাত্রীরা। ৬০ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ভালো নম্বর পেয়ে শিক্ষকদের মন জয় করে ৩২ জন।

ডঃ বিসি রায় গ্রুপের অধ্যাপক ও কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সহযোগিতা করে এই ওয়ার্কশপের দায়িত্বে ছিলেন মুম্বই আইআইটি-র অধ্যাপক (ডঃ) প্রভু রামচন্দ্রন, প্রশ্নোত্তর রাউন্ডের দায়িত্বে ছিলেন FOSSEE-র কো-অর্ডিনেটর আকশেন ডোকে। তা ছাড়াও তিন দিনের ওই ওয়ার্কশপে মূল ভূমিকা পালন করেছিলেন, কলেজের এইআইই বিভাগের অধ্যাপক (ডঃ) অনির্বাণ বোস, আইইইই স্টুডেন্ট ব্রাঞ্চের কাউন্সিলর এবং কলেজের ইসিই বিভাগের অধ্যাপক (ডঃ) রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়, আইইইই-র চেয়ারম্যান ও সিএসই বিভাগের প্রধান অধ্যাপক (ডঃ) চন্দন কোনার, এইআইই বিভাগের প্রধান অধ্যাপক (ডঃ) কে এম হুসেন এবং অধ্যাপক (ডঃ) অলোক কাহালি। ডঃ বিসি রায় গ্রুপের ডিরেক্টর ডঃ পীযুষ পাল রায় ছাত্রছাত্রীদের উৎসাহ দেন। তাঁর অনুপ্রেরণায় আইইইই স্টুডেন্ট ব্রাঞ্চের সদস্য রজনীশ কুমার, রিতেশ কুমার, মনু কুমার ঝা এবং রিমা হাজরা-সহ অনেক ছাত্রছাত্রীই সক্রিয় ভাবে অংশগ্রহণ করেছিলেন এই ওয়ার্কশপে।

স্বাস্থ্য, শিক্ষা, কারিগরি বিদ্যায় বরাবরই সাফল্যের ছাপ রেখেছে ডঃ বিসি রায় গ্রুপ অব ইনস্টিটিউশনস। ইঞ্জিনিয়ারিং শাখা হোক বা ডঃ বিসি রায় অ্যাকাডেমি অব প্রফেসনাল কোর্সেস (এপিসি), ডঃ বিসি রায় ফার্মাসি কলেজের পাশাপাশি পলিটেকনিক কলেজ— ডঃ বিসি রায় গ্রুপের এই চারটি শাখাই নানা দিকে তাদের নজির তৈরি করেছে। কেমব্রিজ কলেজের মতো আইইইই এ বার বিসি রায় গ্রুপের সঙ্গে পথ চলা শুরু করেছে। গত ৫ এপ্রিল একটি বিশেষ সেমিনারের মাধ্যমে আইইইই-র স্টুডেন্ট ব্রাঞ্চ খোলা হয় বিসি রায় কলেজে। পাশাপাশি, ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের প্রসারেও এগিয়ে গেছে ডঃ বিসি রায় গ্রুপ। মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের ‘ন্যাশনাল প্রোগ্রাম অন টেকনোলজি এনহ্যান্সড লার্নিং’ (এনপিটিইএল) প্রকল্পে দুরন্ত ফল করে সম্প্রতি ‘এএএ’ র‍্যাঙ্কিংয়ে চলে এসেছে এই কলেজ।

আরও পড়ুন:

ই-লার্নিং, ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের পর ফের নতুন চমক, দুর্গাপুরে ডঃ বিসি রায় গ্রুপের হাত ধরল IEEE

Comments are closed.