মঙ্গলবার, জানুয়ারি ২৮
TheWall
TheWall

শ্রীলঙ্কা বিস্ফোরণ: নিহত আরও ২ ভারতীয়, জানাল ভারতীয় হাই কমিশন

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

দ্য ওয়াল ব্যুরো: কলম্বোর বিস্ফোরণে নিহত হয়েছেন আরও ২ ভারতীয়। রবিবারের ধারাবাহিক বিস্ফোরণে মোট ৮ জন ভারতীয়র মৃত্যুর খবর এখনও পর্যন্ত পাওয়া গিয়েছে। সোমবার সকালেই টুইট করে ৬ জন ভারতীয়র মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেন বিদেশ মন্ত্রী সুষমা স্বরাজ। শ্রীলঙ্কার ভারতীয় হাই কমিশনের তরফেও জানানো হয় এই খবর। এ দিন বিকেলেই ফের টুইট করে তারা জানায় আরও দু’জন ভারতীয় এই ভয়াবহ বিস্ফোরণে নিহত হয়েছেন। তাঁদের নাম ভেমুরাই তুলসিরাম এবং এস আর নাগরাজ।

নিহত ৮ ভারতীয়র মধ্যে রয়েছেন ২ জন জনতা দল সেকুলার (জেডিএস)-এর দুই কর্মীও। কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী কুমারস্বামী সোমবার সকালেই টুইট করে জানিয়েছেন, জেডিএস-এর ৭ সদস্যের একটি দল কিছুদিন আগেই কলম্বো গিয়েছিলেন। এই দলের ২ সদস্যই রবিবারের বিস্ফোরণে নিহত হয়েছেন। বাকি ৫ সদস্যের এখনও খোঁজ পাওয়া যায়নি বলেই জানিয়েছেন কুমারস্বামী। তিনি বলেন, “কলম্বোর ভারতীয় হাই কমিশনের সঙ্গে আমি নিয়মিত যোগাযোগ রাখছি।“

জেডিএস-এর ২ সদস্যের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ। টুইট করে তিনি লিখেছেন, “আমি গভীরভাবে শোকাহত। ওঁদের ব্যক্তিগত ভাবে চিনতাম। এই কঠিন সময়ে আমরা ওঁদের পরিবারের পাশে রয়েছি।“ সোমবার সকালে কলম্বোর ভারতীয় হাই কমিশনের তরফেও জানানো হয়েছে রবিবারের ধারাবাহিক বিস্ফোরণে জেডিএস-এর ২ কর্মী কে জি হনুমানথারাইয়াপ্পা এবং এম রঙ্গাপ্পা নিহত হয়েছেন। সুষমা স্বরাজ জানিয়েছেন, লক্ষ্মী, নারায়ণ চন্দ্রশেখর এবং রমেশ নামে আরও তিন ভারতীয়র মৃত্যু হয়েছে। অন্যদিকে কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়নও জানিয়েছেন, এই বিস্ফোরণে নিহত হয়েছেন ওই রাজ্যের এক মহিলা পি এস রাসিনা।

ইস্টার সানডে’র প্রার্থনা চলাকালীন রবিবার সকাল সাড়ে আটটা নাগাদ প্রথম বিস্ফোরণ কলম্বোর একটি গির্জায়। এরপর ৬ ঘণ্টার পরপর ৮ বার কেঁপে ওঠে কলম্বো। শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী নিহত হয়েছেন ২৯০ জন। আহতের সংখ্যা ৫০০ ছাড়িয়েছে। শ্রীলঙ্কা প্রশাসন জানিয়েছে, এই ঘটনায় হাত রয়েছে স্থানীয় ইসলামি জঙ্গি সংগঠন ন্যাশনাল তৌহিত জামাতের। অনুমান এই সংগঠনের পিছনে রয়েছে আন্তর্জাতিক জঙ্গি সংগঠনও। জানা গিয়েছেন আন্তর্জাতিক ইসলামি জঙ্গি সংগঠন আইসিস-এর শাখা সংগঠন হলো এই ন্যাশনাল তৌহিত জামাত (এনটিজে)। ইতিমধ্যেই ২৪ জন সন্দেহভাজনকে গ্রেফতার করেছে কলম্বো পুলিশ। দেশ জুড়ে জারি হয়েছে জরুরি অবস্থা। সোমবার রাত ১২টা থেকে মঙ্গলবার ভোর ৪টে পর্যন্ত কার্ফু জারির নির্দেশ দিয়েছেন শ্রীলঙ্কার রাষ্ট্রপতি মৈত্রীপালা সিরিসেনা।

Share.

Comments are closed.