সোমবার, ডিসেম্বর ১৬
TheWall
TheWall

দাউদের ডান হাত ইকবালের দুই শাগরেদকে মুম্বই থেকে পাকড়াও করল পুলিশ

দ্য ওয়াল ব্যুরো: আন্তর্জাতিক হাওয়ালা ও ড্রাগ পাচারের অভিযোগ আগেই ছিল। দাউদ ইব্রাহিমের ডান হাত ইকবাল মিরচির দুই শাগরেদকে বেআইনি লেনদেন, জুয়াচক্রের মতো একাধিক অভিযোগে পাকড়াও করল মুম্বই পুলিশ।

হারুন আলিম ইউসুফ ও রঞ্জিত সিং বিন্দ্রাকে শনিবার গ্রেফতার করেছে মুম্বই পুলিশের অপরাধ দমন শাখা। অভিযোগ নিজেদের নামে ভুয়ো কোম্পানি খুলে এরা হাওয়ালার মাধ্যমে টাকা পাচার করত। ইউসুফ ও বিন্দ্রার মাথা ইকবাল মিরচি আগেই মুম্বই থেকে পালিয়ে লন্ডনে আশ্রয় নিয়েছিল। গোয়েন্দা সূত্রে জানিয়েছে, ২০১৩ সালে সেখানেই তার মৃত্যু হয়।

ইডি জানিয়েছে, ১৯৮৬ সালে নিজেদের সংস্থা রকসাইড এন্টারপ্রাইজের মাধ্যমে স্যর মহম্মদ ইউসুফ ট্রাস্টের অধীনে তিনটি সম্পত্তির মালিকানা পায় মিরচি, ইউসুফ ও বিন্দ্রা। প্রায় সাড়ে ছ’লক্ষ টাকার লেনদেন হয়।মুম্বইয়ের ওরলিতে এই তিনজনের নামে থাকা  সি ভিউ, মরিয়ম লজ ও রাবিয়া ম্যানসন বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে।

তদন্তকারীরা জানিয়েছেন, যে কোনও বেআইনি লেনদেনে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিত ইউসুফ ও বিন্দ্রা। সানব্লিঙ্ক রিয়েল এসটেটের মাধ্যমে কোটি কোটি টাকার আর্থিক লেনদেন হত।

মাফিয়া ডন দাউদ ইব্রাহিমের আরেক ঘনিষ্ঠ এবং বিশ্বস্ত সহযোগী জাবির মোতিওয়ালা। টাকা পাচার, ব্ল্যাকমেইল, তোলাবাজি এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে হেরোইন পাচারের অভিযোগে গত বছর অগস্টে প্যাডিংটনের হিলটন হোটেল থেকে গ্রেফতার করা হয় তাকে। এই মুহূর্তে লন্ডনের ওয়েস্টমিনস্টার ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে জাবির মোতিওয়ালার শুনানি চলছে। সেখানে তাকে আমেরিকায় প্রত্যর্পণের দাবি জানিয়েছে সে দেশের গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই।

জঙ্গি সংগঠনের পাশাপাশি ব্যক্তিকেও সন্ত্রাসবাদী ঘোষণা করতে বেআইনি কার্যকলাপ প্রতিরোধ আইনে (ইউএপিএ) সংশোধনী এনেছে নরেন্দ্র মোদী সরকার। নতুন সেই বিলে ১৯৯৩ সালে মুম্বই বিস্ফোরণের মাথা দাউদ ইব্রাহিমকে ‘ইন্ডিভিজুয়্যাল টেররিস্ট’ হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। দীর্ঘ কুড়ি বছরের বেশি সময় ধরে ভারত দাবি করে আসছে, মুম্বই হামলার অন্যতম অভিযুক্ত দাউদ পাকিস্তানের করাচিতে রয়েছেন। কিন্তু সেই দাবি বারে বারেই খারিজ করে দিয়েছে পাকিস্তান। তবে ভারতের গোয়েন্দা সূত্রের দাবি, পাক প্রশাসনের হস্তক্ষেপে দাউদ বর্তমানে দুবাইতে থাকলেও থাকতে পারে। আবার ডেরা পাল্টে পাল্টে পাকিস্তানে থাকাটাও অসম্ভব কিছু নয়। কেন্দ্রের একটি শীর্ষ সূত্রের মতে, দাউদকে দেশে ফেরাতে সর্বাত্মক ভাবে চেষ্টা করে যাচ্ছেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল। মার্কিন প্রশাসনের পাশাপাশি পাকিস্তানের উপরে চাপ বাড়াতে সৌদি আরবের সঙ্গেও প্রত্যর্পণের প্রশ্নে আলোচনা চালাচ্ছেন তিনি।

পড়ুন, দ্য ওয়ালের পুজোসংখ্যার বিশেষ লেখা…

তাহু ফল, ঐশ-রোষ ও পিগমি সমাজ

Comments are closed.