শরীর, শরীর তোমার মন নেই সানি, উত্তর দিতে আসছে নতুন ওয়েবসিরিজ

0

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

শমীক ঘোষ: ‘ভারতবর্ষে এমন অনেক মানুষ আছেন, যাঁরা মনে করেন, একজন পর্নস্টার আর একজন রাস্তায় দাঁড়ানো দেহকর্মীর মধ্যে কোনও তফাৎ নেই।’

ইন্টারভিউয়ারের এই প্রশ্নে একটু নড়ে বসেন ভদ্রমহিলা। তার পর মুখ ঘুরিয়ে উত্তর দেন, ‘একটা মিলের কথা আমি জানি। সেটা হল সাহস!’

এই ভদ্রমহিলার নাম সানি লিওনি। কানাডার মধ্যবিত্ত শিখ পরিবার থেকে দুনিয়া কাঁপানো পর্নস্টার। তারপর বলিউডের রুপোলি দুনিয়ার হিরোইন।

সাহস! এই একটা কথাতেই ভ্রূ কুঁচকে ফেলতে পারেন এই দেশের সর্বসাধারণ। কারণ রাস্তায় দাঁড়ানো দেহোপজীবী নারীকে তাঁরা সর্বসমক্ষে ঘৃণা করতেই স্বচ্ছন্দ। যেমন নিন্দা করেন পর্নস্টারকেও।

আবার এই দেশের এক বড় অংশই ঘরের আড়ালে, ল্যাপটপ বা মোবাইলের ব্যক্তিগত স্ক্রিনে নিয়মিত হাঁ করে গিলে চলেন নীল ছবি। গণধর্ষণের পর ভয়ংকর ভাবে খুন করা শিশুর নাম দিয়ে সার্চও দেন জনপ্রিয় অ্যাডাল্ট ভিডিওর সাইটে।

কেউ বলতে পারেন হিপোক্রেসি। কেউ আবার বলবেন বিকৃতি। কিন্তু কেন সাধারণ রক্ষণশীল মেয়েকে হাঁটতে হয় পর্নের অন্ধকার দুনিয়ায়? সেই প্রশ্ন করবে কে?

সেই প্রশ্নের উত্তর দিতেই সানি লিওনির জীবন নিয়ে জি ফাইভ নিয়ে আসছে নতুন এক ওয়েবসিরিজ – করণজিৎ কউর, দা আনটোল্ড স্টোরি অব সানি লিওনি।

বুধবারই ইউটিউবে প্রকাশিত হয়েছে এই ওয়েবসিরিজে প্রায় আড়াই মিনিটের ট্রেলর। আর সেই ট্রেলরের শুরু সানি লিওনির ওই ইন্টারভিউয়ের দৃশ্য দিয়েই।

২০১৬ সালে, সাংবাদিক ভূপেন্দ্র চৌবে এমনই আপত্তিকর সব প্রশ্ন করেন সানি লিওনিকে। আর বিন্দুমাত্র ভয় না পেয়ে অকপটে উত্তর দেন সানি। সেই ইন্টারভিউয়ের পর ঝড় ওঠে সোশ্যাল মিডিয়ায়। আমির খান থেকে শুরু করে বলিউডের অনেক তারকাই তখন গর্জে ওঠেন সানির স্বপক্ষে।

কানাডার রক্ষণশীল শিখ পরিবারের মেয়ে সানি। বাবার চাকরি হারানোর পর রোজগারের উপায় খুঁজতে সেই নেমে পড়ে পর্নের দুনিয়ায়। তার টাকাতেই ঘুরে দাঁড়ায় পরিবার।

সেই বাবাই একদিন জিজ্ঞাসা করে বসেন মেয়েকে, সে কি লটারি পেয়েছে? একদিন বাধ্য হয়ে বাবা-মায়ের সামনে নিজের জীবিকার কথা খুলে বলেন।

এই আড়াই মিনিটেই উঠে আসে অস্বস্তিকর সব প্রসঙ্গ। পায়ের লোম নিয়ে ক্লাসমেটদের টিটকিরি থেকে, শরীরী হয়ে ওঠা লাস্য ভঙ্গিমা। তাতে প্রথমদিককার অস্বস্তি থেকে অকুতোভয় হয়ে ওঠার গল্প।

বোঝা যায় আজকের বলিউডি তারকা, প্রাক্তন পর্নস্টার সানি লিওনিকে নিয়ে আম ভারতীয়র সব অস্বস্তিকে তছনছ করে দিতেই আসছে এই ওয়েবসিরিজ। শুরু হবে জুলাইয়ের ১৬ তারিখ থেকে।

অথবা হয়তো এইগুলো সবই গৌণ। এটা আসলে অসীম সাহসী এক সাধারণ মেয়ের সমাজের সব অনুশাসনকে তছনছ করে ঘুরে দাঁড়ানোর দুঃসাহসের গল্পই।

যাঁর ‘হুসনের কোণে কোণে’ নিয়ে প্রবল আগ্রহ ভারতীয় পুরুষের,সেই ‘সোনে দি বেবিডল’ সানি লিওনি বা করণজিৎ কউরের সপাট থাপ্পড় নারীকে শরীর সর্বস্ব ভাবা পুরুষতন্ত্রের মুখে।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

You might also like

Leave A Reply

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More