রবিবার, সেপ্টেম্বর ২২

রাজস্থানের চুরুতে পারদ ছুঁলো ৫০ ডিগ্রিতে, হাঁসফাঁস মহারাষ্ট্র-হরিয়ানায়, দহন জ্বালায় পুড়ছে দেশ

  • 43
  •  
  •  
    43
    Shares

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বৃষ্টির ছিটেফোঁটা নেই। তার উপর চড়া রোদ আর চূড়ান্ত আর্দ্রতা। তাপমাত্রার পারদ চড়ছে চড়চড়িয়ে, সেই সঙ্গে তাপপ্রবাহ। যার ছ্যাঁকায় নাস্তানাবুদ উত্তর, পশ্চিম ও মধ্য ভারত। বাংলায় ঝড়-বৃষ্টির পূর্বাভাস মিললেও, এখনই জোর বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই দেশের বেশিরভাগ রাজ্যেই। রাজস্থানের চুরুতে শনিবার তাপমাত্রার পারদ ছুঁয়েছে ৫০.৮ ডিগ্রিতে। আবহবিদরা বলছেন, দেশের সবচেয়ে উষ্ণতম দিন এটাই।

জয়পুরের আবহাওয়া দফতরের সূত্র অনুযায়ী,  মরু রাজ্যের বেশিরভাগ শহরের তাপমাত্রা এখন ৪৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের বেশি। তাপপ্রবাহের কারণে জারি হয়েছে ‘লাল সতর্কতা।’ শনিবার গঙ্গানগরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৪৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। দাবদাহে পিছিয়ে নেই বিকানের ও জয়সলমীরও।

বিকানেরে তাপমাত্রা ৪৭.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যেখানে জয়সলমীরে ৪৭.২ ডিগ্রি। পারদ চড়েছে কোটাতেই, সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

জোধপুরে গত কয়েকদিনে আর্দ্রতা বেড়েছে পাল্লা দিয়ে। চড়া রোদের দোসর তাপপ্রবাহ। তাপমাত্রা ৪৫.৬ ডিগ্রি। বারমেরে ৪৪.৫ ডিগ্রি এবং রাজধানী জয়পুরে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪৫.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আবহবিদরা জানাচ্ছেন, গত তিন দিন ধরেই রাজস্থান, পূর্ব মধ্যপ্রদেশে, পঞ্জাবের উপর দিয়ে শুষ্ক, গরম হাওয়া বয়ে চলেছে। তাপপ্রবাহের কারণে জ্বলেপুড়ে যাচ্ছে বিদর্ভ, উত্তর প্রদেশের পূর্ব দিকের কিছু শহর, হরিয়ানা, চণ্ডীগড় এবং দিল্লি। মধ্যপ্রদেশের খাজুরাহোর সর্বোচ্চ তাপমাত্রা এই সপ্তাহে মাপা হয়েছে ৪৭.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। গোয়ালিয়রের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা মাপা হয়েছে ৪৭.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। নওগাঁওয়ের তাপমাত্রা ৪৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশের সঙ্গে তাপমাত্রায় পাল্লা দিচ্ছে উত্তরাখণ্ড। গত কয়েক দিনে হিমাচল প্রদেশে তাপমাত্রার পারদ ছাড়িয়েছে ৪৯ ডিগ্রিতে। বিলাসপুরে ৪৩ ডিগ্রি, হামিরপুরে ৪০.৬ ডিগ্রি এবং মান্ডিতে ৪০.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। উত্তরপ্রদেশের আগ্রার তাপমাত্রা মাপা হয়েছে সর্বোচ্চ ৪৬.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। দাবদাহে পিছিয়ে নেই উপত্যকাও। ভূস্বর্গেও পারদ ছুঁয়েছে সর্বোচ্চ ৪৩.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসে।

Comments are closed.