রবিবার, সেপ্টেম্বর ২২

স্কুলের পোশাকে পথের মাঝেই দুরন্ত জিমন্যাস্টিক দুই ছাত্র-ছাত্রীর, প্রশংসায় মুখর স্বয়ং নাদিয়া কোমানিচি!

দ্য ওয়াল ব্যুরো: পরনে তাদের স্কুল ইউনিফর্ম। পিঠে বইয়ের ব্যাগ। গলায় ঝুলছে আই কার্ডও। দৃশ্যতই, স্কুল থেকে বাড়ি ফিরছে বা স্কুলে যাচ্ছে তারা। আচমকাই সামনের ছেলেটি খানিকটা দৌড়ে এসে লাফ দিয়ে শূন্যে এক পাক ঘুরে, নিখুঁত কায়দায় মাটিতে ফিরল। তাকে দেখেই সটান ভল্ট দিল পেছনের মেয়েটিও। একটি নয়, পরপর দু’টি। আচমকা দেখলে মনে হবে, কিছু বুঝে ওঠার আগেই সিনেমার কোনও দৃশ্য চলে গেল চোখের সামনে, এতই নিখুঁত তাদের জিমন্যাস্টিক।

সম্প্রতি এরকমই একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়, যে ভিডিও দেখে মুগ্ধ হয়েছেন স্বয়ং নাদিয়া কোমানিচি! রোমানিয়ার এই মহিলা জিমন্যাস্টকে জিমন্যাস্টিক দুনিয়ার সম্রাজ্ঞী বলা হতো এক সময়ে। পাঁচ বার অলিম্পিক্সে সোনা জিতেছেন তিনি। এখন অবসর নিয়েছেন, ৬০ বছর বয়স তাঁর। তিনি টুইটারে ভিডিওটি শেয়ার করে লিখেছেন, ‘দুর্দান্ত’! পরে কমেন্ট সেকশনে তিনি আরও প্রশংসা করেছেন এই ভিডিওটির।

দেখুন সেই ভিডিও।

নাদিয়া একা নন। ছেলে-মেয়ে দু’টির কীর্তি দেখে মুগ্ধ আপামর নেটিজেনরা। টুইটারে পাঁচ লাখেরও বেশি মানুষ দেখে ফেলেছেন এই ভিডিও। ভিডিওটি ঠিক কোথাকার, তা আপাত ভাবে বোঝা যায়নি। কিন্তু নেটিজেনদের কেউ কেউ বলছেন, এটা নাগাল্যান্ডে শ্যুট করা।

নাদিয়া কোমানিচির পোস্ট করা সেই ভিডিও আবার রিটুইট করেছেন কিরেণ রিজিজু। লিখেছেন, “নাদিয়ার মতো ব্যক্তিত্বের এই ভিডিও শেয়ার করা অত্যন্ত গর্বের। বাচ্চাগুলির পরিচয় জানতে খুব ইচ্ছে করছে আমার।”

আরও পড়ুন:

নেট-দুনিয়া মাতানো দুই ছোট্ট জিমন্যাস্ট খোদ কলকাতার সম্পদ! সামনে এল দারিদ্র ও প্রতিভার তীব্র লড়াই

Comments are closed.