ভারতীয় দলে সুযোগ পেয়ে হাওয়ায় ভাসছেন ‘রহস্য স্পিনার’ বরুণ

২,৭৪২

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

দ্য ওয়াল ব্যুরো : ভারতীয় ক্রিকেটে প্রথম তাঁর নাম শোনার পরে অনেকেই ভুল করেছিলেন তিনি বাঙালি বলে! বঙ্গজ ক্রিকেট সাংবাদিকরা চেন্নাইতে খোঁজ নিয়েছিলেন আদৌ তাঁরা প্রবাসী বাঙালি কিনা, সেই বিষয়েও।

তখন ক্রিকেট মহলে তাঁর নাম তেমন চাউর হয়নি। কেউ শোনেইনি তাঁর নাম, সেই বরুণ চক্রবর্তীর স্বপ্নের উত্থানে সবাই কমবেশি চমকিত। কেকেআরের এই রহস্য স্পিনার অস্ট্রেলিয়া সফরে ভারতীয় টোয়েন্টি ২০ দলে সুযোগ পেয়েছেন। গতবছর যাঁর আইপিএল পরিচিতি, সেই ক্রিকেটার মাত্র এক মরসুম আন্তর্জাতিক পর্যায়ের কোনও টুর্নামেন্টে খেলে ভারতীয় দলে ডাক পাচ্ছেন, এমন দৃষ্টান্ত খুব কম।

গতবছর বরুণকে পাঞ্জাব সই করিয়েছিল প্রায় ১০ কোটি টাকায়। তারপর চোটের কারণে এক ম্যাচ খেলে আর খেলতে পারেননি। চলতি আইপিএলে অবশ্য সেরা ফর্মে রয়েছেন, ১১টি ম্যাচ খেলে কেকেআরের হয়ে উইকেট পেয়েছেন ১৩টি। তার মধ্যে দিল্লি ক্যাপিটালসের বিপক্ষে তাঁর ২০ রানে ৫ উইকেট প্রাপ্তি সকলের আকর্ষণ কেড়ে নিয়েছে।

এমনকি ভারতীয় নির্বাচকরাও তাঁর প্রতি ভরসা রেখে বরুণকে অস্ট্রেলিয়াগামী বিমানে টিকিট কেটে দিয়েছেন। যে স্পিনার ক্রিকেট খেলাই শুরু করেছিল ১৭ বছর বয়স থেকে, শুরু করেছিলেন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান দিয়ে। তাই নয়, বরুণ হতে চেয়েছিলেন ইঞ্জিনিয়ার। পড়তেন চেন্নাইয়ের এসআরএম ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি-তে।

স্বপ্ন দেখতেন চেন্নাইয়ের বড় বড় ব্রিজগুলির নকশা করবেন তিনি। কিন্তু মনের গভীরে প্রেম ছিল ক্রিকেটের। অনেকটা শখ করেই চেন্নাইয়ের চতুর্থ ডিভিশন ক্লাব জুবিলি ক্রিকেট ক্লাবে প্রথম ক্রিকেট খেলা শুরু। উইকেটরক্ষার পাশে নেটে স্পিন বোলিংও করতেন। তারপর একটি ম্যাচে স্পিনার হিসেবে নজর কাড়ার পরে আর পিছনে ফিরে তাকাননি।

তামিলনাড়ু ক্রিকেট লিগে বরুণকে সই করায় সিয়াচেম মাদুরাই প্যান্থার্স ফ্রাঞ্চাইজি। সেই লিগে বরুণের স্পিনে বিপক্ষ দল ধরাশায়ী হওয়ার পরে সবাই তাঁকে নিয়ে কৌতূহল দেখায়। বরুণের বোলিংয়ে অনেক মশলা, তাঁর হাতে রয়েছে অফব্রেক, লেগব্রেক, গুগলি, ক্যারম বল, ফ্লিপার, ফ্লোটার,টপস্পিন। বরুণ সাতটি বল সাতরকমভাবে করতে পারেন, এটাই তাঁর বোলিংয়ের প্রধান বিশেষত্ব।

এতকিছুর পরেও ভারতীয় দলের দরজা এত দ্রুত খুলে যাবে তাঁর কাছে ২৯ বছরের তরুণ স্পিনার বুঝতে পারেননি। তাই বিসিসিআই টিভিকে মঙ্গলবার জানিয়েছেন, ‘‘আমি বুঝতে পারছি না আমার সঙ্গে ঠিক কী হচ্ছে! ভারতীয় দলে সুযোগ পাব, আমি কল্পনাই করতে পারিনি।’’

তিনি আরও বলেন, “পাঞ্জাব ম্যাচ শেষে জানতে পারি আমি জাতীয় দলে সুযোগ পেয়েছি। আমার কাছে এটা অবাস্তব বলে মনে হচ্ছে। কী ভাবে যে আমি ভাষায় প্রকাশ করব বুঝতে পারছি না। আইপিএলে ধারাবাহিকভাবে পারফরম্যান্স করে যাওয়াটাই প্রাথমিক লক্ষ্য ছিল। ভারতীয় দলে সুযোগ পাওয়ার পর আশা করি দেশের জার্সিতেও ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারব। নির্বাচকরা আমার ওপর আস্থা রাখায় তাঁদের ধন্যবাদ জানাই।’’

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

You might also like

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More