শনিবার, সেপ্টেম্বর ২১

‘ধর্মের জন্যই যত সমস্যা!’ কাশ্মীর নিয়ে ফের মধ্যস্থতার প্রস্তাব ট্রাম্পের, মোদী-ইমরানকে ফোন

দ্য ওয়াল ব্যুরো: কাশ্মীর নিয়ে ফের মুখ খুললেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আরও এক বার প্রস্তাব দিলেন ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে কাশ্মীর নিয়ে মধ্যস্থতার। তিনি জানান, কাশ্মীর-সমস্যা খুবই জটিল জায়গায় পৌঁছেছে। উপত্যকার পরিস্থিতিও ক্রমে তপ্ত হয়ে উঠছে। এই অবস্থায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে ফোনে কথা বলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। তার পরেই তিনি বলেন, “কাশ্মীর পরিস্থিতি শান্ত করার জন্য সাহায্য করতে পারলে আমি খুব খুশি হবো।”

ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে সম্পর্ক খারাপ হওয়ার কারণ হিসেবে ডোনাল্ড ট্রাম্প দায়ী করেন ধর্মকে। হোয়াইট হাউসে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, “কাশ্মীর খুবই জটিল একটি জায়গা। সেখানে হিন্দুরা রয়েছেন এবং মুসলিমরাও রয়েছেন। তাঁরা যে একসঙ্গে সেখানে ভাল রয়েছেন, তা বলা যায় না।”

মার্কিন প্রেসিডেন্ট আরও বলেন, তিনি যতটা সম্ভব মধ্যস্থতা করবেন। তিনি এ বিষয়ে ভারত ও পাকিস্তানের উদ্দেশে বলেন, “আপনারা এই দু’টি দেশ, এত বছর ধরে একসঙ্গে এবং শান্তিপূর্ণ ভাবে থাকতে পারছেন না। এটা খুবই উত্তপ্ত পরিস্থিতি তৈরি করছে। দু’দেশের মধ্যে বড় সমস্যা রয়েছে। এটা শেষ হওয়া জরুরি। আমি এ বিষয়ে যা সাহায্য করার করব।” তাঁর কথায়, “দেশ দু’টি এই মুহুর্তে একে অপরের বন্ধু নয়। কারণ এই শত্রুতার মূল কারণ ধর্ম। ধর্ম একটা জটিল বিষয়।”

তবে এই প্রথম নয়। এর আগেও ভারত-পাক সমস্যার সমাধানে মধ্যস্থতা করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। ভারত ও পাকিস্তান রাজি থাকলে, তিনি মধ্যস্থতায় রাজি বলে আগেই জানিয়েছিলেন। গত মাসে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে যৌথ সাংবাদিক বিবৃতিতে ভারতকে অবাক করে দিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট এ-ও বলেছিলেন, যে কাশ্মীর নিয়ে নাকি তাঁর “মধ্যস্থতা” চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি—যদিও সেই দাবি উড়িয়ে দিয়েছে ভারত।

তবে এর পরেও যে এ বিষয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্প বেশ উৎসাহী, তা ফের স্পষ্ট হল। এই সপ্তাহের শেষে এ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে তিনি কথাও বলতে পারেন বলে জানা গিয়েছে। তা ছাড়াও, খুব তাড়াতাড়ি ফ্রান্সে অনুষ্ঠিত সাতটি দেশের শিল্প সম্মেলন জি ৭-এ দুই রাষ্ট্রনেতার দেখাও হতে পারে।

সোমবার নরেন্দ্র মোদী এবং ইমরান খানের সঙ্গে ফোনে কথা বলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। কাশ্মীর নিয়ে উত্তেজনা কমানোর জন্য দুই রাষ্ট্রপ্রধানের সঙ্গেই কথা বলেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ট্রাম্পকে জানান,কাশ্মীরের কিছু নেতার ভারত-বিরোধী উত্তেজনাপূর্ণ মন্তব্য, শান্তি ফেরানোর পথে বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী দফতরের তরফে এক বিবৃতিতেও বলা হয়েছে, সন্ত্রাস এবং হিংসা থেকে মুক্ত, এবং সীমান্ত সন্ত্রাস মুক্ত করার গুরুত্ব তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

দুই নেতার সঙ্গে এই কথোপকথন প্রসঙ্গে হোয়াইট হাউস জানিয়েছে, কাশ্মীর সমস্যা নিয়ে উত্তেজনা এড়ানোর কথা বলেছেন ট্রাম্প, দু’পক্ষকেই শান্তি ফেরাতে বলেছেন তিনি। আমেরিকার সঙ্গে অর্থনৈতিক ও বাণিজ্যিক সুসম্পর্ক বজায় রাখতে, একসঙ্গে কাজ করতে সম্মত হয়েছেন দুই নেতা।

Comments are closed.