মহম্মদ সেলিমের ভেরিফায়েড ট্যুইট অ্যাকাউন্ট বন্ধ

দ্য ওয়াল ব্যুরো: সিপিএম পলিটব্যুরো সদস্য মহম্মদ সেলিমের ভেরিফায়েড ট্যুইট অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।  এ জন্য বিজেপির আইটি সেলের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছে সিপিএম।  তাদের অভিযোগ, রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী জ্যোতি বসুর একটি উদ্ধৃতি ট্যুইট করায় সেলিমের ট্যুইট অ্যাকাউন্টটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। যদিও বিজেপির আইটি সেল এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

অযোধ্যায় বাবরি মসজিদ ভাঙা প্রসঙ্গে বিজেপিকে ‘অসভ্য ও বর্বর’ বলে মন্তব্য করেছিলেন জ্যোতি বসু।  নিজের ভেরিফায়েড ট্যুইট অ্যাকাউন্টে সেই উদ্ধৃতিই করেছিলেন মহম্মদ সেলিম।  ৫ অক্টোবরের সেই মন্তব্যটি মুছে দেওয়া হয়েছে।

মহম্মদ সেলিম লিখেছিলেন – বিজেপিকে অসভ্য ও বর্বর রাজনৈতিক দল বলে মন্তব্য করেছিলেন কমরেড জ্যোতি বসু।  পশ্চিমবঙ্গের মানুষের কাছে সেই বর্বরতা বন্ধ করার এটাই উপযুক্ত সময়।  বিবেকানন্দ ও রামকৃষ্ণ কখনও এ কথা বলেননি যে অন্যের ধর্মকে ধ্বংস করে নিজের ধর্মকে ভালবাসো।  তাঁর ওই ট্যুইটে কোনও ছবি ব্যবহার করেননি সেলিম।

সেই মন্তব্যের প্রেক্ষিতে যে অভিযোগ জমা পড়ে, তাতেই মহম্মদ সেলিমের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করে ট্যুইটার।  মহম্মদ সেলিম ট্যুইটারের নিয়ম ভেঙেছেন বলে তারা জানিয়ে দেয়।

মহম্মদ সেলিমের সেই ট্যুইট

পরে মহম্মদ সেলিম একটি ট্যুইটে লেখেন সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরশাহি, ওমান, কাতার, বাহরিন প্রভৃতি ইসলামি রাষ্ট্রে ৩০ লক্ষেরও বেশি হিন্দু বিতাড়িত হওয়ার কোনও আশঙ্কা ছাড়াই নির্ভয়ে বসবাস করছেন।  এটাই বসুধৈব কুটুম্বকমের ধারনা।

<blockquote class=”twitter-tweet” data-lang=”en”><p lang=”en” dir=”ltr”>More than 3 million Hindu brothers &amp; sisters are living in Islamic republics of UAE, Saudi Arabia, Oman, Qatar, Bahrain &amp; Kuwait with dignity &amp; without any fear of deportation.<br><br>It seems almost every country in the world is practising &#39;Vasudhaiva Kutumbakam&#39; but not India. <a href=”https://t.co/erPJ7CvRUQ”>https://t.co/erPJ7CvRUQ</a></p>&mdash; Md Salim (@salimdotcomrade) <a href=”https://twitter.com/salimdotcomrade/status/1180428806772805632?ref_src=twsrc%5Etfw”>October 5, 2019</a></blockquote>
<script async src=”https://platform.twitter.com/widgets.js” charset=”utf-8″></script>

বিজেপির বিরুদ্ধে বারবারই উস্কানিমূলক মন্তব্য করার অভিযোগ তুলেছে সিপিএম।  যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়কে ‘উদ্ধার’ করতে গিয়েছিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড় নিজে।  পুরো ঘটনায় তখন সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড় উঠেছিল। বাবুল সুপ্রিয়র ক্ষমা চাওয়া উচিত বলে ফেসবুকে মন্তব্য করায় অশ্লীল মন্তব্য শুনতে হয়েছিল বাচিকশিল্পী ঊর্মিমালা বসুকে।  বহু মন্তব্য উস্কানিমূলক বলে অভিযোগ করেছিল সিপিএম।  তাদের দাবি, এর ফলে বহু অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে যায়।  তারই প্রতিশোধ নিতে বিজেপির আইটি সেল এই পদক্ষেপ করেছে।

তাহু ফল, ঐশ-রোষ ও পিগমি সমাজ

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.