বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ১৭

অভিষেক নয়, মেদিনীপুরে মোদীকে কাউন্টার করবেন মমতাই

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বলরামপুরে অমিত শাহের সভার পাল্টা শুভেন্দু অধিকারীকে দিয়ে সভা করিয়েছিল তৃণমূল। আড়ে-বহরে বিজেপির’ মতো না হলেও সেই সভায় উতরে গিয়েছিল তৃণমূল। ১৬ জুলাই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সভার কাউন্টার সভা করবেন কে? কবেই বা হবে সেই সভা?

শুক্রবার রাতে বিজেপি’র তরফে প্রধানমন্ত্রীর কর্মসূচি নিশ্চিত করার পরই শনিবারই ঘরোয়া বৈঠকে তৃণমূল নেতারা আলোচনা করেন ২৩ তারিখ ওই মাঠেই সভা করবেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই ঘরোয়া আলোচনাই হাটের মাঝে নামিয়ে আনেন ঝাড়গ্রামের তৃণমূল নেতা অজিত মাইতি। সাংবাদিকদের বলেন,  ২৩ তারিখ যুব তৃণমূল সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় সভা করবেন। দলীয় কর্মীরা প্রচারও শুরু করে দেন ফেসবুকে। শোনা যায় তখনই অজিত বাবুর কাছে ফোন যায় রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সীর। দলের শীর্ষ নেতৃত্বের তরফে অজিত বাবুকে জানিয়ে দেওয়া হয় এই প্রচার বন্ধ করতে।  এরপর তৃণমূল ঠিক করে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় নয়, নরেন্দ্র মোদীকে কাউন্টার করতে সমতুল্য হিসাবে ওখানে যাবেন তৃণমূল সুপ্রিমো  নিজেই। তবে সেটা ২৩ জুলাই নয়। কারণ ২১ জুলাইয়ের সমাবেশের পর ২৩ জুলাই মুখ্যমন্ত্রীর সভার জমায়েত সংগঠিত করা খানিকটা চাপের। তাই  ৯ অগস্ট মেদিনীপুর কলেজিয়েট মাঠে সভা করবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরও পড়ুন: বৈদ্যবাটির তৃণমূল কাউন্সিলরের ঘুষ কাণ্ড ফাঁস হল কী ভাবে? 

তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা যখন প্রচার সারছেন একুশে জুলাইয়ের সমাবেশের, প্রহর গুনছেন ধর্মতলা থেকে ভোটের দামামা শোনার তখনই রাজ্য রাজনীতিতে দোলা দিয়েছিল গেরুয়া বাহিনী। গত ৬ জুলাই বিজেপি’র তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়, মমতার আগেই বাংলায় ভোটের বাজনা বাজিয়ে দেবেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী। কেন্দ্রীয় সরকারের কৃষি এবং কৌশল যোজনা প্রকল্পের একটি সরকারি কর্মসূচিতে মেদিনীপুরে আসবেন প্রধানমন্ত্রী। তারপরই মেদিনীপুর কলেজিয়েট মাঠে সমাবেশ করবেন নরেন্দ্র মোদী। রাজনৈতিক মহলের ধারণা, ওই দিনই বাংলায় লোকসভা ভটের ঢাকে কাঠি পড়ে যাবে।

৯ অগস্ট ভারত ছাড়ো দিবস উদযাপন করবে তৃণমূল। গত বছরও এই মাঠেই ‘ভারত ছাড়ো দিবস’ উদযাপন করেছিল তৃণমূল। এ বার সেখানেই পার্ট-টু হবে বলে জানিয়েছেন শাসক নেতারা। বিজেপি’র এক নেতা অবশ্য বলেন, ‘তৃণমূল যেন মনে রাখে গতবারের সভার কথা। ওই সভায় মমতার মঞ্চে ছিলেন মুকুল রায়। তারপরই নক্ষত্র পতন হয়। এ বারও কাদের মঞ্চে রাখবে শাসকদল সেটা যেন আগে থেকে ভেবে রাখে।’

 

 

Leave A Reply