শুক্রবার, ডিসেম্বর ৬
TheWall
TheWall

‘সিরিয়াস সিচুয়েশন’, কেন্দ্রের বিলগ্নিকরণ সিদ্ধান্ত নিয়ে মন্তব্য মমতার

দ্য ওয়াল ব্যুরো: কেন্দ্রের বিলগ্নিকরণ সিদ্ধান্তের বিরোধিতার পথেই হাঁটছে তৃণমূল কংগ্রেস। বুধবারই কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকে পাঁচ সংস্থার শেয়ার বিক্রির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার এই প্রসঙ্গে সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে অর্থনীতির ক্ষেত্রে এই বিলগ্নিকরণকে গুরুতর পরিস্থিতি বলে মন্তব্য করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, একের পর এক রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার বিলগ্নিকরণ কখনও স্থায়ী সমাধান হতে পারে না।

বুধবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকে ভারত পেট্রোলিয়াম (বিপিসিএল), কনটেনার কর্পোরেশন (কনকর), শিপিং কর্পোরেশন, নিপকো ও টিহরি জল বিদ্যুৎ উন্নয়ন নিগম (টিএইচডিসিএল)— এই পাঁচটি সংস্থার শেয়ার বিক্রির সিদ্ধান্ত হয়েছে। তিনটি সংস্থার নিয়ন্ত্রণই আর সরকারের হাতে থাকবে না। বাকি দু’টির ক্ষেত্রেও নিয়ন্ত্রণ তুলে দেওয়া হবে অন্য একটি রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার হাতে।

মন্ত্রিসভার বৈঠকের পরে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন জানান, বিপিসিএল, শিপিং কর্পোরেশনের যত শেয়ার সরকারের হাতে রয়েছে, তার সবটাই বেসরকারি সংস্থাকে বেচে দেওয়া হবে। তবে বিপিসিএল-এর হাতে থাকা অসমের নুমালিগড় রিফাইনারির বেসরকারিকরণ হবে না। সেটি সরকার বা অন্য কোনও তেল সংস্থা কিনে নেবে।

এই প্রসঙ্গে তাঁর মতামত জানাতে গিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বৃহস্পতিবার বহরমপুরে বলেন, কেন্দ্রীয় সরকার যে পথে হাঁটছে তাতে সাময়িক ভাল হতে পারে কিন্তু এটা অর্থনীতিকে চাঙ্গা করার স্থায়ী সমাধান নয়। দেশের অর্থনৈতিক অবস্থাকে ‘সিরিয়াস সিচুয়েশন’ বলে তিনি নোটবাতিল থেকে শুরু করে বিলগ্নিকরণ, কেন্দ্রের সব পদক্ষেপেরই নিন্দা করেন। একই সঙ্গে বলেন, কেন্দ্রের উচিত সকলের সঙ্গে কথা বলা। বিশেষজ্ঞদের মতামত নেওয়ার পাশাপাশি অর্থনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে সর্বদল বৈঠক ডাকাও উচিৎ বলে মন্তব্য করেন মমতা।

Comments are closed.