সোমবার, সেপ্টেম্বর ১৬

কয়লা-যজ্ঞ হবে বাংলায়! মমতা বলললেন: প্রচুর আয় হবে, কয়েক লক্ষের চাকরি হবে, সোনার মুকুট পরবে রাজ্য

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বীরভূমের দেউচা পাঁচামি কয়লা খনি নিয়ে বুধবার বড় ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এ দিন ওই কয়লা খনি সংক্রান্ত সব পক্ষকে নিয়ে নবান্নে বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী। তার পর নবান্নে সাংবাদিক বৈঠক করে বলেন, আগে ৬ টি রাজ্য যৌথ ভাবে এই কয়লা খনি প্রকল্প বাস্তবায়ন করবে বলে ঠিক করেছিল। কিন্তু কাজ এগোয়নি। তার পর কেন্দ্রকে আমরা জানিয়েছিলাম, বাংলা একাই করবে। তাতে সায় দিয়েছে কেন্দ্র।

কী হবে সেখানে?

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, দেউচা পাঁচামি হল পৃথিবীর দ্বিতীয় বৃহত্তম কয়লা ব্লক। সেখানে কয়লা নিচু স্তরে রয়েছে। উপরে রয়েছে পাথর। সেই পাথর কাটতে কাটতে নীচে যেতে হবে। মোট ১১,২২২ হেক্টর আয়তনের ওই কয়লা ব্লকে ২১০২ মিলিয়ন মেট্রিক টন কয়লা মজুত রয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। অর্থাৎ যা কয়লা রয়েছে তাতে আগামী একশ বছর বাংলায় কয়লার সমস্যা হবে না।

মুখ্যমন্ত্রীর কথায়, “প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে পাঁচ বছর লাগবে। পাঁচ বছর কর্মযজ্ঞ চলবে তার পর হবে কয়লাযজ্ঞ”। তিনি এ-ও বলেন, “এর থেকেই বোঝা যাচ্ছে ওই কয়লা ব্লক থেকে প্রচুর আয় হবে, কয়েক লক্ষ ছেলেমেয়ের চাকরি হবে, বাংলা স্বর্ণ মুকুট পরবে এবং গোটা পৃথিবীর অর্থনীতিটা বাংলাকে কেন্দ্র করে…।”

দেউচা পাঁচামি আদিবাসী অধ্যুষিত এলাকা। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, সেখানে চার হাজার মানুষ বাস করেন। প্রায় চারশোটি বাড়ি রয়েছে। এদের মধ্যে চল্লিশ শতাংশ হল আদিবাসী। তবে কারও ভয় পাওয়ার কোনও কারণ নেই। সরকার কোনও তড়িঘড়িও করছে না। ওখানকার মানুষের সঙ্গে তিনি নিজে কথা বলবেন। তাদের পুনর্বাসন প্যাকেজ আগে চূড়ান্ত করা হবে তার পর প্রকল্পের কাজ এগোনো হবে।

Comments are closed.