আইপিএলকে রাঙিয়ে শেষ করবেন মাহি!

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

দ্য ওয়াল ব্যুরো : তিনি আচমকা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়ার পরে একরাশ শূন্যতা তৈরি হয়েছিল সমর্থকদের মধ্যে। বলা হয়েছিল যে এম এস ধোনি কী তা হলে সব ধরণের ক্রিকেট থেকেই অবসর নিলেন? কিন্তু আইপিএলে আবার মাহিকে দেখা যাবে, এই আশাতেই বুক বেঁধেছেন তাঁর অগনিত অনুরাগীরা।

চেন্নাই সুপার কিংস দলের সঙ্গে একেবারে পরতে পরতে জড়িয়ে গিয়েছে ধোনির নাম। তিনি রাঁচির মতোই চেন্নাইতেও সমান জনপ্রিয়। তাঁর অধিনায়কত্বে তিনবার খেতাব পেয়েছে সিএসকে, আর পাঁচবারের রানার্স আপ। শনিবার মুম্বই ইন্ডিয়ানসের বিপক্ষে ধোনির চেন্নাইয়ের ম্যাচ দিয়ে আইপিএলের ঢাকে কাঠি বাজবে। সেই খেলায় অব্যর্থভাবে সবাই তাকিয়ে থাকবে ভারতের প্রাক্তন অধিনায়কের দিকে।

৩৯ বছরের ধোনি কী পারেন এখনও, সেই নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে। বলা হচ্ছে, তাঁর ফিটনেস এতটাই ভাল যে তিনি হাঁটুর বয়সী ছেলেদের সঙ্গে সমান পাল্লা দিতে পারেন। আরও একটি বিশেষ ব্যাপার হল মাহির রানিং বিটুইন দ্য উইকেটস-এ দৌড়। আরও একটি তাৎপর্যের বিষয় হল, প্র্যাকটিসে ধোনি কখনই কিপিং প্রস্তুতি নেন না, ওটি যে তাঁর সহজাত, সেটি ভালই বোঝা যায়।

এবার অবশ্য দুবাইতে এসে ধোনি রীতিমতো কিপিং অনুশীলনও করছেন, যা একটু হলেও ব্যতিক্রমী ঘটনা। সংবাদসংস্থাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ভারতের প্রাক্তন নামী উইকেটকিপার তথা বিসিসিআই জেনারেল ম্যানেজার (অপারেশন) সাবা করিম জানিয়েছেন, ‘‘ধোনি এখনও দারুণ ফিট, ওঁর আত্মবিশ্বাসটাই বড় কথা, আর ক্রিকেট বুদ্ধি এতটাই প্রখর যে বাকিদের সঙ্গে পার্থক্য গড়ে দেয়, তাই আইপিএলে চেন্নাইয়ের রেকর্ড এত ভাল।’’

রেকর্ডবুক খুলে দেখা যাচ্ছে আইপিএলে মোট চেন্নাই সুপার কিংস খেলেছে ১৬৫টি ম্যাচ। তার মধ্যে জিতেছে ১০০টিতে, হার ৬৩। একটি টাই ও একটি ফল হয়নি। সাফল্যের ভাগ প্রায় ৭০ শতাংশ। ২০০৭ সালে টোয়েন্টি ২০ বিশ্বকাপে ভারতকে চ্যাম্পিয়ন করানোর পরেই সিএসকে তাঁকে রেখেই আইপিএল দল গড়েছিল।

সেইসময় বোর্ড সভাপতি ছিলেন এন শ্রীনিবাসন, তিনিই উদ্যোগ নিয়ে মাহিকে রাজি করিয়েছিলেন। তারপর থেকে চেন্নাইয়ের সংসার ছাড়েননি তিনি। এমনকি পরে শ্রীনিবাসনের কোম্পানিতে তিনি ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে যোগও দেন। যদিও সেটি সাম্মানিক পদ হিসেবে রেখে দিয়েছিলেন।

সাবা করিম সেই কারণেই বলেছেন, ধোনি এমন এক ক্রিকেটার, যিনি এই ফরম্যাটে আদর্শ ক্রিকেটার, তিনি জানেন কী পরিস্থিতিতে কীভাবে ম্যাচ ঘোরাতে হয়। ধোনি মোট ১৯০টি আইপিএলের ম্যাচ খেলে করেছেন ৪৪৩২ রান, হাফসেঞ্চুরি রয়েছে ২৩টি। সিএসকে-র মুখ্য আধিকারিক কাশী বিশ্বনাথন বলেছেন, “এম এস ধোনি যদি এবার আইপিএল থেকেও অবসর নিয়ে নিত, তা হলে আমাদের দল নামত কিনা সন্দেহ! কারণ আমাদের দলের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে রয়েছে। আমাদের পরিকল্পনা রয়েছে ধোনিকে ২০২২ সাল পর্যন্ত ক্রিকেটার হিসেবে পাওয়া। সেটি কী সম্ভব? এবার যদি ধোনির নেতৃত্বে চেন্নাই চার বারের মতো খেতাব পায়, তা হলে হয়তো মরুশহর থেকেই ক্রিকেট থেকে সন্ন্যাস নেবেন ভারতের সর্বকালের অন্যতম সেরা এই ক্রিকেটার।”

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

You might also like

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More