বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৪

নতুন কবিতাগুচ্ছ

বেবী সাউ

 

শিকার

পোড়া হৃদয়ের ঘ্রাণ নিতে নিতে ছুরি উঁচিয়ে ধরেছি…

তোমাকে ততটা আর প্রয়োজন নেই

মৃত কফিনের দিকে চোখ রেখে, ধূসর পৃথিবী জেগে ওঠে
তার কথা,  ফ্যাসফ্যাসে স্বর কাচঢাকা গাড়িতে চন্দন টিপ খসে যেতে দেখি

ফোঁটাফোঁটা গলে পড়ে শব…

শান্ত পৃথিবীর কাছে শাড়ি খুলে রাখি…

 

দিনলিপি

এসব হত্যার কথা বলতে এসো না আর

উঁচুপাড় শাড়ি তুলে তুলে ডিঙিয়ে এসেছি মান অপমান
খিদে ভরা চোখ, ডাস্টবিন থেকে তুলে আনা মরা কুকুরের লাশ
পচা খাবারের গন্ধ কতদিন দেখাবে বুভুক্ষু পৃথিবীর রূপ

রিকেটের ফুলে ওঠা পেট নিয়ে
তোমাকে ঈশ্বর মানি রাষ্ট্রনেতা

তুমিই দুকূল ভাসাবে আবার!

 

খিদে

আমার সমস্ত খিদে চুরমার হতে হতে দুর্ভিক্ষের ঘরে এসে থামে

তোমাকে সহায় ভেবে, তুমিই আশ্রয়
ব্যাঙের ছাতার মত ছাদ ভেবে বসি

নেশা নেশা চোখ নিয়ে, ইট পাটকেল নিয়ে
কানাঘুষো শহরের দিকে হেঁটে যাও গোধূলি তারিখ

এখানেও কোনও কর্মসংস্থান নেই…

 

মিছিল

ধর্মঘট কাঁধে করে বাড়ি ফিরে আসি

তুমিও অসার; কানচোখ খোলা রেখে অনুভূত নগরের নামে ব্ল্যাক হোলে ঢুকে পড়ো
ফলত অদৃশ্য
ইতস্তত ইঁদুরেরা শস্য ফেলে দৌড়ে যায়…
ঝিমধরা ভূমি; জল নেই

গুটিকয় কোঠাবাড়ি দু’মুঠো আমানি লোভে জেগে থাকে রাতে
যদিও বাসনকোসনের শব্দ শোনা যায়নি কখনও

 

রাজনীতি

প্রতারিত হতে হতে প্রতারক আমি
গতজন্মের গভীরে খাদ খুঁড়ে চলি

হাতের তালুর দিকে ফুটে ওঠে বৃশ্চিকের রেখা
দীর্ঘশ্বাস নিয়ে হেঁটে আসা বেজি ও নেউলের দল

বাঁচার আকুতি দেখি
সাঁড়াশির মত চেপে ধরি গলা
খিদে মেটে

এইসব উপকথা ভেবে
লোকসভা নির্বাচন ডেকে বসো তুমি

 

অন্ত্যজ

আমাকে প্রান্তিক ভেবে, পৃথিবী দৃশ্যের খোঁজে নামে

খোলা বুক, নিতম্বে পড়েছে ছাপ শেয়াল ও কুকুরের
নখ, থাবা, থুতু নিয়ে ক্যামেরার চোখ
স্যাটেলাইটের দিকে তাক করে থাকে

ড্রেন বেয়ে নেমে যায় শীৎকার, বীর্যের জল

আমাকে প্রান্তিক ভেবে, দশটাকা তুলেও দিয়েছ
মজুরি বাবদ

 

প্রেম

তোমাকে ছোঁয়ার নেশা, খিদে দেয়, লোভ দেয়

কানাঘুষো কোঠাবাড়ি আর তার বাগানের চাঁদ
বিনিময়প্রথা মেনে ছুঁড়ে দেয় মাংসের টুকরো
তীর্যক বিলাপ

ছেদের জীবন ভেবে চারপাশ প্রতারণা করে
সোশ্যাল মিডিয়া থেকে হেসে ওঠো তুমি

টানেলিং পথ এই, রোগগ্রস্ত আমাকে মারবে

 

বেবী সাউ মূলত কবিতা ও প্রবন্ধ লেখেন। প্রকাশিত কাব্য গ্রন্থ ‘বনঘাঘরা’, ‘ইউথেনেশিয়া’, ‘গান লেখে লালন দুহিতা’, ‘ছয়মহলা বাড়ি’, ‘একান্ন শরীরে ভাঙো’। এছাড়াও পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ-পশ্চিম সীমান্ত অঞ্চলের এক লুপ্তপ্রায় লোকসঙ্গীত নিয়ে প্রকাশিত হয়েছে তাঁর গবেষণাগ্রন্থ- ‘কাঁদনা গীত: সংগ্রহ ও ইতিবৃত্ত।’

Comments are closed.