বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৪

পরনে রকস্টারের পোশাক, হাতে গিটার, আলিবাবার কয়েক হাজার কর্মীকে চোখের জলে বিদায় জানালেন জ্যাক মা

দ্য ওয়াল ব্যুরো : তিনি আগেই ঘোষণা করেছিলেন, মঙ্গলবার বিদায় নেবেন নিজের হাতে গড়া আলিবাবা কোম্পানি থেকে। বিদায়ের মুহূর্তটি স্মরণীয় করে রাখতে চেষ্টার ত্রুটি করেননি এশিয়ায় একসময়কার সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি জ্যাক মা। ৮০ হাজার দর্শক ধরে এমন একটি স্টেডিয়াম ভাড়া করেছিলেন তিনি। সেখানে উপস্থিত ছিলেন আলিবাবার কয়েক হাজার কর্মী। ছিলেন অতিথিরাও। জ্যাক মা নিজে রকস্টারের বেশে হাজির হয়েছিলেন তাঁদের সামনে।

মঞ্চে ছিল নর্তক-নর্তকীর দল। তাদের পরনে চিরাচরিত চিনা পোশাক। ডাবস্টেপ মিউজিকের তালে পা মেলাল তারা। ডাবস্টেপ মিউজিকের জন্ম নয়ের দশকের শেষদিকে। লন্ডনে এক ব্যান্ড সেই দ্রুতলয়ের সঙ্গীতের জন্ম দেয়। বিদায় অনুষ্ঠানের জন্য এমন মিউজিকই পছন্দ করেছিলেন জ্যাক মা।

২০ বছর আগে চিনের পূর্বে হ্যাংঝোউ শহরে এক ছোট্ট অ্যাপার্টমেন্টে আলিবাবার সূচনা করেন জ্যাক মা। এক বছর আগেই ঘোষণা করেছিলেন, সংস্থার এক্সিকিউটিভ চেয়ারম্যানের পদটি তুলে দেবেন সিইও ড্যানিয়েল ঝাং-এর হাতে। এদিন মোট চারঘণ্টার অনুষ্ঠানের শেষে জ্যাক মা বলেন, আজ রাতের পরে আমার নতুন জীবন শুরু হবে। আমি মনে করি, পৃথিবীটা বেশ ভালো জায়গা। এখানে অনেক সুযোগ আছে। আমি জীবনে উত্তেজনা খুব পছন্দ করি। সেজন্যই তাড়াতাড়ি রিটায়ার করছি। ভাষণ দেওয়ার সময় তাঁর চোখে জল দেখা যায়।

অনুষ্ঠানের শেষ পর্বে চিনা পপ মিউজিকের তালে পা মেলালেন জ্যাক মা। তাঁর সঙ্গে ছিলেন আলিবাবার আর এক প্রতিষ্ঠাতা লুসি পেং এবং সংস্থার টেকনোলজি কমিটির সিইও ওয়াং জুয়ান। তাঁদের সকলের পরনে ছিল রক স্টারদের মতো ফ্যাশনদুরস্ত লেদার জ্যাকেট। মাথায় ছিল উইগ। আলিবাবার আর এক প্রতিষ্ঠাতা জো সাই সেজেছিলেন মেরিলিন মনরোর স্টাইলে। তাঁর মাথায় ছিল সোনালি চুলের উইগ।

জ্যাক মা-র আমলে আলিবাবা এশিয়ার সবচেয়ে দামি কোম্পানি হয়ে দাঁড়িয়েছে। বাজারে তার দাম ৪৬ হাজার কোটি ডলার। সেখানে ১ লক্ষ মানুষ কাজ করেন। কিছুদিন আগে ওই সংস্থা ফিনান্সিয়াল সার্ভিস, ক্লাউড কম্পিউটিং ও আর্টিফিসিয়াল ইনটেলিজেন্সের ক্ষেত্রে ব্যবসা প্রসারিত করেছে।

মঙ্গলবার আলিবাবা জানায়, তারা প্রত্যেক কর্মীর কাজের সময় ও ব্যক্তিগত জীবনের মধ্যে একটা ভারসাম্য রাখায় বিশ্বাসী। কিছুদিন আগে জ্যাক মা আবেদন জানিয়েছিলেন, কর্মীরা যেন রাতে এবং সপ্তাহান্তে ছুটির দিনেও কাজ করেন। তারপরে দেশ জুড়ে তাঁকে সমালোচনার মুখে পড়তে হয়। জ্যাক মা-র বিদায়ের ক্ষণটিতে আলিবাবা জানিয়ে দিল, তারা সেই অবস্থান থেকে সরে এসেছে।

Comments are closed.