Latest News

গলায় টেলিফোনের তার, হাত জুড়ে দাঁতের পাটি! দেশ-দুনিয়ার আজব গয়নাগাঁটি

দ্য ওয়াল ব্যুরো: গয়নার ওপরে একটা আলাদা ঝোঁক রয়েছে মেয়েদের। তবে হাল ফ্যাশনে ছেলে মেয়ে নির্বিশেষে সকলেই নানারকম অলংকার ব্যবহার করেন। তবে বর্তমানে আলোচনায় এসেছে ইতালীয় ফ্যাশন ব্র্যান্ড বোগেত্তা ভেনেতা।

আলোচনায় আসার কারণ তাদের অভিনভ গলার হার। টেলিফোনের প্যাঁচানো তার দিয়ে তৈরি তাদের এই হারের দাম ভারতীয় টাকায় দেড় লক্ষেরও বেশি। আর তাই নিয়ে নেটিজেনদের মধ্যে শুরু হয়েছে ঠাট্টা-তামাশা। সাধারণ টেলিফোনের তারের গয়না, তার আবার এত দাম!

তবে বোগেত্তা ভেনেতা-ই শুধু নয়, প্রচলিত ধ্যানধারণা, পদ্ধতির বাইরে গিয়ে নানা অদ্ভুত সামগ্রীকে এর আগে সাজসজ্জার উপাদান হিসেবে ব্যবহার করেছে বহু ব্র্যান্ডই। রইল তেমনই কয়েকটি উদাহরণ-

হাতে বাঁধানো দাঁত

খুব খুশিতে দাঁত বার করে হাসাই যায়। কিন্তু ৩২ পাটি দাঁত যদি হাতে পরা হয়। তা-ও আবার হাসে! মাঝে এমনই এক ধরনের বালা বা ব্রেসলেট জনপ্রিয় হয়েছিল। মাড়ি-সহ সাজানো দাঁতের বালা। যদিও পরে বিষয়টি নিয়ে এমন ব্যঙ্গ শুরু হয়। পরে সেই বালা বিক্রি বন্ধ হয়।

চোখের জলের গয়না

এরিক ক্লারেনবিক বলে এক ফ্যাশন ডিজাইনার এই অলংকারটি বানান। এমন এক গয়না, যা কনট্যাক্ট লেন্স থেকে ঝুলে থাকে। দেখে মনে হয়, জল গড়িয়ে পড়ছে। এরিকের দাবি ছিল, মনখারাপ বোঝানোর জন্য যে কেউ এই গয়না পরতে পারেন।

বার্বি পুতুলের টুকরো

বার্বি পুতুল খুবই জনপ্রিয় খেলনা। কিন্তু এর শরীরের নানা অংশ কেটে গয়না বানানোর অভিনব উদ্যোগ নিয়েছিলেন কয়েক জন শিল্পী। মুখের অংশ কেটে কানের দুল। শরীরের নানা অংশ কেটে হার। তবে গয়না হিসেবে বিশেষ জনপ্রিয় হয়নি বার্বির টুকরো।

জীবন্ত প্রাণী

একটা ছোট সাদা ইঁদুর বা একদম ছোট পাখি। পোষ্য হিসেবে খুব ভাল। কিন্তু সেগুলি কি হয়ে উঠতে পারে অলংকার? তেমন চেষ্টাই হয়েছিল। গলায় বসানো ছোট খাঁচা। তার মধ্যে দৌড়ে বেড়াচ্ছে ছোট্ট একটা ইঁদুর। একই ভাবে মাথার ধারে লাগানো ছোট্ট খাঁচা। সেখানে রাখা জীবন্ত পাখি। বিশ্বের সবচেয়ে অদ্ভুত অলংকারের তালিকায় একেবারে প্রথম সারিতে রয়েছে এটি।

বরফের গয়না

খুব গরম লাগলে, এই গয়না একেবারে আদর্শ। যদিও এক বারের বেশি পরা সম্ভব নয়। ক্যাথারিনা লুডউইগ এই গয়না তৈরি করেন। প্রকৃত বরফ দিয়েই বানানো হয় হার, দুল। এক সময়ে খুবই জনপ্রিয় হয়েছিল এই গয়না।

You might also like