Latest News

একটানা পেট ব্যথা অবহেলা করবেন না, প্যানক্রিয়াটাইটিস কেন হয়

গুডহেলথ ডেস্ক: পেট ব্যথা হলে বেশিরভাগ সময়ই আমরা ভাবি ওটা গ্যাস–অম্বলের ব্যথা। ওভার দ্য কাউন্টার কোনও ব্যথার ওষুধ বা অ্যান্টাসিড খেয়ে নিই। তবে পেট ব্যথা যে সব সময় গ্যাস বা অম্বলের কারণে হয় তা কিন্তু নয়। অগ্ন্যাশয়ের প্রদাহ জনিত ব্যথাও হতে পারে, চিকিৎসা পরিভাষায় যা পরিচিত প্যানক্রিয়াটাইটিস নামে। আর একে অবহেলার অর্থ নিজের বিপদ নিজে ডেকে আনা। তাই পেটে ব্যথা হলে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ প্রয়োজন।

Warning Signs of Pancreatitis

প্যানক্রিয়াটাইটিস কী?‌

প্যানক্রিয়াটাইটিস হল প্যানক্রিয়াস বা অগ্ন্যাশয়ের প্রদাহ। প্যানক্রিয়াস বা অগ্ন্যাশয়ে একটি গ্রন্থি রয়েছে, সেই গ্রন্থিতে সংক্রমণ বাসা বাঁধলে অগ্ন্যাশয়ে প্রদাহ দেখা দেয়। ‌প্যানক্রিয়াটাইটিস সাধারণত দু’‌ধরনের— অ্যাকিউট এবং ক্রনিক।

Acute Pancreatitis- 8 important things you should know - Sakra World Hospital

কেন হয়?‌

সাধারণত দুটো কারণে ‌প্যানক্রিয়াটাইটিস হয়— ১) গল ব্লাডারে স্টোন বেরিয়ে গিয়ে এবং ২) অতিরিক্ত মদ্যপান থেকে। এ ছাড়াও অতিরিক্ত ধূমপান এবং ওবেসিটি এই রোগের ঝুঁকি অনেকটাই বাড়ায়। কোনও ওষুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থেকেও ‌প্যানক্রিয়াটাইটিস হতে পারে।

উপসর্গ কী?‌

পেটে ব্যথা হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। তবে পেটে ব্যথা মানেই ‌প্যানক্রিয়াটাইটিস নয়। সাধারণত ‌প্যানক্রিয়াটাইটিস হলে হঠাৎ করে পেটে তীব্র ব্যথা হয়। এই ব্যথা পিঠের সামনে থেকে পেছনের দিকে ছড়িয়ে যায়। সঙ্গে বমি বা জ্বরও হতে পারে।

Pancreatitis treatment in Jaipur

রোগ নির্ণয় কীভাবে?‌

‌ক্লিনিক্যাল পরীক্ষায় প্যানক্রিয়াটাইটিসের উপসর্গ দেখা দিলে প্রথমেই রক্ত পরীক্ষা ও আলট্রাসোনোগ্রাফি করা হয় এবং প্রয়োজনে সিটি স্ক্যান করা হয়। গল ব্লাডারে স্টোন থাকলে এন্ডোস্কোপি বা ইআরসিপি করার প্রয়োজন পড়তে পারে।

চিকিৎসা কী?‌

‌প্যানক্রিয়াটাইটিসে সঠিক সময় চিকিৎসা শুরু করা দরকার। তা না হলে অনেক সময় ‌প্যানক্রিয়াটাইটিস মারাত্মক আকার নিতে পারে। মাল্টি অর্গ্যান ফেলিওর, এমনকী প্রাণ সংশয় পর্যন্ত দেখা দিতে পারে। তাই প্যানক্রিয়াটাইটিস আক্রান্তকে দ্রুত হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা শুরু করা দরকার। চিকিৎসার শুরুতে জানা দরকার রোগী মদ্যপান করতেন কিনা। সঠিক সময় চিকিৎসা শুরু হলে রোগীর সুস্থ জীবনে ফেরা সম্ভব।

প্রতিরোধে কী করণীয়?‌
১)‌ মদ্যপান ও ধূমপান এড়িয়ে চলুন। অতিরিক্ত ধূূমপান অগ্ন্যাশয়ের রোগ বা প্যানক্রিয়াটাইটিসের কারণ হতে পারে। ২)‌ স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস দরকার ৩)‌ ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখুন এবং ৪)‌ নিয়মিত শরীরচর্চা করুন।

You might also like