Latest News

মেদ ঝরানোর টোটকা আছে রান্নাঘরেই, এই সাত মশলায় অসুখবিসুখও সারবে

দ্য ওয়াল ব্যুরো: নির্মেদ শরীরের জন্য আমরা কত কী না করি! জিম, ডায়েটে অনেক ব্যয়ও করে ফেলি। তবে মেদহীন সুস্থ সবল শরীর পেতে আমাদের জীবনযাপনের অভ্যেস সবার আগে পাল্টানো প্রয়োজন। অসময়ে অনিয়ন্ত্রিত খাওয়া-দাওয়া, মদ্যপানের অভ্যেস এবং শরীরচর্চায় অনীহার জন্যই ওজন বাড়ে। তাই এ বিষয়ে আগে সচেতন হওয়া দরকার। পাশাপাশি দৈনন্দিন জীবনে কিছু টোটকা যদি আমরা জানি, তবে তা ওজন নিয়ন্ত্রণে কাজে আসতে পারে। যেমন বেশ কিছু মশলা আমাদের রান্নাঘরেই আছে, যেগুলি সঠিকভাবে খেলে ওজন বাড়তে দেয় না। এমনকী রান্নায় ব্যবহারে খাবারও হয় সুস্বাদু। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বাড়ে।

হলুদ: মেদ কমাতে হলুদের বিস্তর ভূমিকা আছে। হলুদের কারকিউমিন যৌগ শরীরের মেটাবলিজম প্রক্রিয়া সক্রিয় করে, রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখে।

12 healthy herbs and spices: A closer look

জিরে: রান্নার স্বাদ যেমন বাড়ায় তেমনই হজমের সমস্যা দূর করে। এই মশলা বাতের নানা সমস্যাও কমায়। শরীরে অবাঞ্ছিত মেদ জমতে বাধা দেয়।

মেথি: মেথিতে থাকে উপকারী থিয়ামিন, ফলিক আসিড, ক্যালশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, জিঙ্ক ও ভিটামিন এ, বি, ই। ওজন ঝরাতে প্রতিদিন মেথি ভেজানো জল ও মেথিভাজা খাওয়া যেতে পারে। এছাড়া ডায়াবেটিস ও বাতের সমস্যা দূরে রাখতেও মেথির ভূমিকা অনস্বীকার্য।

Health Benefits Of 38 Important Spices From Around The World - NDTV Food

গোলমরিচ: গোলমরিচও উপকারী মশলার মধ্যে অন্যতম। খাদ্যে রুচি বাড়ায়। কৃমির সমস্যা দূর করে। দেখা গিয়েছে, স্থূলকায় ব্যক্তি প্রতিদিন গোলমরিচ খেলে তার ওজন কমতে বাধ্য। বিভিন্ন গবেষণায় জানা গিয়েছে, গোলমরিচে থাকা পিপারিন যৌগটি ফ্যাট সেল বাড়তে বাধা দেয়। এছাড়া গোলমরিচে অ্যান্টি-ব্যাক্টেরিয়াল, অ্যান্টি-ফ্যাঙ্গাল, অ্যান্টি-ইনফ্লামেটরি উপাদানও রয়েছে।

দারচিনি: স্থূলকায় ব্যক্তিদের বেশি খিদে পায়। এক্ষেত্রে সাহায্য করতে পারে দারচিনি। খিদে কমাতে সাহায্য করে। দারচিনিতে থাকে পলিফেনল যৌগ যা রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখে। ফলে রান্নায় দারচিনির ব্যবহার সুগার রোগীদের জন্য খুবই উপকারী। এছাড়া দারচিনি রক্তে খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায়। ওজন কমাতে ও করোনারি হার্ট ডিজিজ প্রতিরোধে এচিডিএল সক্ষম।

সর্ষে: মেটাবলিজম প্রক্রিয়াকে প্রভাবিত করে সর্ষে। এছাড়া সর্ষের মধ্যে নিয়াসিন রয়েছে যা রক্তের খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে।

You might also like