মঙ্গলবার, অক্টোবর ২২

পেট ভরে ভাত খাবেন না, কী বিপদ হতে পারে জানেন ? রান্নার ভুলে মারণব্যাধির ভয়

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বাঙালি সারাদিনে একবার ভাত খাবে না, সেটা হতেই পারে না। অনেক তো দিনে তিনবারও ভাত খায়। কিন্তু পেটপুরে ভাত খাওয়াটা মারাত্মক বিপদের বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। তাছাড়া ভাত রান্নায় ভুলও বড় বিপদ ডেকে আনতে পারে বলে জানাচ্ছে গবেষণা।

প্রথমেই জেনে নিন কেন বিশেষজ্ঞরা পেট ভরে ভাত খেতে বারণ করছেন–

১। ভাত ওজন বাড়ায়। আর অপরিমিত ভাত অতিরিক্ত ওজন বাড়ায়।

২। ভাত বেশি পরিমাণে খেলে অন্যান্য সবজি ও মাছ মাংস খাওয়া কম হয়। এতে ভিটামিন ও প্রোটিনের ঘাটতি হয়।

৩। আমরা সাধারণত সাদা চালের ভাত খাই। লাল চালের ভাত বেশি উপকারি। কিন্তু সাদা চালে পুষ্টিগুণ একেবারেই কম। উল্টে কার্বোহাইড্রেট মেটাবোলিজম কমিয়ে দেয়। হজম শক্তি কমায়।

৪। পেট পুরে ভাত খেলে ঘুম বাড়ে। আর ভাত খাওয়ার পরে ঘুম শরীরের অনেক রকম ক্ষতি করে।

৫। বিশেষজ্ঞদের মতে, শুধু ভাত নয়, চাল থেকে তৈরি যে কোনও খাবারই বেশি পরিমাণে খাওয়া ঠিক নয়। হজমশক্তি কমার পাশাপাশি হার্টের নানা অসুখেরও কারণ হয়ে ওঠে।

এছাড়াও ভাত রান্না করতে গিয়ে একটুখানি ভুল প্রতিদিন আপনাকে ধীরে ধীরে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দিচ্ছে। অলক্ষে শরীরে বাসা বাঁধছে ক্যানসারের মতো মারণ রোগ। সম্প্রতি ব্রিটেনের কুইনস ইউনিভার্সিটি বেলফাস্টের গবেষণায় বলা হয়েছে, চাষের কাজে বহু কীটনাশক ও রাসায়নিক ব্যবহৃত হয়। তাই রান্না করার আগে খুব ভালো করে চাল না ধুয়ে রান্না করলে মারাত্মক বিষ প্রবেশ করে শরীরে।

গবেষকরা জানাচ্ছেন, এই বিষ পুরোপুরি রোধ করা সম্ভব না হলেও এর প্রভাব কমানো যেতে পারে। রান্না করার আগে সারা রাত চাল ভিজিয়ে রাখার পরামর্শ দিচ্ছেন গবেষকরা। তাঁরা জানিয়েছেন, সারা রাত চাল ভিজিয়ে রাখলে রাসায়নিক, টক্সিন এবং আর্সেনিকের মাত্রা ৮০ শতাংশ পর্যন্ত কমে যায়।

Comments are closed.