বুধবার, নভেম্বর ১৩

একটু বাড়লেই নখ ভাঙছে! প্রিয় নেলপলিশ পরা যাচ্ছে না! মেনে চলুন এই ১০ টিপস

সমুজ্জ্বলা দেব (ডারমাটোলজিস্ট)

নখ ভেঙে যাওয়ার সমস্যা কমবেশি প্রায় সকলেরই আছে। একটু বাড়লেই যখন-তখন ভেঙে যায় নখ। শখের নেলপলিশ কেবল শোভা পায় ড্রেসিং টেবিলেই। হাতে পায়ে সেসব পরে আর সাজগোজ করা হয় না। কিন্তু সব সমস্যার মতো নখ ভেঙে যাওয়া ঠেকানোরও সমাধান রয়েছে। সামান্য কিছু নিয়ম মেনে চললেই একদম ঝকঝকে থাকবে আপনার হাত এবং পায়ের নখ। ভাঙার কোনও প্রশ্নই আসবে না।

ঠিক কী কী যত্ন করলে সুন্দর থাকবে আপনার নখ তার টিপস নিয়েই আজকের প্রতিবেদন। আর টিপস দিয়েছেন দুর্গাপুর দ্য মিশন হসপিটালের ডার্মাটোলজিস্ট সমুজ্জ্বলা দেব।

নখের যত্ন নেওয়ার ১০টি টিপস

১. ঘনঘন নেলপলিশ বদলের অভ্যাস থাকলে আগেই সেটা পাল্টান। কারণ যতবার নতুন নেলপলিশ লাগাবেন, তার আগে রিমুভারও লাগাতে হয়। আগের নেলপলিশ তোলার বা মোছার জন্য। এই রিমুভার নখের জন্য খুবই ক্ষতিকর।

২. পায়ের নখ কাটার সময় সোজাভাবে নখ কাটবেন। মনে শেপ যেন কখনই গোলাকার বা ওভাল শেপে না থাকে। তাহলে নখ বেশি ভেঙে যায়।

৩. আপনি কি মাঝে মাঝেই বিউটি পার্লারে গিয়ে ম্যানিকিওর বা পেডিকিওর করান? তাহলে অবশ্যই খেয়াল রাখবেন যাতে আপনার ট্রিটমেন্টের সময় পরিষ্কার কিট ব্যবহার করা হয়। প্রয়োজনে নিজের বাড়ি থেকে কিট নিয়ে যান। সবচেয়ে ভালো হয় যদি বাড়িতে নিজেই করে নেন। কারণ নখে একবার ইনফেকশন হলে বারবার নখ ভাঙবে।

৪. নেল আর্ট এখন ফ্যাশন। তবে নখের উপর যত কেমিক্যাল ব্যবহার করা হবে ততই ভঙ্গুর হবে নখ। অনেকেই আবার আর্টিফিশিয়াল বা কৃত্রিম নখও লাগান ফ্যাশনের জন্য। এইসবও আপনার নখের জন্য খুবই খারাপ। কারণ এসব থেকে নখে মারাত্মক ইনফেকশন হতে পারে।

৫. যদি নখের উপর কোনও কালো বা সবুজ রংয়ের আভা দেখতে পান তাহলে বুঝবেন আপনার নখে ফাঙ্গাল ইনফেকশন হয়েছে। এরকম হলে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ডার্মাটোলজিস্টের সঙ্গে যোগাযোগ করুন।পরামর্শ নিন।

৬. বাড়ির কাজকর্ম করতে গেলে সাবান কিংবা জলে অনেকটা সময় হাত লাগাতে হয় মহিলাদের। চেষ্টা করুন কাজ শেষে হাতের এবং পায়ের জল শুকনো করে মুছে নিতে। অনেকের আবার অতিরিক্ত জল ঘাঁটার অভ্যাস থাকে। তাঁরা অভ্যাস পাল্টান।কারণ নখে জল জমে থাকলেও নখ ভঙ্গুর হয়ে যায়। দেখা দেয় আরও নানা সমস্যা।

৭. অনেক সময় নখে চুলকানি বা অন্যান্য অনেক সমস্যা দেখা যায়। কোনও সামান্য সমস্যা অবহেলা করলেও অনেক বড় রোগ হতে পারে। হয়তো আপনার অজান্তেই অনেক বড় ক্ষতি হতে পারে। তাই অবহেলা না করে ডার্মাটোলজিস্টের পরামর্শ নিন।

৮. নখের যত্ন নিতে হলে খাওয়াদাওয়ার ক্ষেত্রেও বেশ কিছু নিয়ম মেনে চলতে হবে। প্রোটিন এবং ভিটামিন যুক্ত খাবার খেতে হবে। যা আপনার নখকে শক্ত করবে। প্রয়োজনে ক্যালসিয়াম ট্যাবলেট খেতে পারেন। তবে সেটা অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে।

৯. নখ বড় রাখার শখ থাকে অনেকেরই। তবে সে ক্ষেত্রে খেয়াল রাখবেন যাতে নখে চোট না লাগে। ততটা লম্বায় নখ রাখবেন যেখানে আঘাত পাওয়ার সম্ভাবনা কম।

১০. অনেকের নখ একদম বাড়তেই চায় না। কেউ বা দাঁতে নখ কাটার খারাপ স্বভাবে অভ্যস্ত। সবার আগে দাঁত নিয়ে নখ কাটা বন্ধ করুন। নেল ট্রিটমেন্টের জন্য অবশ্য পার্লারে যেতে পারেন। তবে খেয়াল রাখবেন সেটা যেন ভালো জায়গা হয়। নইলে নখের বারোটা বাজতে বেশিক্ষণ লাগবে না।

সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন সোহিনী চক্রবর্তী 

Comments are closed.