রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তের ৫০ শতাংশেরও বেশি কলকাতা ও উত্তর ২৪ পরগনায়! মোট মৃত্যুর দুই তৃতীয়াংশও এই দুই জেলার

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

    দ্য ওয়াল ব্যুরো: রাজ্য জুড়েই লাফিয়ে বাড়ছে করোনার সংক্রণ। প্রতিদিনই ভাঙছে রেকর্ড। আজ, রবিবারের বুলেটিন বলছে ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমণ পেরিয়ে গেছে দেড় হাজার! মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ হাজার ১৩। কিন্তু সারা রাজ্যের এই পরিস্থিতিতে বিশেষ করে আশঙ্কার কেন্দ্রস্থল হয়ে উঠেছে শহর কলকাতা। আর তার পরেই আছে উত্তর ২৪ পরগনা। রাজ্যের এই দুই জেলার করোনা পরিসংখ্যান সারা রাজ্যের মোট পরিসংখ্যানের অর্ধেকের চেয়ে বেশি।

    রাজ্যে করোনা নিয়ে মোট মৃত্যু যেখানে ৯৩২, শুধু কলকাতাতেই মারা গেছেন প্রায় ৫০০ জন। সংখ্যাটা ৪৯৯। এঁদের মধ্য়ে ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে গত ২৪ ঘণ্টায়। কলকাতায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যাও চড়চড় করে বেড়ে হয়েছে ৯৬৮৪। আজই জানা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় এ শহরে সংক্রামিত হয়েছেন ৪৫৪ জন। এই মুহূর্তে করোনা অ্যাকটিভ রয়েছে এ শহরের ৩৫৬৮ জন বাসিন্দার দেহে।

    কলকাতার পিছনেই থাকা জেলা উত্তর ২৪ পরগনাতেও মৃত্যুর সংখ্যা ছুঁয়েছে ১৬৪! মোট আক্রান্ত ৫৬২৯ জন। এঁদের মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় সংক্রামিত ৩৫৭ জন। ২৪৬৫ জনের শরীরে এই মুহূর্তে সক্রিয় করোনার জীবাণু। তবে কলকাতা ও উত্তর ২৪ পরগনায় সংক্রমণের হার যেমন বেশি, তেমনই সেরে ওঠা কোভিডজয়ীর সংখ্যাও কম নয়। কলকাতায় সেরে উঠেছেন ৫৫৪১ জন, উত্তর ২৪ পরগনায় ৩০০০ জন।

    সংক্রমণ বেশি হওয়ার কারণে কনটেনমেন্ট জ়োনও বেশি এই দুই জেলায়। তবে কড়া লকডাউন পালনে অনেক ক্ষেত্রেই খামতি থেকে যাচ্ছে বলে মনে করছেন সাধারণ মানুষই। সেই কারণে সংক্রমণের হার উত্তরোত্তর বেড়েই চলেছে।

    আজকের অর্থাৎ রবিবারের যা পরিসংখ্যান, তাতে দেখা যাচ্ছে কলকাতা ও উত্তর ২৪ পরগনা মিলিয়ে মোট সংক্রামিত ১৫ হাজার ২৩৭ জন। যা মোট আক্রান্ত ৩০ হাজার ১৩ জনের মধ্যে অর্ধেকরও বেশি। আর এই দুই জেলা মিলিয়ে করোনা নিয়ে মৃতের সংখ্যা ৬৬৩। যা রাজ্যের মোট মৃত্যু ৯৩২ জনের দুই তৃতীয়াংশের বেশি।

    আজকের আগে পরপর তিন দিনের পরিসংখ্যানে অর্থাৎ ৯, ১০ ও ১১ তারিখের বুলেটিনে নজর রাখলে দেখা যায়, শহর কলকাতায় প্রতিদিন করোনা সংক্রমণের সংখ্যা হল যথাক্রমে ৩২২, ৩৭৪ এবং ৪১২। এই তিন দিনে এ শহরে মারা গেছেন ১৩ জন, ১৩ জন এবং ১৬ জন। আবার উত্তর ২৪ পরগনায় এই তিন দিনে আক্রান্তের সংখ্যা যথাক্রমে ২৬৪, ৩২৮ ও ৩২৭। মারা গেছেন ৬ জন, ৬ জন ও ৫ জন।

    অর্থাৎ আজকে নিয়ে শেষ চার দিনে এই দুই জেলায় করোনায় সংক্রামিত হয়েছেন ১৫৬২ জন এবং ৯১৯ জন। মোট ২৪৮১ জন। আজকের এবং চার দিন আগের রাজ্যের মোট করোনা সংক্রমণের সংখ্যার ফারাক ৪১০২। চার দিনে এই সংখ্যায় সংক্রমণ বেড়েছে রাজ্যে। স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে, তার মধ্যে অর্ধেকেরও বেশি সংক্রমণ কেবল কলকাতা ও উত্তর ২৪ পরগনা জুড়েই। মৃত্যুর ক্ষেত্রেও চার দিনে রাজ্যে মোট মৃত্যু হয়েছে ১০৫ জনের। এই সংখ্যাটা শুধু কলকাতার ক্ষেত্রেই ৫৫, যা অর্ধেকের বেশি। উত্তর ২৪ পরগনায় চার দিনে মোট মৃত্যু হয়েছে ২০ জনের। চার দিনে এই দুই জেলা মিলিয়ে মৃতের সংখ্যা ৭৫। সারা রাজ্যের নিরিখে যা প্রায় চার ভাগের তিন ভাগ!

    স্বাস্থ্য দফতরের কর্তারা জানাচ্ছেন, জনবহুল জীবন এবং কাজে ফেরার অনন্যোপায়তা কলকাতার এই সংক্রমণ বৃদ্ধির একটা বড় কারণ। আবার উত্তর ২৪ পরগনা এমনিতেই ডেঙ্গি বা চিকুনগুনিয়ার মতো অসুখের ক্ষেত্রে বিপদের দ্বারপ্রান্তে অবস্থান করে। কোভিডের সময়েও ব্যতিক্রম হয়নি। অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ ও সচেতনতার অভাবই হয়তো মূল কারণ।

    কিন্তু কারণ যাই হোক না কেন, গোটা রাজ্যের মধ্যে এই দুটি জেলার সংক্রমণের ঊর্ধ্বমুখী হার রীতিমতো কপালে ভাঁজ ফেলছে সকলের।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

You might also like

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More