শনিবার, মার্চ ২৩

পুনেয় মারধর কাশ্মীরি সাংবাদিককে

দ্য ওয়াল ব্যুরো : পুলওয়ামা কাণ্ডের পরে হামলার শিকার হলেন আরও এক কাশ্মীরি। জিবরান নাজির নামে ২৪ বছর বয়স্ক এক কাশ্মীরি যুবক পুনের সংবাদপত্রে রিপোর্টিং করেন। বৃহস্পতিবার রাতে তাঁকে মারধর করে দুই ব্যক্তি। পুলিশ প্রথমে ভেবেছিল, রাস্তায় কোনও গন্ডগোলের জেরে ওই যুবক মার খেয়েছেন। পরে প্রকৃত ঘটনা জেনে দু’জনের বিরুদ্ধে এফআইআর করে। তাদের একজনকে গ্রেফতারও করা হয়েছে। সে থানায় কাশ্মীরি যুবকের কাছে ক্ষমাও চেয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, ট্রাফিক সিগন্যালের কাছে ওই কাশ্মীরি যুবক আক্রান্ত হন। তাঁকে মারার সময় দুষ্কৃতীরা চেঁচাচ্ছিল, ওকে কাশ্মীরে পাঠিয়ে দাও। জিবরান অবশ্য বলেছেন, খুব পরিকল্পিতভাবে যে তাঁর ওপরে আক্রমণ চালানো হয়েছিল, এমন নয়।

তিনি জানান, বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ১১ টার সময় তিনি বাইকে চড়ে বাড়ি ফিরছিলেন। পুনের তিলক রোডে এক ট্রাফিক সিগন্যালে তাঁকে দাঁড়াতে হয়। তাঁর ঠিক পিছনেই দাঁড়ায় আর একটি বাইক। তাতে ছিল দুই আরোহী। তারা ক্রমাগত হর্ন বাজাতে থাকে। তাঁকে সামনে থেকে সরে যেতে বলে। এর ফলে কথা কাটাকাটি শুরু হয়। জিবরানের বাইকে হিমাচল প্রদেশের নম্বর দেখে তারা বলে, ওকে হিমাচল প্রদেশে পাঠিয়ে দাও। জিবরান তাদের বলেন, তিনি জম্মু-কাশ্মীর থেকে এসেছেন। তারা বলে, তোকে কাশ্মীরে পাঠিয়ে দেব। সেখানে গিয়ে রিপোর্টিং করবি। শেষে জিবরানের মোবাইল ফোনটি কেড়ে নিয়ে দু’জন পালিয়ে যায়।

জিবরান পুলিশের কাছে অভিযোগ করেননি। পুলিশ জানতে পেরে শুক্রবার সন্ধ্যায় আজহারউদ্দিন শেখ ও দত্তাত্রেয় লাভাতে নামে দু’জনের বিরুদ্ধে মামলা করে। আজহারউদ্দিন শেখকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

 

এর আগেও মহারাষ্ট্রে কাশ্মীরিরা আক্রান্ত হয়েছেন। শিবসেনার যুব সংগঠন যুব সেনা বৃহস্পতিবারই কয়েকটি কলেজে কাশ্মীরি ছাত্রদের ওপরে হামলা করে।

Shares

Comments are closed.